সরাইলে তিন বন্দুকসহ ডাকাত সর্দার গ্রেফতার : এলাকায় মিষ্টি বিতরণ

sarail pic 13-02-13== (1)ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধিঃ—
সরাইলের মেঘনা পাড়ের রাজাপুর এলাকা থেকে বুধবার ভোরে ডাকাত সর্দার কাউছার মিয়াকে (৩৬) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। কাউছার সরাইল উপজেলার অরুয়াইল ইউনিয়নের রাজাপুর গ্রামের মৃত ইন্তু মিয়ার ছেলে। এসময় তার দেয়া তথ্যে রাজাপুর গ্রামের চিহ্নিত ডাকাত কাশেম মোল্লার বাড়ি সংলগ্ন এলাকা থেকে তিনটি বিদেশী বন্দুক উদ্ধার করে পুলিশ। এদিকে ডাকাত সর্দার কাউছার গ্রেফতারের খবরে এলাকায় মিষ্টি বিতরণ হয়েছে বলে স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা গেছে।
পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সরাইল থানার উপ-পরিদর্শক (এস.আই) আবুবকর ছিদ্দিক এবং মোঃ সিরাজুল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশ অভিযান চালিয়ে তিনটি বন্দুকসহ ডাকাত কাউছারকে গ্রেফতার করে। স্থানীয়রা জানান, ডাকাত সর্দার কাউছার দীর্ঘ দিন যাবত তার দলবল নিয়ে মেঘনা নদীতে নানা পণ্য বোঝাই ও যাত্রীবাহী নৌযানসহ বিভিন্ন এলাকার ঘর-বাড়িতে ডাকাতি করে আসছিল। তার অত্যাচারে এলাকার নৌযান শ্রমিকসহ ব্যবসায়ীরা অতিষ্ঠ হয়ে উঠে। কিছুদিন আগে রাজাপুর এলাকায় মেঘনার পাড়ে গুলিবিদ্ধ দুই ডাকাতের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। তার রয়েছে বিশাল সংঘবদ্ধ ডাকাত দল। ডাকাত সর্দার কাউছার গ্রেফতারে তার সহযোগীরা এখন গাঢাকা দিয়েছে। তার গ্রেফতারের খবরে এলাকার সাধারণ মানুষের মাঝে স্বস্তির ফিরে এসেছে। অনেকে আনন্দে এলাকায় মিষ্টি বিতরণ করেছে। অরুয়াইল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ মিজানুর রহমান জানান, মেঘনা নদীর তীরবর্তী রাজাপুর ও ধামাউড়া এ দু’টি এলাকা দীর্ঘ দিন চিহ্নিত ডাকাতদলের দখলে ছিল। সম্প্রতি পুলিশ নানা কৌশল খাটিয়ে ইউনিয়নের এ দু’টি এলাকা থেকে বেশকয়েকজন চিহ্নিত ডাকাতকে গ্রেফতার করেছে। এতে এলাকার মানুষদের মাঝে অনেকটা স্বস্তি ফিরেছে। এদিকে সরাইল থানায় পুলিশের হাতে আটক ডাকাত সর্দার কাউছার সাংবাদিকদের জানায়, সে প্রায় ১০ বছর যাবত ডাকাতির সাথে জড়িত। উদ্ধারকৃত অস্ত্রগুলো দিয়ে তারা ভয়ভীতি দেখিয়ে নদীতে নৌযানসহ বিভিন্ন এলাকায় ডাকাতি করতো। তবে এ অস্ত্র দিয়ে কোন মানুষকে খুন করা হয়নি বলে সে দাবি করেছে। এ ব্যাপারে সহকারী পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোঃ শাহ আলম বকাউল জানিয়েছেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পুলিশ সুপার মোঃ মনিরুজ্জামানের নির্দেশ ও পরামর্শ মতে অভিযান পরিচালনা করে আমরা ইতিমধ্যে এলাকার ডাকাত সিন্ডিকেট ভেঙে দিয়েছি। বেশকিছু ডাকাতকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠিয়েছি। বাকিদের গ্রেফতারে পুলিশ তৎপর রয়েছে। গ্রেফতারকৃত কাউছার ডাকাত সিন্ডিকেটের সক্রিয় সদস্য। তার দেয়া তথ্যমতে তিনটি অত্যাধুনিক বন্দুক উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় মামলা দায়ের হয়েছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply