কুসিক নির্বাচনে এবার প্রার্থীদের পক্ষে মাঠে নেমেছেন তাদের স্ত্রীরা

কুমিল্লা প্রতিনিধি :

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন (কুসিক) নির্বাচনের আর বাকি মাত্র এক সপ্তাহ। ভোট প্রার্থীদের পদচারণায় মুখর পুরো সিটি এলাকা। ভোটযুদ্ধে নয় মেয়র প্রার্থী থাকলেও মূলত প্রচারণা চালাচ্ছেন পাঁচজন।

আর স্বামীকে বিজয়ী করতে মেয়র প্রার্থীদের স্ত্রীদের ঘুম হারাম। স্বামীর পাশাপাশি তারাও সমানে ভোটের মাঠ দাবড়ে বেড়াচ্ছেন। পুরুষের চেয়ে নবগঠিত এই সিটিতে মহিলা ভোটার বেশি হওয়ায় প্রার্থীদের স্ত্রীদের প্রচারণা চোখে পড়ার মতো।

আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী অধ্যক্ষ আফজল খানের স্ত্রী নার্গিস সুলতানা কুমিল্লা মডার্ন হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা। স্কুলের কাজ শেষ করে তিনি মাঠে নেমে পড়ছেন ভোট চাইতে।

নার্গিস সুলতানা বলেন, অধ্যক্ষ আফজল খান দীর্ঘদিন মাটি ও মানুষের রাজনীতি করেছেন। মানুষের অনেক ভালোবাসা পেয়েছেন। তিনি মেয়র হয়ে মানুষের ঋণ শোধ করতে চান। তিনি বলেন, শিক্ষা ছাড়া সমাজের প্রকৃত উন্নয়ন করা সম্ভব নয়। আফজল খান কুমিল্লার মানুষের জন্য অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান করেছেন। পরিকল্পিত সিটি করপোরেশন গড়তে আফজল খানের মতো অভিজ্ঞ নেতৃত্বের বিকল্প নেই। নার্গিস সুলতানা আফজল খানের জীবনের শেষ নির্বাচনে সবার সমর্থন চেয়েছেন।

বিএনপি থেকে অব্যাহতি পাওয়া মেয়র প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কুর স্ত্রী আফরোজা জেসমিন টিকলি একজন গৃহিনী। তিনি বলেন, ‘আমি নিজে রাজনীতিবিদ নই। রাজনীতিবিদের সহধর্মিনী মাত্র। তবে এতটুকু বলতে পারি, মনিরুল হক সাক্কু কুমিল্লাবাসীর জন্য নিবেদিত প্রাণ।’ আফরোজা জেসমিন বলেন, ‘তিনি স্বামী) শুধুমাত্র কুমিল্লাবাসীর টানে এতো বছরের রাজনীতির মাঠ থেকে সরে এসেছেন। সকালের সূর্য দেখলে বুঝা যায় দিনটি কেমন যাবে। মনিরুল হক সাক্কু পৌর মেয়র হিসেবে তার যোগ্যতার প্রমাণ রেখেছেন। আগামীতেও তিনি জনগণের পাশে থাকবেন।’

জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি মেয়র প্রার্থী এয়ার আহমেদ সেলিমের স্ত্রী সৈয়দা ইয়াছমিন সেলিম হজ করে আসার পর বাইরে তেমন বের হন না। তবে স্বামীর নির্বাচনে তিনি যাচ্ছেন মানুষের দ্বারে দ্বারে। সৈয়দা ইয়াছমিন সেলিম বলেন, ‘মানুষের সেবা করা এয়ার আহমেদ সেলিমের সহজাত ধর্ম। এমনও দিন গেছে- মিস্ত্রি বাড়ির কাজের সিমেন্টের জন্য অপেক্ষা করছেন। এয়ার আহমেদ সেলিম সিমেন্ট নিয়ে আসছেন না। সন্ধ্যায় এসে জানালেন কারো মেয়ের বিয়েতে টাকাটা খরচ করে এসেছেন।’ তিনি এয়ার আহমেদ সেলিমকে ক্লিন ইমেজের দাবি করে তাকে কুমিল্লা সিটি করপোরেশন সাজানোর দায়িত্ব দেয়ার জন্য সিটিবাসীর প্রতি আহবান জানান।

আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী মেয়র প্রার্থী কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান মিঠুর স্ত্রী আঞ্জুমান আরা চৌধুরী গৃহিনী। পরিবারের সাথে আমেরিকা ছিলেন ১৫ বছরের মতো, লেখাপড়াও করেন সেখানে। স্পষ্টভাষী আঞ্জুমান আরা চৌধুরী এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, ‘আনিসুর রহমান মিঠুর বড় যোগ্যতা তিনি অসৎ নন, মানুষের অর্থ লুটপাটের চিন্তা তার নেই। তিনি আমাকে বলেছেন, আমেরিকার ডলারের আমার প্রয়োজন নেই। আমার দেশের মানুষ নিয়ে আমি ভালো থাকতে চাই।’ আঞ্জুমান আরা চৌধুরী আরো জানান, আমেরিকায় বারাক ওবামার পক্ষে নির্বাচনী ক্যাম্পেইন করার সুযোগ তার হয়েছিল। তিনি ও আনিসুর রহমান মিঠু কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার বাসিন্দা। বুড়িচংয়ের মেয়ে হিসেবে কুমিল্লা মহানগরে বসবাসকারী বুড়িচংয়ের ভোটারদের তিনি রায় প্রত্যাশা করেন।

আওয়ামী লীগের আরেক বিদ্রোহী প্রার্থী ভিক্টোরিয়া কলেজের সাবেক ভিপি নূর-উর রহমান মাহমুদ তানিমের স্ত্রী নীলা আক্তার ঘরমুখো মানুষ। অসুস্থতার জন্য তেমন প্রচারণা চালাতে পারছেন না। তিনি বলেন, কুমিল্লার তরুণ মেধাবী রাজনীতিবিদ তানিম ইতিমধ্যে কুমিল্লার আপামর জনগণের প্রিয় মানুষের স্বীকৃতি অর্জন করেছেন। কুমিল্লা সিটির উন্নয়নে কুমিল্লাবাসী তাকে রায় দেবেন বলে আশা করি।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply