ইকবাল আজাদ হত্যায় ন্যায় বিচারের আশ্বাস প্রধানমন্ত্রীর

ব্রাহ্মণবাড়িয়া / ২ নভেম্বর (কুমিল্লাওয়েব ডটকম)———-
সরাইল আওয়ামী লীগের জনপ্রিয় নেতা বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আলহাজ্ব এ.কে.এম ইকবাল আজাদ নৃশংস হত্যাকান্ডে জড়িতদের আইনের আওতায় এনে দৃস্টান্তমূলক শাস্তির আশ্বাস দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ইকবাল আজাদের অকাল মৃত্যুতে শেখ হাসিনা ব্যাথিত হয়েছেন। নিহতের স্ত্রী, দুই সন্তান ও আহত ভাইকে প্রধানমন্ত্রী আশ্বস্ত করেছেন অবশ্যই এ খুনের ন্যায় বিচার হবে।
শুক্রবার বিকেলে নিহত ইকবাল আজাদের গ্রামের বাড়ি উপজেলার কুট্টাপাড়ায় কূলখানী ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠান শেষে নিহতের সহধর্মিনী শিউলী আজাদ সাংবাদিকদের এ কথাগুলো জানান। তিনি জানান, গত বুধবার ইকবাল আজাদের সহধর্মিনী শিউলী আজাদসহ একমাত্র ছেলে ইফাজ ইকবাল, মেয়ে শাজরিবা ইকবাল এবং ঘটনায় আহত ভাই জাহাঙ্গীর আজাদ তারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে দেখা করেন। এসময় প্রধানমন্ত্রী বেশকিছু সময় তাদের সঙ্গে ছিলেন এবং শোকাহত পরিবারের লোকদের নানাভাবে সান্তনা দেওয়ার চেষ্টা করেন।
শিউলী আজাদ সাংবাদিকদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কথায় ও আশ্বাসে বুঝতে পেরেছি ইকবাল হত্যার ন্যায় বিচার আমরা পাব। তিনি আরো বলেন, এ মামলার ২/৩ জন আসামী ঘটনার আগে থেকেই পুলিশ প্রশাসনের সাথে সম্পর্ক গড়ে তুলে। তারা অত্যন্ত প্রভাবশালী। তাই আমরা কিছুটা শঙ্কিত।
নিহতের মা জোবেদা খাতুন বলেন, স্বামী হত্যার বিচার পায়নি। তবে প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাস এবং জনগণ যেভাবে আমাদের পাশে আছেন, তাতে আমার দৃঢ় বিশ্বাস ছেলে ইকবাল আজাদ হত্যার ন্যায় বিচার মৃত্যুর আগে আমি দেখে যেতে পারবো।
কানাডায় বিবিএ পড়–য়া ছেলে ইফাজ ইকবাল বলেন, পিতাকে হারিয়ে আমরা দু’ভাই-বোন একেবারে ভেঙ্গে পড়েছি। পিতার আদর-সোহাগ কি ছিল এখন আমরা বুঝতেছি। আমাদের পিতাকে যারা নৃশংসভাবে হত্যা করেছে তাদের দৃস্টান্ত বিচার চাই।
নিহতের ছোট ভাই জাহাঙ্গীর আজাদ বলেন, প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাসে এ ঘটনার ন্যায় বিচারে আমরা আশ্বস্ত হয়েছি। জনগণও আমার ভাইয়ের হত্যাকান্ডের ন্যায় বিচারে সোচ্চার আছেন। তবে প্রশাসন যদি এ বিষয়টি নিয়ে কোন প্রকার গাফিলতি করেন, তাহলে জনগণকে সাথে নিয়ে আমরা শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ-সমাবেশ চালিয়ে যাবো।
এদিকে শুক্রবার বাদ আছর ইকবাল আজাদ স্মরণে তার বাড়িতে মিলাদ মাহফিল, কোরআন খানী ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। মালিহাতা মাদ্রাসার মুহতামিম মাওলানা মোহাম্মদ আলী মোনাজাত পরিচালনা করেন। এতে জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক মেজর (অব:) জহিরুল হক খাঁন বীর প্রতিক, সাংগঠনিক সম্পাদক মাহাবুবুল বারী চৌধুরী মন্টু, জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম ফেরদৌস এবং স্থানীয় রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ নানা শ্রেণী পেশার মানুষ অংশ নেন। পরে এ অনুষ্ঠানে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য র আ ম উবায়দুল মোক্তাদির চৌধুরী এবং পৌর মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি মোঃ হেলাল উদ্দিন অংশ গ্রহণ করেন এবং শোকাহত পরিবারকে সান্তনা দেন। এছাড়াও উপজেলার ১৮১ টি মসজিদে বাদ জুমা নিহতের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

আরিফুল ইসলাম সুমন

Check Also

কুমিল্লায় তিন গৃহহীন নতুন ঘর পেল

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ– কুমিল্লা সদর উপজেলায় গ্রামীণ উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে ৪নং আমড়াতলী ইউনিয়নের গৃহহীন নুরজাহান বেগম, ...

Leave a Reply