মেঘনায় মুক্তিপনের দাবীকৃত টাকা না পেয়ে সারোয়ারকে হত্যা

মেঘনা / ২৩ ডিসেম্বর (কুমিল্লাওয়েব ডটকম)——
মেঘনা উপজেলার দড়িলুটেরচর গ্রামের মোঃ সানাউল্লাহর পুত্র মোঃ সারোয়ারকে (১৫) বিশ লাখ টাকা মুক্তিপনের দাবীতে অপহরন করে। অপহরনের পর টাকা দিতে দেরী হওয়ায় অপহরনকারীরা সারোয়ারকে গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় নিয়ে গিয়ে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা করে। ঢাকা কোতোয়ালী থানার এস আই মোঃ গোলামরসুল অপহরনকারীর নেতা ডিটলসহ রুবেল, সোহগ, আবু সিদ্দিক, হাশেম, মতীনকে গ্রেফতার করে। ঘটনার বিবরনে জানা যায, গত ১৬ নভেম্বর ঢাকার তাতিবাজার এলাকা সরোয়ারের কর্মস্থল হইতে নিখোজ হয়। অপহরকারীরা সারোয়ারের মোবাইল নাম্বার ০১৮২৫২৩৬৮১৩ হইতে মুক্তিপনের বিশ হাজার টাকা দাবি করতে থাকে সরোয়ারের পিতা মাতার কাছে। মুক্তিপনের টাকা কোথায় পৌছাবে আলোচনা করতে দেরী হয়ে যায়। অপহরনকারীরা মেঘনা উপজেলা দড়িলুটেরচর গ্রামের হওয়ায় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ ছানাউল্লাহ গ্রামবাসীকে নিয়ে আসামী লিটনকে আটক করে ঢাকা কোতয়ালী থানায় নিয়ে যায়। লিটন পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে সারোয়ার অপহরন ও হত্যার ঘটনা স্বীকার করে। মুক্তিপনের টাকা পৌছতে দেরী হওয়ায় তাহারা গাইবান্দা জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় মতীনের বাড়ি কাছে বালুচরে সারোয়ারকে হত্যা করে। বালুচরে লাশ মাটি চাপা দিয়া রাখে। কুকুর লাশটি টেনে মাটির উপরে তুলে ফেললে বেওয়ারীয় লাশ হিসেবে আঞ্জুমন মফিজুল ইসলাম লাশ দাফল করে। আদালতের অনুমতি পেলে পুলিশ লাশ উত্তোলনের জন্য রোববার গাইবান্দা গেছেন।

মোঃ ইসমাইল হোসেন মানিক
মেঘনা প্রতিনিধি

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply