আত্মহত্যা নাকি হত্যা?

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধিঃ—
সোমবার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার বেতবাড়িয়া থেকে এক স্কুল ছাত্রীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মেয়েটি গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে নাকি তাকে হত্যা করা হয়েছে এ নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।
এলাকার একটি সূত্র জানায়, আত্মসম্মানমূলক কোনো বিষয়ে বঞ্চিত হয়ে সে আত্মহত্যা করতে পারে। তবে পুলিশ জানায়, মৃত্যুর ঘটনাটি রহস্যজনক হওয়ায় ময়নাতদন্তের জন্য লাশ জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে নিয়ে আসা হয়েছে। আপাতত সাধারণ ডায়রি করা হচ্ছে।
বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, সরাইল উপজেলার কুট্টাপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী ও হাবিবুর রহমানের মেয়ে শান্তা আক্তারের (১৫) লাশ তার নিজ বাড়ি থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। এর আগে প্রতিবেশী মো. মনিরুজ্জামানের একটি ঘরে ফাঁস লাগানো অবস্থায় তার লাশ পাওয়া যায়।
এলাকার একটি সূত্র জানায়, মনিরুজ্জামানের ভাই মো. আমির হোসেনের সঙ্গে মেয়েটির প্রেমের সম্পর্ক ছিল। এ নিয়ে দু’পরিবারের মধ্যে মনোমালিন্যের ঘটনা ঘটে। এতে মেয়েটির মাঝেও ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। রবিবার মেয়েটি আমিরের বাড়িতেই থাকে।
মো. মনিরুজ্জামান জানান, মেয়েটি আমারও আত্মীয়। আমার ভাইয়ের সঙ্গে তার কোনো সম্পর্ক ছিলনা। সোমবার সকালে আমার স্ত্রী রান্না করার সময় মেয়েটি আমাদের ঘরে গিয়ে আত্মহত্যা করে। তার মা-বাবা বকাঝকা করায় সে আত্মহত্যা করেছে।
লাশ উদ্ধার করা ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানার এস.আই মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, ’ঘটনাটি রহস্যজনক। মেয়েটির গলার একদিকে একটু দাগ রয়েছে। যে ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে বলা হচ্ছে তাতে আরো বড় দাগ থাকতো। এছাড়া আরো কিছু বিষয়ে আমার সন্দেহ হচ্ছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্টে হত্যার কথা বলা হলে মামলা রজু করা হবে’।

Check Also

কুমিল্লায় তিন গৃহহীন নতুন ঘর পেল

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ– কুমিল্লা সদর উপজেলায় গ্রামীণ উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে ৪নং আমড়াতলী ইউনিয়নের গৃহহীন নুরজাহান বেগম, ...

Leave a Reply