তিতাসে যুবলীগের সম্মেলন নিয়ে সংশয়::সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে একাধিক প্রার্থী মাঠে

তিতাস / ৩০ নভেম্বর (কুমিল্লাওয়েব ডটকম)———
তিতাস উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে একাধিক প্রার্থী কাউন্সিলাদের ধারে ধারে ধন্যা দিলেও যুবলীগের সম্মেলন নিয়ে সংশয় দেয়া দিয়েছে। মাঠে প্রার্থীরা তাদের প্রচারণা চালালেও সম্মেলন সম্পর্কে সিনিয়র নেতাদের কাছ থেকে সু-বার্তা পাওয়া যাচ্ছে না।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার প্রতিষ্ঠার ৯ বছর অতিবাহিত হলেও আহ্বায়ক কমিটি দিয়েই চলে উপজেলা যুবলীগ। উপজেলা আওয়ামীলীগ দু’ভাগে বিভক্ত হলেও তার ছোঁয়া লাগেনি যুবলীগে। তাই সমালোচনার উর্ধ্বে থেকে সাংগঠনিক কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছে যুবলীগের নেতাকর্মীরা। নভেম্বর মাসের প্রথম দিকে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সম্মেলন শুরু হওয়ায় বিশেষ করে একই আসনের পার্শ্ববর্তী হোমনা উপজেলায় যুবলীগের শান্তিপূর্ণ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হওয়ায় নড়ে-চড়ে বসেছেন তিতাস যুবলীগের নেতাকর্মীরা। জাতীয় সংসদ নির্বাচন পূর্ববর্তী সাংগঠনিক কর্মকাণ্ড গতিশীল করতে এবং নতুন কমিটি গঠনের লক্ষ্যে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে একাধিক নেতাকর্মীর নাম শোনা যাচ্ছে। বিভিন্ন কাউন্সিলারদের সাথে আলাপকালে জানা যায়, সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে তিতাস থানা পুলিশিং সমন্বয় কমিটির সদস্য সচিব ও জগতপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ফয়েজ আহমেদ জুয়েল, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মাহফুজ শিকদার, আহ্বায়ক কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক আঃ করিম মুন্সী ও আমির হোসেন প্রচারণা চালাচ্ছেন। উপর দিকে সাধারণ সম্পাদক পদে সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে প্রচারণা চালাচ্ছেন উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সাইফুল আলম মুরাদ, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য শেখ ফরিদ প্রধান, মো. জামাল মুন্সি, মনির হোসেন প্রধান, মোঃ সামছুল আলম আশিক ও হুমায়ুন কবির জুয়েল। আশ্চর্য্যরে বিষয় হলো, সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক পদে একাধিক প্রার্থী তাদের হিসাব নিকাশ নিয়ে ব্যস্ত থাকলেও গত এক মাসেও সম্মেলনের তারিখ নির্ধারণ করা সম্ভব হয়নি। ফলে অদৃশ্য কারণেই উপজেলা যুবলীগের সম্মেলন নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে।
এ ব্যাপারে ফয়েজ আহমেদ জুয়েল বলেন, সাংগঠনিক কর্মকাণ্ডকে গতিশীলের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালীসহ দুর্নীতি ও মাদকমুক্ত তিতাস উপজেলা যুবলীগ গঠনের লক্ষ্যে আমি আমার প্রার্থীতা ঘোষণা করেছি এবং সকলের দোয়া কামনা করছি। মো. মাহফুজ শিকদার বলেন, সাংগঠনিক কর্মকাণ্ডকে বেগবান করে একটি সুন্দর যুবলীগ গঠনের লক্ষ্যে আমি সভাপতি প্রার্থী। সকলের সহযোগিতা পেলে অবশ্যই আমি অন্যায়, অত্যাচার ও দুর্নীতিমুক্ত যুবলীগ গঠন করতে পারবো। আঃ করিম মুন্সী কোন বক্তব্য দিতে অপারগতা প্রকাশ করলেও সভাপতি পদে সম্ভাব্য প্রার্থী আছেন বলেন অভিমত ব্যক্ত করেন। সাইফুল আলম মুরাদ বলেন, তিতাস উপজেলা ছাত্রলীগকে যেভাবে আমি সু-সংগঠিত করে দলের কর্মকাণ্ড পরিচালনা করেছি এবং শিক্ষা-শান্তি-প্রগতির ধারা অব্যাহত রেখে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছি, সেই অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে আগামীতে যুবলীগকেও সু-সংগঠিত করে একটি আদর্শ, শক্তিশালী ও দুর্নীতিমুক্ত যুবলীগ তিতাসবাসীকে উপহার দিতে সকলের সহযোগিতা ও দোয়া কামনা করছি।
উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক ও উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মুন্সি মজিবুর রহমান বলেন, সম্মেলন করার ব্যাপারে এখন পর্যন্ত কেন্দ্রীয় কোন নির্দেশনা দেয়া হয়নি তবে জেলা পর্যায়ের নেতৃবৃন্দের নির্দেশনা মেনে উপজেলা যুবলীগের কর্মকাণ্ড পরিচালনা হচ্ছে, জেলা পর্যায়ের নেতাকর্মীদের নিদের্শনা পেলে অবশ্যয় সম্মেলন করা হবে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক যুবলীগ কর্মী জানান, নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের ইস্যুতে ১৮ দলীয় জোট যদি আগামী ১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস উদযাপনের পর নানাহ কর্মসূচী এবং নির্বাচন পূর্ববর্তী আওয়ামীলীগের প্রস্তুতির কারণে তিতাস উপজেলা যুবলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে কিনা তা এখন তিতাসবাসীর দেখার বিষয়।

নাজমুল করিম ফারুক
তিতাস (কুমিল্লা) প্রতিনিধি

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply