অগ্নিদগ্ধ অর্চনা রানী শীল মারাগেছে

কুমিল্লা / ২৩ ডিসেম্বর (কুমিল্লাওয়েব ডটকম)——
শাশুরী ননদ কর্তৃক অগ্নিদগ্ধ অর্চনা রানী শীল ৮ দিন মৃত্যুর সাথে লড়াই করে পর ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা গেছেন।কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার বেলঘর গ্রামের গ্রাম্য চিকিসক বাবুলের স্ত্রী অর্চনা রানী শীলকে যৌতুকের দাবীতে মারধর পরে সাবামীর পরোচনায় গায়ে কেরসিন ঢেলে অগ্নি সংযোগ করে শাশুরী ননদ। অগ্নিদগ্ধ আহত অর্চনা রানীকে প্রথমে কুমিল্লার লাকসাম শান্তা হাসপাতালে নেয়ার পর ডাক্তার রোগীকে ঢাকা মেডিকেলে পাঠিয়ে দেয়। ঢাকা মেডিকেলে ৮ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর ২১ ডিসেম্বর শুক্রবার দুপুরে মারা যায় সে।অগ্নিদগ্ধ আহত অর্চনা রানী শীল হাসপাতালের বেডে অগ্নি সংযোগকারীদের নির্যাতনের বর্ণনা দিয়েগেছে। পুলিশ তা রেকর্ড করেছে। এব্যাপারে ৬ জনকে আসামী করে একটি নারী নির্যাতন ও হত্যা মামলা দায়ের করেছে অর্চনা বাবা সদর উপজেলার কালিয়াজুরি মহল্লার নিরঞ্জন চন্দ্র শীল। গত শনিবার বিকেলে পোস্টমার্টম শেষে লাশ কুমিল্লায় ঠাকুরপাড়াস্থ মহাশ্বশানে শেষকৃত করা হয়। অর্চনা ৪ বছরের বিবাহিত জীবনে ১পুত্র ১ কণ্যা শিশু রেখে যায়। এঘটনায় অর্চনার স্বামী বাবুল চন্দ্র মজুমদার গ্রেফতার হলেও শ্বাশুরী মঞ্জুরানী ,ননদ মনিরানীসহ অন্যান্যরা পলাতক রয়েছে। এই হত্যাকান্ডের সুষ্ঠ বিচার চেয়েছেন শীল সমাজের নেতৃবৃন্দ।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply