কুমিল্লা হাজতে চোরের মৃত্যুর ঘটনায় তিতাসে হত্যা মামলা দায়ের পুরুষ শূণ্য গ্রাম ॥ বাড়ি-ঘর লুটপাত হওয়ার আশংকা

নাজমুল করিম ফারুক, তিতাস (কুমিল্লা) প্রতিনিধি :
তিতাসের নারান্দিয়া ইউনিয়নের ভাটিবন্দ গ্রামে চুরি করতে গিয়ে হাতেনাতে আটক পার্শ্ববর্তী বালুয়াকান্দি গ্রামের মৃত আঃ মজিদ মেম্বারের ছেলে ওয়ারেন্টভূক্ত আসামী মোস্তফা (৩৫) কে কুমিল্লা জেল হাজতে প্রেরণ করার পর মৃত্যুবরণ করার ঘটনায় তিতাস থানায় মামলা রুজু করায় গ্রামটি পুরুষ শূন্য হয়ে গেছে ও এলাকায় আতংক বিরাজ করছে এবং যে কোন মুহুর্তে বাদী পক্ষের লোকজন ভাটিবন্দ গ্রামে হামলা চালিয়ে বাড়ি-ঘর লুটপাত করতে পারে বলে স্থানীয় লোকজন আশংকা করছে।

এলাকায় ঘুরে স্থানীয় লোকজন ও তিতাস থানা সূত্রে জানা যায়, গত ৬ জানুয়ারী দিবাগত রাত প্রায় ২টায় উপজেলার নারান্দিয়া ইউনিয়নের বালুয়াকান্দি গ্রামের মৃত আঃ মজিদ মেম্বারের পুত্র মোস্তফাসহ আরো দু’জন পার্শ্ববর্তী ভাটিবন্দ গ্রামের মৃত আবুল হাসেম এর ছেলে আঃ হালিমের ঘরে কৌশলে দরজা খুলে চুরি করতে ঢুকে। এক পর্যায়ে প্রকৃতির ডাকে হালিমের ভাই আলিম বাহির হয়ে দেখতে পায় হালিমের ঘরের দরজা খোলা। তাৎক্ষণিক সে তার ভাইকে ডাক দিলে দরজা খোলা কেন? জানতে চাইলে মুহুর্তের মধ্যে ঘর থেকে দু’জন বাহির হয়ে দৌড়ে পালিয়ে যায় অপরজন মোস্তফা ঘরের ভেতর চৌকির নীচে লুকিয়ে থাকে এবং বাহির হওয়ার চেষ্টা করলে আশে-পাশের লোকজন তাকে আটক করে গণপিটুনী দিয়ে আহত করে। পরদিন ৭ জানুয়ারি সকালে তিতাস থানা পুলিশ মোস্তফাকে আটক করে জেলে প্রেরণ করে। গত ১০ জানুয়ারি মোস্তফা কুমিল্লার জেল হাজতে মৃত্যুবরণ করে। তার মৃত্যুকে কেন্দ্র করে মৃত্যের ভাই মোঃ খোকন বাদী হয়ে ভাটিবন্দ গ্রামের ১৫ জনের বিরুদ্ধে “পরিকল্পিতভাবে তার ভাই মোস্তফাকে ডেকে নিয়ে হালিম ও অন্যান্য লোকজন চোর আখ্যা দিয়ে আহত করে পুলিশের কাছে সোর্পন করে, যার ফলে জেল হাজতে তার ভাই মৃত্যুবরণ করে” মর্মে অভিযোগ দাখিল করে। এদিকে থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নুরুল আলম তালুকদার জানান, গণপিটুনীতে আহত হওয়া মোস্তফাকে জেলে প্রেরণ করার পর সে মৃত্যুবরণ করে, বিষয়টি নিয়ে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে আলাপ হয়েছে, কর্তৃপক্ষ মামলা রুজু করতে বলেছে তাই রুজু করা হলো। তদন্ত চলছে, তদন্ত সাপেক্ষেই ব্যবস্থা নেয়া হবে। আইন শৃঙ্খলা অবনতি বা হামলাসহ বাড়ি-ঘর লুটপাতের ব্যাপারে তিনি বলেন, যদি বাদীপক্ষের লোকজন এরকম কর্মকাণ্ডে লিপ্ত হয় তাহলে তাদের বিরুদ্ধেও আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ভাটিবন্দ, দুঃখিয়ারকান্দি, নয়াকান্দি, বালুয়াকান্দি গ্রামের একাধিক লোকজন জানান, দীর্ঘ দিন যাবৎ এলাকায় চোরের অত্যাচারে ঠিকমতো ঘুমাতে পারছেনা। প্রতিদিনই এক একটি বাড়ীতে চুরি হচ্ছে। ইতোমধ্যে একাধিকভার চোরকে আটক করা হলেও এলাকার কিছু প্রভাবশালী লোক বিচারে নামে ঘুষ নিয়ে তাদের ছেড়ে দেয় যার ফলে দিন দিন এলাকায় চুরি বেড়ে চলেছে। হত্যা মামলার বাদী খোকন, সাবেক কালা মেম্বার, আবদি মেম্বার ও ফরিদ মেম্বার, মঙ্গল মিয়া, নুরুল আলম এলাকায় লোকজনকে পুলিশে ধরিয়ে দেয়ার হুমকিসহ বাড়ী-ঘর লুটপাতের করবে বলে হুমকি দেয়া হচ্ছে বলে ভাটিবন্দ গ্রামের সাধারণ লোকজন অভিযোগ করেন। সর্বশেষ খবর অনুযায়ী গত শুক্রবার সন্ধ্যায় তিতাস থানা পুলিশ হত্যা মামলা রুজু করে। মামলা নং-০৪, তারিখ ঃ ২০/০১/২০১২ইং। মামলা রুজু হওয়ার পর গ্রেফতারের ভয়ে গ্রাম থেকে সকল পুরুষ লোক আত্মগোপনে রয়েছে। এদিকে গত ১৭ জানুয়ারি উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা সভায় নারান্দিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার সালাহ উদ্দিন জানান, মোস্তফা হত্যাকে কেন্দ্র করে যে কোন মুহুর্তে এলাকা অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটতে পারে। পরে সভায় সিদ্ধান্ত হয়, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যানদ্বয়, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাসহ এলাকার লোকজন স্থানীয়ভাবে বসে যাতে আইন-শৃঙ্খলার পরিস্থিতির অবনতি না হয় সে ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়া হবে। তার দু’দিন পর থানায় ৩২/৩৪ দন্ডবিধি ধারায় মামলা হওয়ায় এলাকায় আতংক বিরাজ করছে।

Check Also

তিতাসে মেহনাজ হোসেন মীম আদর্শ কলেজের নবীনবরণ অনুষ্ঠিত

নাজমুল করিম ফারুক :— কুমিল্লার তিতাসে মেহনাজ হোসেন মীম আদর্শ কলেজের নবীনবরণ অনুষ্ঠান গত শনিবার ...

Leave a Reply