মতলবে ফসলী মাঠে অরক্ষিত শহীদ মিনার: অবাধে বিচরন করে গরু-ছাগল

dollar matlab uttor pic 16.02.13শামসুজ্জামান ডলার, মতলব উত্তর (চাঁদপুর) থেকেঃ—

চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার ফতেপুরে ফসলী মাঠে অরক্ষিত অবস্থায় থাকা শহীদ মিনারে অবাধে বিচরন করে গরু-ছাগল। শহীদমিনারটি রক্ষনাবেক্ষনে নেই কোন উদ্যোগ। ফতেপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের এই শহীদ মিনারটি স্কুল ভবন থেকে দুরে নিয়মিত আবাদ হয় এমন ফসলী মাঠে নির্মিত হয়েছে। ১৯৫২’র ভাষা শহীদদের স্বরনে ২০০৭ সালে অর্ধলক্ষ টাকায় নির্মিত হয় এই শহীদ মিনারটি। নিয়মিত আবাদ হওয়া ও গরু-ছাগল বিচরন করা এই কৃষি জমিতে ভাষা শহীদদের স্বরনে নির্মিত শহীদ মিনারটি যে কতটা অরক্ষিত তা এই শহীদ মিনার দেখলেই খুব সহজে অনুমান করা যায়। শহীদ মিনারটির চারপাশে নিয়মিত ফসল হচ্ছে। গরু-ছাগল বিচরন ছাড়াও অনেক সময় ফসল কেটে শহীদ মিনারে স্তুপ করেও রাখা হয়ে থাকে। আর এই শহীদ মিনারটি কি ভাষা শহীদদের সম্মানে নির্মিত না কি জমিটা স্কুলের দখলে রাখার জন্যই নির্মিত সেটাই এখন জনমনে প্রশ্ন?

এ ব্যাপারে স্থানীয় কয়েকজনের সাথে কথা বলতেগেলে তারা জানায়, শহীদ মিনারটি স্কুল থেকে দুরে এবং ফসলী মাঠের মধ্যে নির্মান করায় প্রায় সময়ই ঐ শহীদ মিনারে গরু-ছাগল বিচরন করতে দেখি। বিষয়টি আমাদের কাছে খারাপ লাগে এবং অনেক সময় আমরা ওখানে গিয়ে গরু-ছাগল তাড়াই।

এ ব্যাপারে স্কুলের প্রধান শিক্ষক আঃ সোবান বলেন, ঐ জমি স্কুলের এবং স্কুল কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত মতেই ওখানে (ফসলী মাঠে) শহীদ মিনার নির্মিত হয়েছে।
আর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার কাজী ওয়াহিদ বলেন, এ ব্যাপারে স্কুল কর্তৃপক্ষের কাছে জানতে চাইলে তারা জানায় ঐ জমিগুলো আমাদেরতো তাই। আর সুযোগ-সুবিধা মতো মাটি ভরাট করে ঐ জমিকে আমরা স্কুল মাট সমান করে নিবো।

উল্লেখ্য;২০০৭সালে শহীদ মিনারটি স্কুল থেকে দুরে ফসলী মাঠে নির্মান করলেও অদ্যবধি এর সুরক্ষার জন্য কোন ব্যবস্থাই নেয়া হয়নি। ফলে ৫২’র ভাষা শহীদদের যেনো বলে কহেই অবমানা করা হচ্ছে। কিন্তু এর নেই কোনো প্রতিকার।

Check Also

চাঁদপুরে আ.লীগের ৪ ও বিএনপির ২ প্রার্থীর জয়

চাঁদপুর প্রতিনিধি :– চাঁদপুরের তিন উপজেলার ৬ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের চার ও বিএনপির দুই প্রার্থী ...

Leave a Reply