জি টু জি মালয়েশিয়া প্রবাসী বাংঙ্গালিদের গুজবে হানাহানি

মালয়েশিয়া / ৭ ডিসেম্বর (কুমিল্লাওয়েব ডটকম)———
প্রবাসী বাঙালিদের মুখে গুজবের হানাহানি ও ছড়াছড়ি। গুজব নিয়ে মাতামাতি এটা যেন প্রবাসীদের অব্যাসে পরিণত হয়েছে গত ২৬ই নভেম্ভর মালয়েশিয়া ও বাংলাদেশের মধ্যে সমযোথা স্মারক চুক্তি হয়েছে সরকারী ভাবে শ্রমিক আসবে মালয়েশিয়া যা কিনা প্রবাসীরা বিশ্বাস করিতে পারেনা কারন দালালরা এমন ভাবেই শ্রমিকদের ধারনা দিয়েছেন যেন দালার ছাড়া কোন ক্রমেই মালয়েশিয়া শ্রমিক আসতে পারবেনা । বাংলাদেশের কোনো সঠিক তথ্য তাদের কাছে পৌছে না। বাংলাদেশে কি ঘটছে তার সঠিক তথ্য না জেনেই প্রবাসী বাঙালিরা রাতের ঘুম নষ্ট করেন। অনেক সময় যা ঘটেনি তাও প্রবাসীদের কানে আসে তার একটাই কারণ আমরা প্রবাসী বেশীর ভাগই অল্পবিদ্যায় । কিছু কিছু দালাল পৃক্যিত মানুষ এই সব খবরের জন্ম দেয়। দেশে বড় কোনো ঘটনা ঘটলেই পরিচিত অনেকে ফোন করে জানতে চান ভাই কী হয়েছে ঘটনা বলেন। তাদের কাছে যখন জানতে চাই আপনি কিভাবে জানলেন কিছু হয়েছে? তখন তাদের কথায় বুঝতে পারি কারো কাছে শুনেছে কিন্তু মূল ঘটনা পুরো পুরি শুনেনি আবার যা শুনেছে ভুল শুনেছে। কেউ কেউ আছেন যারা নিজেকে অতি চালাক মনে করেন তারা না জেনেই সবার মাঝে গুজব ছড়িয়ে দেন আর সবাই তাই বিশ্বাস করে মাতামাতি শুরু করে দেয়। দেশের কোনো ঘটনার মূল কাহিনী আজ পর্যন্ত কোনো মালয়েশিয়া প্রবাসী বাঙালির মুখে শুনতে পাইনি। প্রতিদিন বাংলাদেশের অনেক গুলো জাতীয় পত্রিকা অনলাইনে পড়ি। তাই একটু হলেও দেশের খোঁজ খবর রাখি।

অনেক সময় বাঙালিদের সাথে অনেক আড্ডায় নানা রকম প্রসঙ্গ নিয়ে কথা হয়। অনেকে দেশের নানা ঘটনা নিয়ে কথা বলেন। যদিও ঘটনার খবর আমি জানি তারপরেও প্রথম কিছুই বলি না চুপচাপ বসে নিজের পরিচয় না দিয়ে তাদের মুখে কাহিনী শুনি আর ভিতরে ভিতরে হাসি। হাসির কারণ হলো বেশির ভাগ সময় দেখা যায় যে সংবাদ গুলো শুনি তার শিরোনাম ঠিক আছে কিন্তু বিস্তারিত তে ভুল আছে। এভাবেই ভুল সংবাদ গুজব ছড়িয়ে পড়ে পুরো মালয়েশিয়াতে।

তথ্য জানার ব্যাপারে আমরা অনেক পিছিয়ে কারণ ডিজিটাল যুগের তথ্যপ্রযুক্তিতে বাংলাদেশের মানুষ অনেক পিছিয়ে এর প্রধান কারণ শিহ্মার হারে আমরা অনেক দুরে মালয়েশিয়া প্রবাসী বেশীর ভাগ আমরা অল্পশিহ্মায় শিহ্মীত আমরা থ্রিজির যুগে একনো প্রবেশ করিতে পারিনাই । বিশেষ করে গ্রামের মানুষ গুলো অনেক কিছুই জানে না। মালয়েশিয়াতে শ্রমিক পাঠানোর বিষয়ে বাংলাদেশ সরকারের সাথে মালয়েশিয়ার চুক্তি স্মারক স্বাক্ষর হয়েছে গত ২৬ নভেম্বর। সরকারী ভাবে লোক পাঠানো হবে। এ নিয়ে মালয়েশিয়া প্রবাসী ক`জনের সাথে কথা বলেছি। সবার মতামতে কিছুটা অবাক হয়েছি আমাদের মুর্খতার জন্য। সরকারী ভাবে লোক আসতে খরচ হবে ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকা এ কথাটা মালয়েশিয়া দালালরা এমন ভাবে প্রচার করেছে যে ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকা মালয়েশিয়া কখনো শ্রমিক আসতে পারবে না । একজন বলল দেইখেন ২ লক্ষ টাকার কমে কেউ আইতে পারব না। আরেক জন বলল আবেদন পত্র জমা দেয়ার জন্য,কাজের দক্ষতার প্রমানের জন্য ইন্টারভিউ দিতে তো কেউ মন্ত্রনালয়ের গেইটের ভিতরেই ঢুকতে পারব না। যে কোনো কাজের চেষ্টার আগেই আমরা হাল ছেড়ে দেই। আরো ক`জনের সাথে কথা বুঝলাম সবাই দালালের মাধ্যমেই বিদেশ আসতে নির্ভরশীল। নিজে নিজে বিদেশ আসতে হলে কী করতে হবে তা বেশিরভাগ বাংলাদেশির জানা নেই। আমাদের দেশে দালালের অভাব নেই। নিজের আপন ভাইকে পর্যন্ত দেখেছি ভাইয়ের সাথে দালালি করতে,নির্ধারিত টাকার চেয়ে অনেক বেশি টাকা নিয়ে বিদেশ আনতে। ইদানিং মালয়েশিয়ায় অসংখ্য দালাল গুজব ছড়িয়ে বেড়াচ্ছে সরকারিভাবে ভাবে কেউ মালয়েশিয়ায় আসতে পারবে না। মালয়েশিয়ায় আসতে খরচ হবে ৩ থেকে ৪ লক্ষ টাকা। এদের কথায় কান দেয়া থেকে দূরে থাকুন।

প্রবাসীদের বলছি গুজবে কান দিবেন না। যে কোনো খবরের সঠিক তথ্য জানতে চেষ্টা করুন। ঘটনা যাই ঘটুক না কেন এই নিয়ে নিজের সময় নষ্ট না করাই ভাল। আপনার কাজ নিয়ে ব্যস্ত থাকুন। খবরের মূল উৎস,সঠিক তথ্য না জেনে,সত্যতা যাচাই না করে অন্যের কাছে গুজব ছড়াবেন না।

এম.আমজাদ চৌধুরী রুনু
মালয়েশিয়া প্রবাসী সাংবাদিক

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply