দেবিদ্বারে পাঁচ বছরের শিশু সামিয়ার হত্যার খুনি সবুরের ফাঁসির দাবীতে মানববন্ধনও বিক্ষোভ

দেবিদ্বার/ সেপ্টেম্বর ১৬(কুমিল্লাওয়েব ডটকম)—
কুমিল্লার দেবিদ্বারে গত শুক্রবার ফতেহাবাদ ইউনিয়নের বরকান্দা গ্রামের শিশু কন্যা সামিয়া আক্তার(৫)কে নৃশংস ভাবে গলাটিপে শ্বাস রুদ্ধ করে হত্যার প্রতিবাদে রবিবার বিকালে স্থানীয়দের আয়োজনে বরকান্দা প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন সড়কে খুনি সবুর এর ফাসির দবীতে মানব বন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। নিহত স্বজনের আহাজারীতে এলাকায় নেমে এসেছে শোকের ছায়া।
রোববার বিকেলে বড়কান্দা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সম্মুখে অনুষ্ঠিত মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিলে বিক্ষোভকারীরা জানান, জমিসংক্রান্ত বিরোধের জেরধরে পার্শ্ববর্তী ঘোষঘর গ্রামের সাফর আলী ভূইয়ার ছেলে মোশাররফ হোসেন বাবুল ভূইয়া নিহত সামিয়ার দাদা বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী মোসলেহ উদ্দিন ও নিহত শিশুর বাবা প্রবাসী সাঈদুজ্জামানকে ফাঁসাতে পুলিশসহ বিভিন্ন মহলে মিথ্যা ও বিভ্রান্তিকর প্রচারনা চালায়। নিছক শত্রুতার বশে শোকগ্রস্থ একটি পরিবারকে হয়রানী ও ক্ষতিগ্রস্থ করার হীন মানসিকতায় লাশ গুম করার চেষ্টা ও মূল আসামীকে পালিয়ে যেতে বারবার তাগাদা দেওয়ার মত ঘৃণ্য অপতৎপরতার মাধ্যমে খুনের মুটিভ ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা করায় এলাকাবাসী ক্ষুদ্ব হয়ে উঠে। চক্রান্তকারী মোশাররফ হোসেন বাবুল ভূইয়া বর্তমানে পলাতক রয়েছে। মিছিল শেষে বড়কান্দা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বারান্দায় শিশু শ্রেনীর ছাত্রী নিহত সামিয়ার দাদীর কান্নায় উপস্থিত সকলে অশ্রুসিক্ত হয়ে উঠে।
উল্লেখ্য গত শুক্রবার বিকেলে বরকান্দা গ্রামের প্রবাসী সাইদুজ্জামানের ৫বছর বয়সী শিশু কন্যা সামিয়া আক্তার নিজ বাড়ীতে বিকালে অন্যান্য শিশুদের সাথে খেলাধুলা করা কালে হঠাৎ করেই নিখোঁজ হয়ে যায়। নিকটস্থ বাড়ী ঘর, পুকুরসহ বিভিন্ন স্থানে খোঁজা খুঁজি করে এক পর্যায়ে সন্ধ্যা ৭টায় তাদের পাশের ঘরের সামছুল হকের টিনশেড বিল্ডিং এর রুম হতে একটি কাঁথা দিয়া মোড়ানো খাটের নিচে সামিয়ার নিথর মৃত দেহটি উদ্ধার করাহয়। সংবাদ পেয়ে দেবিদ্বার থানার পরিদর্শক (ওসি সার্বিক) এসএম বদিউজ্জামান, পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ মিজানুর রহমান, উপ-পরিদর্শ (এসআই) শাহ কামাল আকন্দ, আঃ রহিম ও জাকির হোসেন’র সমন্বয়ে গঠিত টিম লাশ পাওয়া ঘরের লোক জন কে সন্দেহ ভাজন সবুর ও তার মাকে পৃথক পৃথকভাবে জিজ্ঞাসাবাদে একপর্যায়ে রাত ১২টায় আটক খলিলপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর ছাত্র সবুর (১৭)অকপটে সামিয়াকে গলা টিপে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা করে ও লাশ নিজ কক্ষের খাটের নিচে কাঁথা মুড়িয়ে লুকিয়ে রাখার কথা স্বীকার করে।
নিহত সামিয়ার মামা মোঃ শরীফুল ইসলাম দৈনিক পূর্বাশাকে জানায়, কুচক্রী মোশাররফ হোসেন বাবুল ভূইয়া আমাকে মোবাইল ফোনে বলে তোরা এখনো বসে আছস কেন তারাই তাকে হত্যা করেছে তাদের বিরুদ্ধে মামলা কর। এব্যাপারে অভিযুক্ত মোশাররফ হোসেন ভূইয়া’র সেল ফোনে চেষ্টা করেও তার সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।
দেবিদ্বার থানার পরিদর্শক(ওসি সার্বিক) এসএম বদিউজ্জামান বলেন, হত্যাকান্ডের মাত্র পাঁচ ঘন্টার মধ্যে হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত একমাত্র আসামী সবুর মিয়াকে আটক করা হয়েছেএবং হত্যা মামলার আসামী সবুরকে শনিবার বিকালে কুমিল্লার ৪নং আমলী আদালতে হাজির করলে ম্যাজিষ্টেট জিন্নাত আরা সুলতানার নিকট ১৬৪ ধারা জবান বন্ধিতে সামিয়া আক্তার কে হত্যা করার স্বীকার করেন এবং তাকে শনিবার জেল হাজতে প্রেরন করেন।
তবে হত্যাকান্ডের মূল রহস্য আড়াল করতে মোশাররফ হোসেন বাবুল ভূইয়া কি কারনে মিথ্যা প্রচারনা চালিয়েছিল তা খতিয়ে দেখা হবে বলেও জানান।

মোঃ ফখরুল ইসলাম সাগর–বার্তা সম্পাদক

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply