দাউদকান্দিতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে বন্ধ

শামীমা সুলতানা ॥
৬ জানুয়ারি শুক্রবার সকাল ১০টায় দাউদকান্দি উপজেলা মারুকা গ্রামের হাফেজ মোঃ লায়েকজ্জামানের মেয়ে মোসাঃ মাকসুদা আক্তার (১৯)-এর সঙ্গে একই উপজেলার রীরবাগ গোয়ালীর মোঃ শহীদ মিয়ার পুত্র মোঃ সোহাগ মিয়া (১৭)’র বিয়ের দিন করা ধার্য্য হয়। এ খবর পেয়ে দাউদকান্দি উপজেলা ইভটিজিং ও বাল্যবিয়ে প্রতিরোধ কমিটির সদস্যরা দাউদকান্দি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ আনোয়ারুল নাসেরকে ঘটনাটি জানালে তৎক্ষণাৎ এ বিয়ে বন্ধের নির্দেশ দেন তিনি।

এব্যাপারে দাউদকান্দি উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাংবাদিকদের বলেন, ‘বাল্যবিয়ে একটি সামাজিক অপরাধ। আমরা বাল্যবিয়ের ব্যাপারে সব সময়ই সজাগ দৃষ্টি রাখছি। কিশোরীরা যেমন বাল্যবিয়ের কারণে সমস্যাক্রান্ত হয়, তেমনি কিশোররাও বাল্যবিয়ের ফলে বিভিন্ন সমস্যায় পর্যবসিত হয়। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই বাল্যবিয়ের সংসার টেকে না। সুতরাং বাল্যবিয়ের ব্যাপারে সকলকে সচেতন হতে হবে।’

দাউদকান্দি উপজেলা ই্ভটিজিং ও বাল্যবিয়ে প্রতিরোধ কমিটির আহ্বায়ক কবি, কলামিস্ট মো. আলী আশরাফ খান বলেন,‘বাল্যবিয়ে আমাদের সমাজের জন্য অভিশাপ। মেয়ে কিংবা ছেলে উভয়ের জন্য বাল্যবিয়ে পরবর্তীতে বড়রকমের সমস্যা সৃষ্টি করে। যার খেশারত বাবা-মা ও পরিবারের অন্য সদস্যদেরকেও দিতে হয়। তিনি আরো বলেন, আমরা ইভটিজিং, বাল্যবিয়ে ও যৌতুকব্যাধি নির্মূলে দীর্ঘদিন কাজ করে যাচ্ছি। সমাজের অন্যরাও যদি এ সমস্ত সামাজিক ব্যাধি নিমূলে এগিয়ে আসে, তাহলে একটা সুন্দর সমাজ তৈরি হবে বলে আমাদের বিশ্বাস।’

এ ব্যাপারে মারুকা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ শাহজান ভূইয়ার মুঠোফোনে যোগাযোগ করে তাকে না পেয়ে উক্ত ইউনিয়নের কাজী মা: রুহুল আমিনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন,‘আমি অজান্তে নিকাহ বহিঃ-এ এ বিয়ে প্রাথমিক লিপিবদ্ধ করেছিলাম, পরে উপযুক্ত প্রমাণাদি উপস্থাপন না করতে পারায়, তা বাতিল করে দিয়েছি’। বরের এলাকা বিটেশ্বর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ খোরশেদ আলম বলেন,‘ ছেলের অভিভাবককে স্পষ্ট বলে দেয়া হয়েছে, যাতে করে এ বাল্যবিয়ে না হয়। আর যদি আমাদের তথা অমান্য করে এ বিয়ে হয়, তাহলে, আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে’।

Check Also

কুমিল্লায় তিন গৃহহীন নতুন ঘর পেল

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ– কুমিল্লা সদর উপজেলায় গ্রামীণ উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে ৪নং আমড়াতলী ইউনিয়নের গৃহহীন নুরজাহান বেগম, ...

Leave a Reply