সড়ক ও জনপথের জায়গায় বাজার ইজারা : নিমসারে ৩ শতাধিক ব্যবসায়ী পথে বসার উপক্রম

সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী,কুমিল্লাঃ
কুমিল্লার বুড়িচংয়ের নিমসারে ১৪১৮ বাংলা সনের ইজারা দেওয়া বাজারটি সড়ক ও জনপথ বিভাগ ভেঙ্গে দেয়ায় ৩ শতাধিক কাঁচা তরকারী ব্যবসায়ীসহ বাজার ইজারা গ্রহণকারী শতাধিক ব্যবসায়ী পথে বসার উপক্রম হয়েছে।

বাজার ইজারা গ্রহণকারী ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কুমিল্লা জেলার বুড়িচং উপজেলার মোকাম ইউনিয়নের নিমসার কলেজের সামনে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দু’পাশে দীর্ঘদ্নি যাবত একটি কাঁচা বাজার চালু রয়েছে। বাজারের নির্দিষ্ট কোন জায়গা না থাকলেও স্থানীয় উপজেলা প্রশাসন প্রতি বছর সড়ক ও জনপথ বিভাগের মালিকানাধীন ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের রাস্তার দু’পাশে নিমসার কাঁচা বাজার নামে একটি বাজার ইজারা দিয়ে আসছিল। প্রতি বছর ফাল্গুন-চৈত্র মাসে ইজারা প্রদান প্রক্রিয়া শেষ হয়। ইজারা গ্রহণকারী ১ বৈশাখ থেকে ৩০ চৈত্র পর্যন্ত টোল আদায় করে। এমনি ভাবে চলতি ১৪১৮ বাংলা সনের জন্যও ডাকা দরপত্রে অংশ নিয়ে নিমসার এলাকার ব্যবসায়ী হুমায়ুন কবীর ১ শত ৩৫ জন সহযোগী নিয়ে প্রায় ৬০ লাখ টাকায় বাজারটি স্থানীয় উপজেলা প্রশাসন থেকে ডেকে নেয়। যথারীতি ইজারাদারগন প্রতিদিন টোল আদায় করতো । কিন্তু প্রায় ৫ মাস চলার পর ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চারলেনের কাজ শুরু হলে সওজ’র পক্ষ থেকে প্রথমে ব্যাবসা সরিয়ে নেয়ার আহবান জানায়। পরে গত ২৩ সেপ্টেম্বর সড়ক ও জনপথ বিভাগের লোকজন বুলডেজার দিয়ে বাজারটি গুড়িয়ে দেয়। এ অবস্থায় বাজারের প্রায় ৩ শতাধিক আড়ৎদার ও ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী অসহায় হয়ে পড়ে। মহাসড়ক সম্প্রসারণের কাজে হাত দেয়ায় বাজারের দুপাশে কোন খালি জায়গা না থাকায় এ মহুর্তে ইজারাদারগন ও বিপুল অংকের ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে। স্থানীয় ব্যাবসায়ী দুলাল, পিন্টু, রুবেল, ইউনুস প্রমুখ জানান, সড়কের সম্প্রসারণের ফলে তাদের ব্যবসাগুটিয়ে নেওয়া ছাড়া আর কোন উপায় নেই। একই ভাবে ইজারা গ্রহণকারী হুমায়ুন কবির বলেন, সহকর্মী বন্ধুসহ নিকটাত্মীয় ১৩৫ জনের কাছ থেকে সংগৃহীত ৬০ লক্ষ টাকায় বাজারটি ১ বছরের জন্য ইজারা নিলেও মাত্র ৫ মাস চলার পর মহাসড়ক সম্প্রসানের জন্য সওজ কর্তৃপক্ষ বাজারটি তুলে দেয়। এ অবস্থায় আমাদের পথে বসার উপক্রম হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে আমরা বুড়িচং ব্রাহ্মণপাড়া সংসদীয় আসনের সরকার দলীয় এমপি সাবেক মন্ত্রী আব্দুল মতিন খসরু, জেলা প্রশাসক, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, উপজেলা চেয়ারম্যান, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের নিকট লিখিত ও মৌখিক সহযোগীতার আবেদন জানালেও অধ্যবধি কোন কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। ৬০ লাখ টাকা ব্যয়ে ১ বছরের জন্য ইজারা গ্রহণ করে ইজারাদার মাত্র ৫ মাস ব্যবসা করলেও প্রশাসনের এ ব্যাপারে কোন খেয়াল নেই। এদিকে এ ঘটনায় ইজারা গ্রহণকারীরা ক্ষতিপূরণ চেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বরাবরে আবেদন করলেও কোন সাড়া মিলেনি বিগত ১৪১৭ সালেও উক্ত বাজারটি ৫৫ লাখ টাকায় এই ইজারাদার গ্রহণ করে ছিলেন সে সময়ও সওজের পক্ষ থেকে বাজারটি উঠিয়ে দেয়া হলে এবারে মত তৎসময়ও লাখলাখ টাকার ক্ষতির সম্মুখীন হয়। বাজারটি ভেঙ্গে ফেলায় দূরদুরান্ত থেকে আসা ব্যবসায়ীরা বিপাকে পড়ে ইতি মধ্যেই তাদের ব্যবসা গুটিয়ে অনত্র চলে গেছে।

এ ব্যাপারে বুড়িচং থানার নির্বাহী কর্মকর্তা বিজয় কৃষ্ণ দেবনাথ বলেন, মহাসড়কের ৪ লেনের কাজ চলছে। পরবর্তীতে উপজেলা প্রশাসন নিজ খরচায় রাস্তার দক্ষিণ পার্শ্বে স্থায়ী বাজার নির্মান করে দিবে।

Check Also

বুড়িচংয়ের ময়নামতি রেজভিয়া দরবার শরীফের প্রতিবাদ সভা ও বিক্ষোভ মিছিল

বুড়িচং(কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ– কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার ময়নামতি ইউনিয়নের শমেষপুর গ্রামে বুধবার রাতে ওয়াজ মাহফিলে মোল্লা নাজিম ...

Leave a Reply