কুমিল্লাওয়েব ডটকমে খবর প্রকাশের পরঃ মেঘনায় নির্বাহী অফিসারের দ্রুত হস্তক্ষেপে হিন্দু পরিবারটির তালাবদ্ধ ঘর খুললো

মেঘনা / ২২ অক্টোবর (কুমিল্লাওয়েব ডটকম)———-
কুমিল্লা মেঘনা উপজেলার নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ সামছুল হকের দ্রুত হস্তক্ষেপে গোবিন্দপুর ইউনিয়নের দড়িকান্দি গ্রামের একটি হিন্দু পরিবার নিজের বসত বাড়িতে ফিরতে পারলো। গত রবিবার কুমিল্লাওয়েব ডটকম সহ বিভিন্ন দৈনিক পত্রিকায় ”সুদের টাকা পরিশোধ করতে না পারায় সংখ্যালঘু পরিবারের বসতঘর তালা, দূর্গা পূজার আনন্দ থেকে বঞ্চিত এই পরিবার” শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়। সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার পর পর মেঘনা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ সামছুল হক এবং থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ নাসিমউদ্দিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে মেঘনা থানাতে একটি মামলা রুজু করেন। মামলা নং-০৩, তারিখ-২১-১০-২০১২ইং। মামলার বাদী দড়িকান্দি গ্রামের শ্রী মরিন্দ্র চন্দ্র সাহা। থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ নাসিমউদ্দিন জানান, পুলিশ দড়িকান্দি গ্রামের আসামী মোঃ আক্তারকে গ্রেফতারের চেষ্টা চালাচ্ছে। ঘটনার বিবরনে জানা যায়, গোবিন্দপুর ইউনিয়নের দড়িকান্দি গ্রামের গরীব হিন্দু পরিবার শ্রী মরিন্দ্র চন্দ্র সাহার ছেলে শ্রী সুজন চন্দ্র সাহা (২৮) বোনের বিয়েতে খরচের জন্য দড়িকান্দি গ্রামের আঃ সাত্তারের পুত্র মোঃ আক্তারের নিকট হইতে ১ লাখ টাকা মাসিক ৪ হাজার টাকা সুদে টাকা নেয়। প্রতিমাসে ১ লাখ টাকার সুদ ৪ হাজার টাকা মাসে ১ বছর যাবত পরিশোধ করে আসছিল। গত মাসে সুদের টাকা পরিশোধে দেরী হলে মোঃ আক্তার শ্রী মরিন্দ্র চন্দ্র সাহার বসত তিনটি ঘরে তালাবদ্ধ করে সমস্ত হিন্দু পরিবারটিকে বাড়ি হইতে তাড়িয়ে দেয়। এই সংবাদটি বিভিন্ন দৈনিক প্রিন্টিং ও অন লাইন পত্রিকায় প্রকাশিত হইতে মেঘনা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ সামছুল হক দ্রুত পদক্ষেপ নিয়ে হিন্দ্র পরিবারটিকে নিজস্ব বাড়ির তালাবদ্ধ ঘর খুলে দিয়ে মেঘনা থানাকে একটি মামলা দায়ের করেন। দ্রুত পদক্ষেপে নিয়ে প্রশাসনিক দায়িত্ব পালন এবং স্থানীয় শান্তি প্রিয় মানুষের প্রশংসা কুড়িয়েছেন নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ সামছুল হক।

মোঃ ইসমাইল হোসেন মানিক
মেঘনা প্রতিনিধি

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply