প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় দাউদকান্দিতে মাদরাসার ছাত্রীসহ ৩ জন এসিডসন্ত্রাসের শিকার

দাউদকান্দি / ১২ নভেম্বর (কুমিল্লাওয়েব ডটকম)———-
সোমবার ভোররাতে দাউদকান্দি উপজেলা পদুয়ার সোনাকান্দা গ্রামে প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় মাদরাসার ছাত্রীসহ ৩ জন এসিডসন্ত্রাসের শিকার হয়।
মেয়েটির পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, উপজেলা পদুয়া ইউনিয়নের সোনাকান্দা গ্রামের জালাল উদ্দিনের মেয়ে, সোনাকান্দা ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন দাখিল মাদ্রাসার নবম শ্রেণীর ছাত্রী ফারজানা আক্তার (১৫) কে জামালকান্দি গ্রামের কালু মিয়ার পুত্র বখাটে সাদ্দাম হোসেন (২২) দীর্ঘদিন যাবত প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। মেয়েটি প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় সোমবার ভোররাতে ঘুমন্ত অবস্থায় ঘরের জানালা দিয়ে বখাটেরা এসিড নিক্ষেপ করলে ফারজানা আক্তার ও তার ভাগিনা পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্র ফয়সাল মাহমুদ (১০) এবং কাজের মেয়ে খাদিজা আক্তার (১৭) ভয়াবহ এসিডসন্ত্রাসের শিকার হয়। ওইসময় তাদের ডাকচিৎকারে পরিবারের সদস্য ও আশেপাশের লোকজন ছুটে আসে। সঙ্গে সঙ্গে তাদের ৩ জনকেই উন্নত চিকিৎসার জন্য দ্রুত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। এর মধ্যে ফারজানা আক্তারের অবস্থা আংশকাজনক বলে জানা যায়।
এ ঘটনায় দাউদকান্দি থানা পুলিশ পদুয়া থেকে ৫ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে থানায় নিয়ে আসে। এদিকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ আনোয়ারুল নাসের বলেন, ‘এ ঘটনার সাথে জড়িত কাউকে ছাড় দেয়া হবে না’। দাউদকান্দি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আবুল ফয়সল জানান, ‘খবর পাওয়ার সাথে সাথে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে এবং জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৫ জনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে’।
এ ব্যাপারে দাউদকান্দি উপজেলা ইভটিজিং প্রতিরোধ কমিটির আহ্বায়ক কবি ও কালামিস্ট মো. আলী আশরাফ খান বলেন, ‘ইভটিজিং আবারো যেভাবে মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে সরকার যদি এব্যাপারে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ না করে তাহলে সমাজ চরম অবক্ষয়ে পতিত হবে’।
এদিকে ঘটনার পর থেকে বখাটে সাদ্দাম হোসেন পলাতক রয়েছে বলে জানা যায়।

শামীমা সুলতানা, দাউদকান্দি থেকেঃ

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply