চান্দিনায় বেড়ে চলছে ডাকাতি; আতঙ্কে রাত কাটাচ্ছে এলাকাবাসী

মাসুমুর রহমান মাসুদ, চান্দিনা (কুমিল্লা) প্রতিনিধি:—–

চান্দিনা উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় দিন দিন ডাকাতি বাড়ছে। প্রতি রাতেই উপজেলার কোন না কোন এলাকায় ডাকাতি হচ্ছে। এদিকে ডাকাতির পর থানা পুলিশকে জানানো হলেও আশানুরূপ পুলিশি তৎপরতা নেই। গত বৃহস্পতিবার (১৭ জানুয়ারী) গভীর রাতে উপজেলার মাইজখার ইউনিয়নের কাশারীখোলা গ্রামের প্রবাসী মো. নূরুল ইসলাম এর ঘরে ডাকাতি হয়। এর আগে বুধবার (১৬ জানুয়ারী) রাতে চান্দিনা পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের কচুয়ারপাড় গ্রামে সাবেক কমিশনার মিনোয়ারা বেগম ও পার্শ্ববর্তী ব্যবসায়ী মো. গোলাম মোস্তফার বাড়িতে ডাকাতি হয়। ডাকাতদল এসময় নগদ টাকা, মোবাইল, স্বর্ণালঙ্কার ছিনিয়ে নেয়। অপরদিকে ডাকাতি বন্ধ করতে পর্যাপ্ত পুলিশি পদক্ষেপ না থাকায় এলাকাবাসী আতঙ্কে রাত কাটাচ্ছে।
গত ১২ জানুয়ারী রাত সাড়ে ১০টায় চান্দিনা-লতিফপুর সড়কে ৩ মোটরসাইকেল আরোহীকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ডাকাতদল নগদ টাকা, মোবাইল ছিনিয়ে নেয়। পরে ১৫ জানুয়ারী এলাকাবাসী বিশ্বাস গ্রামের আলী আহাম্মদ এর ছেলে আবদুর রহিম (৩৩) নামক এক ডাকাতকে আটক করে গণপিটুনী দিলে সে ডাকাতির ঘটনা স্বীকার করে। ওই ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থ চান্দিয়ারা গ্রামের চান্দিনা পৌর কাউন্সিলর আবদুর রব এর ছেলে মো. তোফায়েল আহমেদ তুহিন বাদী হয়ে চান্দিনা থানায় একটি ডাকাতি মামলা দায়ের করে। মামলায় আবদুর রহিম (৩৩) সহ ৪ জন কে আসামী করা হয়।
এ ব্যাপারে চান্দিনা থানার অফিসার ইন চার্জ মো. গোলাম মোর্শেদ জানান, ডাকাতি বন্ধ করতে আমরা জোর তৎপরতা চালাচ্ছি। ইতোমধ্যে ইউনিয়ন চেয়ারম্যানদের সাথে কথা হয়েছে। এলাকা ভিত্তিক রণপাহারার ব্যবস্থা করা হবে। এছাড়া পুলিশি টহল বাড়ানো হয়েছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply