কুমিল্লার দেবিদ্বারে সন্ত্রাসবিরোধী সভায় আ’লীগের দু’গ্রুপের সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে সভা পন্ড: সাংবাদিকসহ আহত-১৫

DEBIDWAR NEWS 09.03.13-2দেবিদ্বার প্রতিনিধিঃ—

স্থানীয় সাংসদের উদ্যোগে শনিবার সকালে দেবিদ্বার উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে ‘জামাত-শিবির ও বিএনপির ধ্বংসাত্মক সন্ত্রসী কর্মকান্ড প্রতিরোধে’ আয়োজিত এক সভায় আ’লীগ নেতা স্থানীয় সাংসদ এবিএম গোলাম মোস্তফা ও আ’লীগ কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য এএফএম ফখরুল ইসলাম মূন্সী’র সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে সাংবাদিকসহ অন্ততঃ ১৫নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন।
সংঘর্ষ চলাকালে ভীতসন্ত্রস্ত সাধারন সমর্থক নারী ও শিশুরা প্রাণ ভয়ে সভাস্থল ত্যাগ করতে যেয়ে বেশ ক’জন আহত হয়েছেন বলেও জানা যায়। এসময় উপস্থিত পুলিশ প্রশাসন বিব্রতকর অবস্থায় কিছুক্ষন নিরব থাকলেও পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারন করলে সর্বশক্তি দিয়ে নিয়ন্ত্রনের চেষ্টা চালান। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নেতৃত্বে বিপুল সংখ্যক পুলিশের সহায়তায় কুমিল্লা-৪ (দেবিদ্বার) নির্বাচনী এলাকার সংসদ সদস্য ও সরকারী প্রতিষ্ঠান সম্পর্কীত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবিএম গোলাম মোস্তফা ও আ’লীগ কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সাবেক উপ-মন্ত্রী এএফএম ফখরুল ইসলাম মূন্সীকে কড়া নিরাপত্তা বেষ্টুনির চাদরে সভাস্থল থেকে বের করে নিয়ে যান।
প্রত্যক্ষ দর্শিরা জানান, সকাল ১০টায় স্থানীয় সাংসদের উদ্যোগে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে ‘জামাত-শিবির ও বিএনপির ধ্বংসাত্মক সন্ত্রসী কর্মকান্ড প্রতিরোধে’ এক সভার আয়োজন করেন। সভাপতি বিহীন সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় সাংসদ নিজেই এবং সভা পরিচালনায়ও ছিলেন সাংসদ নিজে।
এসময় বক্তব্য রাখেন সাংবাদিক এবিএম আতিকুর রহমান বাশার, বড়শালঘর ইউপি চেয়ারম্যান জহিরুল ইসলাম ভূঞা, গুনাইঘর (দঃ) ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল হাকিম, কুমিল্লা (উঃ) জেলা মহিলা আ’লীগ সভাপতি শিরিন সুলতানা, ছাত্রলীগ কুমিল্লা (উঃ) জেলা সাবেক সভাপতি ও তরুন আওয়ামীলী নেতা মোস্তফা কামাল চৌধূরী, আ’লীগ নেতা ওবায়দুল হাসান রাসেল, ইউপির সদস্য মোহাম্মদ আলীকে বক্তব্য রাখার সুযোগ দিলেও দুপুর ১২টায় গুনাইঘর উত্তর ইউনিয়নে একটি ব্রীজ উদ্বোধন করার কারনে সাংসদ নিজেই সভার সমাপ্তি ঘোষনা করেন। ওই সভায় উপস্থিত আ’লীগ কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সাবেক উপ-মন্ত্রী এএফএম ফখরুল ইসলাম মূন্সী ও অপর এক আ’লীগ নেতা রোশন আলী মাষ্টারকে বক্তব্য রাখার সুযোগ না দেয়ায় ফখরুল মূন্সী প্রতিবাদ করেন সাথে আ’লীগ গুনাইঘর দক্ষিন ইউনিয়নের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ধনুমিয়া প্রতিবাদ করলে সাংসদের সমর্থকরা তার উপর হামলা চালায় এসময় ফখরুল ইসলাম মূন্সীর অপর এক সমর্থক আ’লীগ দেবিদ্বার উপজেলা শাখার যুগ্ম সম্পাদক মোঃ ছিদ্দিকুর রহমান ভূঞাকে সাংসদের সমর্থক আ’লীগ উপজেলা সাংগঠনিক সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান লাঞ্ছিত করে সভাস্থল থেকে বের করে দেন। সভাস্থলের চেয়ার নিয়ে উভয় পক্ষের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ায় দৈনিক যুগান্তর ও দৈনিক রুপসী বাংলা পত্রিকার প্রতিনিধি মোঃ আমির হোসেন আমু সহ স্থানীয় প্রতিনিধি অন্ততঃ ১৫জন আহত হয়েছেন।
এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ হারুন-অর-রশীদ বলেন, স্থানীয় সাংসদের উদ্যোগে এ সভার আয়োজন করেছিলেন। আমি প্রোটকল অফিসার হিসেবে উপস্থিত থেকে দায়িত্ব পালন করেছি মাত্র।
আ’লীগ গুনাইঘর দক্ষিন ইউনিয়নের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ধনুমিয়া বলেন, আলোচনা সভার শুরুতে জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনের অনুরোধ জানালেও সাংসদ তার নিজ পছন্দের গান পরিবেশনার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু করেন। জাতির একটি ক্রান্তিকাল উত্তোরনে সহযোগীতা করতে এসে একটি অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে যেয়ে আমি একজন মুক্তি যোদ্ধা হয়েও বর্তমান আ’লীগ ঘরোয়ানা একসময়ের রাজাকার ও রাজাকারের সন্তানদের হাতে হামলা ও নির্যাতনের শিকার হলাম।
আ’লীগ কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সাবেক উপ-মন্ত্রী এএফএম ফখরুল ইসলাম মূন্সী বলেন, সাংসদ তার ব্যক্তিগত সমর্থকদের বক্তব্যের সুযোগ দিলেও প্রকৃত আ’লীগ নেতা কর্মীদের বক্তব্য রাখার কোন সুযোগ দেননি। তিনি স্থানীয় আ’লীগকে কোন্ঠাসা করে রেখেছেন।
সংসদ সদস্য ও সরকারী প্রতিষ্ঠান সম্পর্কীত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবিএম গোলাম মোস্তফা বলেন, ‘জামাত-শিবির ও বিএনপির ধ্বংসাত্মক সন্ত্রসী কর্মকান্ড প্রতিরোধে’ আয়োজিত সভায় সকল পেশার লোকদের ও আ’লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা কর্মীদের বক্তব্যের সুযোগ দিয়েছি। মানবতা বিরোধী যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসি কার্যকর এবং গোটা দেশ জুড়ে সাম্প্রদায়িক সম্প্রিতি বিনষ্টকারী ইসলাম বিরোধী সংগঠন জামায়েত-শিবিরে রাজনীতি নিষিদ্ধের দাবী জানিয়ে সন্ত্রাস ও জঙ্গী প্রতিরোধে ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড কমিটি গঠনের রূপ রেখাও উপস্থাপন করেছি। তাছাড়া অপর এক কর্মসূচীতে অংশগ্রহনের জন্য সভার সমাপ্তি ঘোষনা করি। উপস্থিত আ’লীগ নেতা এএফএম ফখরুল ইসলাম মূন্সীকে আলোচনার সুযোগ না দেয়ার বিষয়টি ভুল ছিল। দুপুরে আমরা একসাথে ভাত খেয়েছি। আমাদের মধ্যে এখন আর কোন দ্বন্দ্ব নেই। দু’নেতার দ্বন্দ্বে সমর্থকদের মধ্যে হিংসাত্মক কর্মকান্ডের সূত্রপাত হওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, উপরে ঠিক হলে নিচের নেতা-কর্মীরাও ঠিক হয়ে যাবে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply