ব্রা‏হ্মণপাড়ায় পাওনা টাকা আত্মসাতের উদ্দেশ্যে হত্যার অভিযোগে ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা

ব্রা‏হ্মণপাড়া প্রতিনিধিঃ—-
ট্রেনে কাটা পড়ে নয়, স্বশুর বাড়ীতে পাওনা টাকা আত্মসাৎ করার উদ্দেশ্যে তার স্ত্রীকে পরিকল্পিত ভাবে খুন করে রেল লাইনে ফেলে রাখা হয়েছে মর্মে ৩ জানুয়ারী কুমিল্লা বিজ্ঞ: সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে মামলা করেছে ব্রা‏হ্মণপাড়া উপজেলার মাধবপুর ইউনিয়নের জামতলী গ্রামের প্রবাসী তফাজ্জল হোসেন।
এজাহার সূত্রে জানা যায়, ২হাজার সনে কসবা উপজেলার কাইমপুর গ্রামের আবুল হাসেমের কন্যা শিউলী আক্তারের সাথে তফাজ্জলের বিয়ে হয়। বিয়ের পর তার ২ সন্তান জন্ম গ্রহণ করে। এসময়তফাজ্জল বিদেশে চাকুরী করে নয়নপুর বাজারস্থ্য তার স্বাশুরীর একাউন্টে ১০/১২ লক্ষ্য টাকা পাঠায়। এক পর্যায় তার প্রথম স্ত্রী শিউলী আক্তার মৃত্যুবরণ করে। পরবর্তীতে তার স্বশুর বাড়ীর লোকজনের অনুরোধে শিউলীর ছোট বোন রোজিনাকে বিয়ে করে। রোজিনা ১ সন্তানের জননী হয়। গত ২৪ ডিসেম্বর তার শশুর বাড়ীর লোকজন তফাজ্জলের বাড়ীতে বেড়াতে এসে তার স্ত্রী রোজিনাকে তাদের সাথে বাবার বাড়ীতে বেড়াতে নিয়ে যায়। পরদিন ২৫ ডিসেম্বর সকালে শশুর বাড়ীর লোকজন তাকে জানায় যে, তার স্ত্রী রোজিনা মন্দভাগ রেল ষ্টেশনে ট্রেনের নীচে কাটা পড়ে আত্মহত্যা করেছে। খবর পেয়ে তফাজ্জল ঘটনাস্থলে গিয়ে তার স্ত্রীর লাশ দেখতে পায়। তফাজ্জলের অভিযোগ, তার শশুর বাড়ীর লোকজন তার ওই পাওনা টাকা তাকে ফেরন না দিয়ে আত্মসাৎ করা উদ্দেশ্যে তার স্ত্রী রোজিনাকে প্ররোচনা দিয়ে পরিকল্পিত ভাবে খুন করেছে। এই অভিযোগে সে গত ৩ জানুয়ারী কুমিল্লা বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করে যার নং ৫/১৩। মামলার এজাহার ভূক্তরা হলেন, ব্রা‏হ্মণবাড়ীয়া জেলার কসবা উপজেলাধীন কাইমপুর গ্রামের আবুল হাশেমের ছেলে ফরিদ মিয়া (৪২) তার ভাই মো: জুয়েল মিয়া (২৭), একই গ্রামের মৃত সাজন আলীর ছেলে আবুল হাশেম (৬০) তার ছেলে বাবুল মিয়া (২০) আবুল হাশেমের স্ত্রী হালিমা বেগম (৫২) একই গ্রামের চান মিয়া মেম্বারের ছেলে ফারুক (৩৫)। কুমিল্লা বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট ২নং আদালতে মামলাটি আমলে নিয়ে অফিসার ইনচার্জ রেলওয়ে আখাউড়াকে এফ আই আর ভূক্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশ দেন ।

Check Also

কুমিল্লায় তিন গৃহহীন নতুন ঘর পেল

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ– কুমিল্লা সদর উপজেলায় গ্রামীণ উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে ৪নং আমড়াতলী ইউনিয়নের গৃহহীন নুরজাহান বেগম, ...

Leave a Reply