রিমি-ফারজানা ও আমাদের মানবতার——–নাজমুল করিম ফারুক


শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যাওয়া-আসার পথে প্রকাশ্যে এক বখাটের রাস্তা-ঘাটে অব্যাহত যৌন হয়রানি, শ্লীলতাহানি, মোবাইল সেট ছিনতাইসহ নানা অত্যাচার-নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের চরগোয়ালদী গ্রামে রফিকুল ইসলামের মেয়ে সোনারগাঁও বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের ব্যবসায় শিক্ষা শাখার ২য় বর্ষের মেধাবী ছাত্রী ফারহানা ইসলাম রিমি (১৮) বিষপানে আÍহত্যা করে। কারণ একই এলাকার নূর মোহাম্মদের ছেলে শামীম ও তার সহযোগীরা তাকে প্রকাশ্যে অশ্লীল মন্তব্য করে প্রথমে মোবাইল ফোন ও পরে ওড়না টানাটানি করে শ্লীলতাহানী করে রিমির সহপাঠীদের সামনে। রিমির অপরাধ বখাটে শামীমের প্রেম প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করা। বন্ধুদের সামনে এমন অপমানটা সে মেনে নিতে পারেনি বলে কীটনাশক পানে আত্মহত্যা করে এবং একটি চিরকুটে লিখে যায় “আমার মৃত্যুর জন্য দায়ী শামীম”। শুধু ঐ দিন নয় বিগত এক বছর পূর্বেও বখাটে শামীম প্রেমের প্রস্তাব দেয় রিমিকে; রিমি তা প্রত্যাখ্যান করে, ফলে রিমি কলেজে যাওয়া-আসার পথে প্রতিদিন রাস্তায় প্রকাশ্যে অব্যাহতভাবে উত্ত্যক্ত করতে থাকে শামীম ও তার সহযোগীরা। রিমি বিষয়টি তার পরিবারের লোকজনদের জানায়। পরিবারের লোকজন সোনারগাঁ থানা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমানকে বিষয়টি অবগত করেন। ছাত্রলীগের সাবেক ওই নেতা এক বছর পূর্বেই এ বিষয়ে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের একত্রিত করে এক বিচার সালিশের মাধ্যমে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বখাটে যুবক হিসেবে শামীমকে ১শ’ জুতাপেটা ও নগদ ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করে।
দাউদকান্দি উপজেলার পদুয়া ইউনিয়নের সোনাকান্দা গ্রামের জালাল উদ্দিনের মেয়ে সোনাকান্দা ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন রহমানিয়া দাখিল মাদ্রাসার নবম শ্রেণীর ছাত্রী ফারজানা আক্তার (১৫) ঘুমন্ত অবস্থায় ঘরের জানালা দিয়ে এসিড নিক্ষেপ করে এতে তার বোনের ছেলে একই মাদরাসার পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্র ফয়সাল মাহমুদ (১০) এবং কাজের মেয়ে খাদিজা আক্তার (১৭) দগ্ধ হয়। ঘটনার বিবরণে জানা যায়, ফারজানা যে মাদরাসায় পড়াশোনা করতো সেই মাদরাসার শিক্ষক মোঃ দেলোয়ার হোসেন তাকে প্রেমের প্রস্তাব এবং পরে বিয়ের প্রস্তাব দেয়। এতে ফারাজানা অসম্মতি প্রকাশ করলে দেলোয়ার তাকে দেখে নেয়ার হুমকি দেয়। একই প্রস্তাব ও হুমকি দেয় উপজেলার জামালকান্দি গ্রামের কালু মিয়ার পুত্র বখাটে সাদ্দাম হোসেন (২২)। ফারজানার পরিবারের দাবী তারই এ ঘটনা ঘটিয়েছে।
সোনারগাঁয়ের রিমি ও দাউদকান্দির ফারজানার ঘটনাটি একই সূত্রে গাঁথা। প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় পৃথিবীতে থেকে চলে গেলেন একটি মেধাবী মুখ আর অন্যটি এসিডের ক্ষত চিহ্ন নিয়ে বয়ে বেড়াবে দিনের পর দিন। মানবতাকে কম মূল্যের রঙ্গিন প্লাসে বিক্রি করে প্রকাশ্যে চলছে এমন ঘটনা, ভালোবাসার নামে ভোগের ইচ্ছা নিয়ে বাধ্য করছে তাদের আত্মহত্যা করতে। তার একমাত্র কারণ আমাদের মানবতা। আমাদের মানবতা এতই নীচে মেনে গেছে যে সেখানে কোন সৎ কর্ম বাসা বাঁধতে পারে না। প্রতিনিয়ত অপকর্মে লিপ্ত থেকে ধ্বংস করে দিচ্ছে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের বেঁচে থাকা। যাদের হৃদয়ে ভালোবাসা থাকে তারা কখনো প্রিয় মুখটিতে ছুড়তে পারে না এসিড, করতে পারে না খুন বা শ্লীলতাহানী। হাত-পা, চোখ-মুখ থাকলেই মানুষ হওয়া যায় না। সত্যিকার ভাবে মানুষ হতে হলে দেহের মধ্যে মনুষ্যত্ব থাকতে হয়। আর মনুষ্যত্ব ব্যক্তি কখনো জালিম ও কাফেরে মতো কাজ করতে পারে না। যদি আমাদের মধ্যে মনুষ্যত্ব বোধ থাকতো তাহলে হারিয়ে যেত না খুলনার দৌলতপুর পাবলা মোল্লার মোড়ের ফারজানা আফরিন রুমি, নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও চরগোয়ালদী গ্রামের ফারহানা ইসলাম রিমি ও এসিড সন্ত্রাসে শিকার হতো না দাউদকান্দি পদুয়া ইউনিয়নের সোনাকান্দা গ্রামের ফারজানা আক্তার। আমরা আর একটিও এমন ভয়াবহ ঘটনা দেখতে চাই না। আমরা চাই, অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হউক, জাগ্রত হউক আমাদের মানবতার।

নাজমুল করিম ফারুক
সাধারণ সম্পাদক
তিতাস উপজেলা প্রেসক্লাব
তিতাস, কুমিল্লা।
ই-মেইল-nazmulkf09@yahoo.com

Check Also

চার দিন ধরে নিখোঁজ তিতাসের দ্বীন ইসলাম

  নাজমুল করিম ফারুক, তিতাস :– কুমিল্লার তিতাসের উত্তর বলরামপুর গ্রামের মনির সরকারের ছেলে দ্বীন ...

Leave a Reply