কানাডার আলবার্টায় মাতৃভাষা দিবসে বাংলাদেশ হেরিটেজ সোসাইটির অনুষ্ঠান

bhesa_02কানাডা প্রতিনিধিঃ—
কানাডার এডমোনটন সিটিতে গত ২৩শে ফেব্রুয়ারী বনিডন কমিউনিটি সেন্টারে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ হেরিটেজ এন্ড ইথনিক সোসাইটি অব আলবার্টা এক অনবদ্য আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।
অনুষ্ঠানে অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন আলবার্টা প্রাদেশিক পরিষদের এমএলএ জনাব সোহেল কাদরী ও জনাব নরেশ বার্দাজ।

প্রধান বক্তা ছিলেন বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা ও প্রবাসী সাংবাদিক আলবার্টা ও সাস্কাচুয়ান প্রদেশের কমিশনার ফর ওথস্ দেলোয়ার জাহিদ। তিনি বিশেষ অতিথিদ্বয়ের দৃষ্টি আকর্ষণ করে আলবার্টা প্রাদেশিক বিধানসভায় বাংলাকে জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষার স্বীকৃতি আদায়ে প্রস্তাব গ্রহন সহ আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসকে এ প্রদেশে সরকারীভাবে আত্মীকরণের আহ্বান জানান।
অতিথি জনাব সোহেল কাদরী এমএলএ বাংলাকে একটি সমৃদ্ধ ভাষা হিসেবে আখ্যা দিয়ে প্রস্তাবটি সানন্দে গ্রহন করেন, ভাষাগত বৈচিত্র্য ও বহুভাষিক শিক্ষাকে উৎসাহিত করতে তার সরকারের সর্বাত্মক সহযোগিতার কথা জানান।
নরেশ বার্দাজ এমএলএ বাংলাদেশী কমিউনিটির ভূয়সী প্রশংসা করে তাদের সাংস্কৃতিক বৈচিত্র এবং বহুভাষার উন্নয়নে যেকোন গৃহীত সাংগঠনিক পদক্ষেপে সহযোগিতার আশ্বাস দেন।
প্রধান বক্তা জাহিদ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ভাষা বিকাশের কিছু তথ্য উপাত্ত ও দৃষ্টান্ত তুলে ধরে তরুন প্রজন্মকে একটি সাংস্কৃতিক বিপ্লবের ডাক দেন এবং বাংলায় শুভেচ্ছা বিনিময় দিয়ে শুরু করে জীবনের সর্বক্ষেত্রে এ ভাষা চালু ও শক্তিশালী সংস্কৃতির মোকাবেলায় আরো যোগ্যতা অর্জনের আহবান জানান। প্রবাসে বাংলাদেশী সংগঠনগুলোর মধ্যে তিনি সুদৃঢ় ঐক্যের ও আহবান জানান।

অনুষ্ঠানে বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ডঃ নূরুল ইসলাম, ডঃ হাফিজুর রহমান ও সাবেক সভাপতি সহিদ হাসান সহ উল্লেখযোগ্য সংখ্যক পরিবার ও শিশু কিশোরবৃন্দ। সংগঠনের প্রেসিডেন্ট তাজুল আলী সকলকে শুভেচ্ছা জানান। শহীদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে দোয়া পাঠ করেন জনাব সিদ্দিক হুসাইন

মোরশেদা বেগমের সহযোগিতায় মাযহারুল ইসলাম ও অনুশা মুহাম্মদের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে দেশাত্মবোধক সঙ্গীত পরিবেশন করেন সংগঠনের সদস্য, সদস্যা এবং অতিথি শিল্পীবৃন্দ।

Check Also

আজ শোকাবহ ১৫ আগস্ট : বাঙালির অশ্রু ঝরার দিন

  কুমিল্লাওয়েব ডেস্ক:– আজ শোকাবহ ১৫ আগস্ট। জাতীয় শোক দিবস। বাঙালির অশ্রু ঝরার দিন। ১৯৭৫ ...

Leave a Reply