কুমিল্লা বিশ্বরোডের পথসভায় বক্তব্য রাখছেন খালেদা জিয়া

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন না করলে এ সরকার বিশাল ভুল করবে -কুমিল্লা বিশ্বরোডের পথসভায় বেগম খালেদা জিয়া

সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী,কুমিল্লা :

কুমিল্লা বিশ্বরোডের পথসভায় বক্তব্য রাখছেন খালেদা জিয়া
তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন না করলে এ সরকার বিশাল ভুল করবে। আগে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন করার পরিকল্পনা করুন, পরে তত্ত্বাবধায়ক সরকারই নির্বাচন কমিশন পুর্নগঠন করবে। নির্বাচন কমিশন পুর্নগঠন এখন মুখ্য বিষয় নয়। আ’লীগ সরকার তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন করতে ভয় পায়, কারন তারা জানে তারা আর ক্ষমতায় আসতে পারবেনা। জনগণ তাদের প্রত্যাখ্যান করেছে। তাই তারা দলের অধীনে নির্বাচন করতে চায়। গতকাল রোববার বিকেলে নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকার পুর্নবহাল ও সর্বক্ষেত্রে ব্যর্থ আওয়ামীলীগ সরকারের পদত্যাগের দাবীতে চট্রগ্রাম অভিমুখে রোডমার্চ উপলক্ষে কুমিল্লা পদুয়ার বাজার বিশ্বরোডে আয়োজিত পথসভায় কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা বিএনপির সভাপতি বেগম রাবেয়া চৌধুরীর সভাপিতত্বে বিরোধীদলীয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া এ কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, একসময় তারা তত্ত্বাবধায়ক সরকারের জন্য জনগণকে অনেক কষ্ট দিয়েছে, আজ তারাই এটা চায়না। এই সরকারের বিরুদ্ধে আপনারা রুখে দাড়ান। আমরা তত্ত্বাবধায়ক সরকার পুর্নবহালের জন্য আন্দোলন করছি। আগামী নির্বাচন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে হতে হবে,নতুবা কোন দল এ নির্বাচনে অংশ নিবেনা। আমরা এখনো বলছি দলীয় নির্বাচনের চিন্তা থেকে দূরে সরে আসুন। এটাই আপনাদের জন্য মঙ্গল হবে। আ’লীগ বলছে সংসদ নির্বাচনে সেনাবাহিনী দিবেনা। সেনাবাহিনী না দিলে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়। তারা জানে সুষ্ঠু নির্বাচন হলে তারা ক্শতায় আসতে পারবেনা। তারা ষড়যন্ত্রের রাজনীতি করে। তারা প্রতারক। বাংলাদেশ-ভারতের সীমান্তে ভারতীয় বিএসএফ আমাদের দেশের লোককে হত্যা করছে, অথচ এ সরকার কোন প্রতিবাদ করতে পারছেনা। তারা জনগণের সরকার হতে পারেনা। তারা নির্বাচনী ওয়াদা পূরণ করতে ব্যর্থ হয়েছে। ১০ টাকা কেজি চাল খাওয়াবে বলেছিল,কিন্তু তারা পারেনি। তারা খাওয়াচ্ছে ৪০ টাকা কেজি দরে। সবকিছুর দাম বেড়েই চলেছে। আজ মানুষ হতাশ তাদের কার্যাকলাপে। তারা বলেছিল কৃষকদের বিনামূল্যে সারদিবে, কৃষি উপকরণ কমাবে। কিন্তু তারা করেনি। বিএনপির শাসনামলে কৃষক ভাইয়েরা ভালো ছিল। এই তিনবছরে তারা জ্বালানি তেল, বিদ্যুৎসহ সবকিছুর দাম বাড়িয়েছে। মানুষ এখন গ্যাস পাচ্ছেনা। এখনো ফোর লেইন রাস্তার কাজ কিছুই হয়নি। এই সরকার স্বৈরাচারি সরকার, তারা খুনি সরকার ও তারা দুর্নীতিবাজ সরকার। এই সরকারের অধীনে দেশ চললে মানুষের অস্তিত্ব থাকবেনা। আজকের রোডমার্চ সফল। আজকের জনতার জোয়ার এই সরকার দেখলে তাদের মাথা খারাপ হয়ে যাবে। এই সরকার আল্লাহর উপর বিশ্বাস রাখেনা, তাই তাদের উপর মানুষের বিশ্বাস থাকেনা। তারা ধর্ম নিরপেক্ষ বলে হিন্দুদের জমি-বাড়ি দখল করছে, গীর্জা দখল করছে, মুর্তির অলংকার লুন্ঠন করছে।

খালেদা জিয়া আরো বলেন, মইন উদ্দিন ও ফখরুদ্দিনের সরকার এদেশকে দুবছর পিছিয়ে দিয়েছে আর এ সরকার এদেশ আরো ৩ বছর পিছিয়ে দিয়েছে। এখন এই দেশকে এগিয়ে নিতে কষ্ট হবে। কিন্তু আমরা পারব। ২০০৮ সালের নির্বাচনকে আমরা নির্বাচন মনে করিনা। এটা ছিল সাজানো নাটক। আমরা এদেশের আবাল-বৃদ্ধ ও যুবসমাজকে নিয়ে দেশকে উন্নতির পথে এগিয়ে পারবো।

অতীত স্মৃতি রোমন্থন করে তিনি বলেন, কুমিল্লার জনগণ আমার কাছে অত্যন্ত প্রিয়। স্বাধীনতার পর প্রথমে আমি ও শহীদ জিয়া এই কুমিল্লাতে অনেকদিন ছিলাম। কুমিল্লার রাস্তাঘাট পথ আমার অনেক চেনা। কুমিল্লার মানুষের প্রতি আমার দুর্বলতা রয়েছে।

এদিকে পদুয়ারবাজার বিশ্বরোডের পথসভার আগে বেগম খালেদা জিয়া চান্দিনার ছয়ঘড়িয়ার তুলাতুলি মাঠে জেলা উত্তরের সভাপতি খোরশেদ আলমের সভাপতিত্বে দ্বিতীয় পথসভায় ভাষণ দেন।

ওই পথসভায় তিনি বলেন, নিজেদের াধীনে নির্বাচন করলে মস্তবড় ভুল করবেন। এতে করে দেশে বিশৃঙ্খলা ও নৈরাজ্য সৃষ্টি হবে। এইজন্য সরকারই দায়ী থাকবে। রাষ্ট্রপতির সংলাপ সর্ম্পকে তিনি বলেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছাড়া নির্বাচন কমিশন গঠন করে সুষ্ঠু নির্বাচন হবেনা। তত্তা¡বধায়ক সরকার ছাড়া নির্বাচন কমিশন সুষ্ঠুভাবে কাজ করতে পারবেনা।

এর আগে চান্দিনার মাধাইয়া মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি কলেজ মাঠে লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির সভাপতিমন্ডলীর সদস্য সাবেক প্রতিমন্ত্রী রেদোয়ান আহমেদের সভাপতিতে প্রথম পথসভায় বক্তব্য রাখেন খালেদা জিয়া। তিনি বলেন, সরকার হটানো ছাড়া মানুষের দুর্ভোগের অবসান ঘটবেনা। এদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

নিমসার বাজারে শওকত মাহমুদ ব্রাক্ষণপাড়ার কয়েক হাজার নেতা-কর্মীকে নিয়ে খালেদা জিয়াকে স্বাগত জানায়। এদিকে কাচঁপুর ব্রিজ থেকে কুমিল্লা শহর পর্যন্ত নেত্রীর সম্মানে নিমার্ণ করা হয় ৫ শতাধিক তোরণ। এসব তোরণের আশেপাশে হাজার হাজার লোক দুপাশে দাড়িয়ে খালেদা জিয়াকে অভিনন্দন জানায়।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply