সরাইলে ১৪ দিন ধরে বেড়ায় অবরুদ্ধ ভাইয়ের পরিবার

সরাইল (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধিঃ—-
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে টিনের বেড়া দিয়ে ছোট ভাইয়ের পরিবারকে ১৪ দিন ধরে অবরুদ্ধ করে রেখেছেন সহোদর বড় ভাই। বিষয়টির মিমাংসায় স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানসহ অনেকে উদ্যোগ নিলেও কোনো কাজে আসেনি। এ ঘটনায় ভূক্তভোগী ছোট ভাই থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।
এলাকাবাসী ও বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার নোয়াগাঁও ইউনিয়নের প্রত্যন্ত অঞ্চল কুচনী গ্রামের মৃত হাজী আশরাফ আলীর ছেলে গ্রাম্য মাতব্বর আবুল কাশেম। তিনি গত ১১ জানুয়ারী বিকেলে ছোট ভাই কৃষক কালাম মিয়ার বসত বাড়ির সামনের দিকে টিনের বেড়া দিয়ে পরিবারকে অবরুদ্ধ করেন। পরিবারটিকে অবরুদ্ধ অবস্থা থেকে মুক্ত করতে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা নানা চেষ্টা চালায়। কিন্তু প্রভাবশালী আবুল কাশেম কারোর কথাই শুনছেন না।
কৃষক কালাম মিয়া অভিযোগ করে বলেন, আবুল কাশেম আমাদের পিতার বিরুদ্ধেও মামলা দায়ের করেছিল। সেই শোকে আমাদের পিতা অকালে মৃত্যু বরণ করেছেন। টাকা ছাড়া জমিতে পানি সেচ না দেওয়ায় কয়েকদিন আগে আবুল কাশেম আমার ফসলি মাঠের সেচ পাম্প জোরপূর্বক দখল করেছিল। পরে আজীবন বিনা টাকায় তার জমিগুলোতে পানি সেচ দিতে রাজি হলে সেচ পাম্প দখল মুক্ত হয়। এখন আমার বসত বাড়ি দখলের পায়তারা করছে। আমার পরিবারের লোকদের অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে। কালাম মিয়া আরো বলেন, আমাদের পিতা মারা যাওয়ার পর চার ভাইয়ের মধ্যে জায়গা-জমি বন্টনের পর আমরা যার যার মত বসবাস করে আসছি। আমি সাধারণ কৃষক। গ্রামের মাতব্বররা তার কথাই বলে।
আবুল কাশেমের বড় ভাই মাওঃ আবু তাহের, কুচনী গ্রামের বাসিন্দা মোঃ নুর মিয়া, শাহজাহান, ফজল হকসহ অনেকে জানান, শুধু ভাইদের জায়গা-জমি দখল নয়, আবুল কাশেম নিরহ অনেক মানুষকে হয়রানি করে আসছে। তার শাস্তি হওয়া উচিত। তবে আবুল কাশেম নিজেকে নির্দোষ দাবি করে বলেন, আমাদের পিতা পাগল ছিলেন। কোন কিছু বুঝতেন না। জায়গা-জমির আগের বন্টন আমি মানি না।
নোয়াগাঁও ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আবু মুছা উছমানী মাসুক বলেন, আমি বিষয়টি মিমাংসার উদ্যোগ নিয়েছিলাম। কিন্ত আবুল কাশেম সাফ জানিয়ে দিয়েছেন এতে রাজি নন। সরাইল থানার এ.এস.আই ইসমাইল জানান, কালাম মিয়ার অভিযোগ আমরা পেয়েছি। বিষয়টির তদন্তে যাব।

Check Also

কুমিল্লায় তিন গৃহহীন নতুন ঘর পেল

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ– কুমিল্লা সদর উপজেলায় গ্রামীণ উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে ৪নং আমড়াতলী ইউনিয়নের গৃহহীন নুরজাহান বেগম, ...

Leave a Reply