দেবিদ্বার উপজেলা সদরের একাংশে ৪দিন ধরে বিদ্যুৎ নেইঃ জন সাধারনের চরম দূর্ভোগ

দেবিদ্বার / ১৫ অক্টোবর (কুমিল্লাওয়েব ডটকম)———-
দেবিদ্বার উপজেলা সদরের নিউমার্কেট এলাকার একাংশে গত ৪দিন ধরে বিদ্যুৎ নেই। চরম ভোগান্তির মুখে ১২টি বিপনী ভবনসহ অসংখ্য বিপণী বিতান, সোনালী, অগ্রণী ও পূবালী ব্যাংসহ ৩টি রাষ্ট্রায়ত্ব ব্যাংক, ৬টি বীমা কোম্পানী ও ৯টি বেসরকারী প্রতিষ্ঠানের কার্যালয়, ১টি পশুসম্পদ হাসপাতাল, ৪টি প্রাইভেট হাসপাতালসহ প্রায় শতাধিক আবাসিক ভবনের কয়েকশত অধিবাসী।
স্থানীয় ব্যবসায়ী আব্দুল হান্নান, পূবালী ব্যাংক ও সোনালী ব্যাংক কর্মকর্তা, আবাসীক ভবনের অধীবাসী হাজী গিয়াস উদ্দিন বলেন, গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ‘দেবিদ্বার-চান্দিনা’ সড়কের মাথায় অবস্থিত ৭৫কেভি’র বৈদ্যুতিক ট্রান্সফর্মারটি হঠাৎ একটি বিকট শব্দে বিকল হয়ে যায়। ট্রান্সফর্মাটি সংস্কারসহ বৈদ্যুতিক সংযোগের দাবীতে সংশ্লিষ্ট বিদ্যুৎ অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কাছে প্রতিনীয়ত ধর্না দিলেও কোন লাভ হয়নি।
কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১’র দেবিদ্বার জোনাল অফিসের উপ-মহা ব্যবস্থাপক নীল মাধব বণিক ট্রান্সফর্মার সংস্কারে ৮৪(চুরাশি) হাজার টাকা পরিশোধ করার পরই সংযোগ দেযা সম্ভব বলে জানান। অবশেষে সোমবার বিকেল ৪টায় দেবিদ্বার বণিক সমিতির সভাপতি হাজী গিয়াস উদ্দিন, পূবালী ব্যাংক, সোনালী ব্যাংক ব্যবস্থাপক, রাজিয়া সপিং কমপ্লেক্স’র ব্যবসায়ী নারায়ন চন্দ্র পালসহ প্রায় ১১টি বিপণী ভবন মালিকের পক্ষে স্বাক্ষরিত লিখিত আবেদনে ট্রান্সফর্মার মেরামত খরচের চুরাশি হাজার টাকা বিদ্যুৎ বিলের সাথে সমন্বয় করার শর্তে বিদ্যুৎ সংযোগ পাওয়ার আশ্বাস পাওয়া যায়। তারা আরো বলেন, আসন্ন ঈদুল আজহা ও দূর্গা পূঁজা উপলক্ষে বিপণী বিতান গুলোর ব্যবসায়ীরা যেমন লোকসান গুণতে হচ্ছে তেমনি ক্রেতারাও বিভিন্ন সামগ্রী কিনতে বাজার পরিবর্তন করছেন। অপর দিকে বিভিন্ন হাসপাতালের চিকিৎসা ব্যবস্থা এবং বাসা-বাড়ির শিক্ষার্থীরাও ভোগান্তির শিকার হচ্ছে।
সোমবার বিকেল ৫টায় কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১’র দেবিদ্বার জোনাল অফিসের উপ-মহা ব্যবস্থাপক নীল মাধব বণিক’র সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ট্রান্সফরমাটি মেরামত করতে চুরাশি হাজার টাকা লাগবে। সরকারী নিয়মানুসারে সংশ্লিস্ট গ্রাহকদের ট্রান্সফর্মার মেরামতের চুরাশি হাজার টাকা বহন করতে হবে। অদ্য ( সোমবার) বিকেলে বনিক সমিতির সভাপতি, ব্যাংক ব্যবস্থাপক, ব্যবসায়ী ও স্থানীয় আবাসিক গ্রাহকদের আবেদনের প্রেক্ষিতে খরচের চুরাশি হাজার টাকা বিদ্যুৎ বিলের সাথে সমন্বয় করার শর্তে ৭৫কেভি ট্রান্সফর্মারের পরিবর্তে ১০০কেভি ট্রান্সফর্মার সংযোগ দেয়ার কাজ চলছে। তিনি আরো বলেন, ১২৪টি বৈধ বৈদ্যুতিক মিটার থাকলেও বেশ কিছু অবৈধ সংযোগ ও বিভিন্ন কারখানাসহ ব্যবসায়িক কাজে আবাসিক মিটার বানিজ্যিক ভাবে ব্যবহারের ও অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply