যারা প্রতিহিংসা পরায়ন তারা কোন ধর্মের বিশ্বাসী হতে পারে না —— আওয়ামীলীগ নেতা ইউসুফ আবদুল্লাহ হারুন

কুমিল্লা প্রতিনিধিঃ—
আওয়ামীলীগ কেন্দ্রিয় কমিটির সাবেক অর্থ ও পরিকল্পনা বিষয়ক সম্পাদক ও এফবিসিসিআইয়ের সাবেক দু’বারের সভাপতি ইউসুফ আবদুল্লাহ হারুন বলেছেন,২০০১ সালে চারদলীয় জোট সরকারের আমলে কোন ধর্মের মানুষ এ দেশে নিরাপদ ছিল না। বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর সকল ধর্ম ও বর্নের মানুষ নিরাপদে তাঁদের ধর্মীয় কার্যক্রম, রীতিনীতি ও আচার অনুষ্ঠান সূষ্ঠভাবে পালন করতে পারে সে জন্য সব ধরনের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করেছে।বর্তমান সরকার অসাম্প্রদায়ীক রাজনীতিতে পূরোপূরী বিশ্বাসী বিধায় সকল ধর্মের সর্বস্তরের জনসাধারন আজ শান্তিতে বসবাস করছে। তিনি ধর্ম-বর্ন নির্বিশেষে সকলকে ধর্মীয় চেতনা বুকে ধারন করে সমৃদ্ধশালী দেশ গঠনে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। ইউসুফ আবদুল্লাহ হারুন বুধবার রাত সাড়ে ১১টায় মুরাদনগরের কাজিয়াতল খন্দকার দারুল কুরআন অছি উদ্দিন হাফেজিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানার সারা রাত্র ব্যাপী ৩৯তম ওয়াজ ও দোয়ার মাহফিলে প্রধান অতিথির ভাষনে এসব কথা বলেন। ইউসুফ আবদুল্লাহ হারুন আরো বলেছেন,ধর্মের প্রতি কোন বৈষম্য না রেখে সকলে শান্তি এবং সৌহাদ্যপূর্ন পরিবেশে বসবাস করাই হচ্ছে মূল ধর্ম। যারা প্রতিহিংসা পরায়ন তারা কোন ধর্মের বিশ্বাসী হতে পারে না। শান্তি এবং সম্প্রীতির নামই হচ্ছে প্রকৃত ধর্ম। ‘ধর্ম যার যার এবং উৎসব সবার’-প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এই বক্তব্যকে সামনে রেখে সকলে শান্তি সম্প্রীতির মধ্যে বসবাস করার আহবান জানিয়ে তিনি বলেছেন,সকলের মধ্যে ধর্মের সহিষতা বৃদ্ধি করে গনতন্ত্রের বিকাশ সাধন করতে পারে। মুরাদনগর এলাকার সর্বত্র উন্নয়নের পাশাপাশি সকল সম্প্রদায়ের লোকজন যাতে তাঁদের নিজ নিজ ধর্ম পালন করতে পারে সেজন্য বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন করা হচ্ছে। কিন্তু একটি মহল এসব উন্নয়ন কর্মকান্ড দেখে ঈর্ষান্বিত হয়ে বিভিন্ন ধরনের অপপ্রচার চালাচ্ছে। তিনি এসব অপপ্রচারে কান না দিয়ে তাদের কাছ থেকে সজাগ থাকার আহ্বান জানান। এসময় তিনি মাদ্রাসার উন্য়নের জন্য তাঁর ব্যাক্তিগত তহবিল থেকে ১ লাখ ২৫ হাজার টাকার নগদ অনুদান তুলে দেন।
মৌলভী মো.ফরিদ উদ্দিন খন্দকারের সভাপতিত্বে ও মাদ্রাসার সভাপতি এবং দারোরা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি আবুল হুসেন মাষ্টারের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত মাহফিলে বক্তব্য রাখেন ঢাকা পাওয়ার ডিষ্ট্রিবিউশনের কারিগরি ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী মো.রমিজ উদ্দিন সরকার,আওয়ামীলীগ নেতা শিল্পপতি রফিকুল ইসলাম সরকার ও মো.মোশাররফ হোসেন প্রমূখ। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দারোরা ইউনিয়ন আওয়ামীরীগের সাবেক সভাপতি ডা.আবদুল মান্নান, সাধারন সম্পাদক মোঃ জহিরুল হক, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক মো.ইউনুস মিয়া মুন্সী,যুদ্ধকালীন কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা রোশন আলী,বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলার স্বাক্ষী নায়েক অব.আবদুল মতিন চৌধুরী,তারু মিয়া,আবদুর রাজ্জাক,দারোরা ইউপির চেয়ারম্যান আবদুল কাদের মোক্তার,সাবেক চেয়ারম্যান কাজী আবদুল লতিফ,ইউপি সদস্য জহিরুল ইসলাম,নায়েব আলী,যুবলীগ নেতা আবদুল কাদের,আমান উল্লাহ ভূইয়া ও স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা জাকির হোসেন প্রমূখ।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply