আফজাল খানের পক্ষে আওয়ামীলীগ কুমিল্লা উত্তর জেলা ও আমরা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমিটির প্রচারনা

মোঃ শরিফুল আলম চৌধুরী, মুরাদনগর (কুমিল্লা) থেকেঃ

কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামীলীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী এডভোকেট অধ্যক্ষ আফজাল খানের পক্ষে প্রথম বারের মতো জোরালো প্রচারনায় অংশ নিয়েছেন মুরাদনগর উপজেলা আমরা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমিটির সদস্যরা। তাদের সাথে যোগ দিয়েছেন আওয়ামীলীগ কুমিল্লা উত্তর জেলার নেতারাও।

গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে তারা শহরের কান্দিরপাড় দৌলতপুর ও রানীরবাজার এলাকায় গনসংযোগ করেন। এর আগে মুরাদনগর উপজেলা আমরা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমিটি কুমিল্লা পলিটেকনিক ইনষ্টিটিউট অডিটিরিয়াম হলে ও কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামীলীগ পদুয়ার বাজার নুরজাহান হোটেলে স্থানীয় নেতৃবৃন্দের সঙ্গে এক রুদ্ধদ্ধার বৈঠকে মিলিত হন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, মুরাদনগর উপজেলা আমরা সন্তান কমিটির সভাপতি ও বাংলাদেশ কারিগরি ছাত্র পরিষদ (বাকাছাপ) এর আজীবন সদস্য সাংবাদিক শরিফুল আলম চৌধুরী, কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম সরকার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিন সরকার, সহ-সভাপতি ভিপি হানিফ সরকার, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আ,ক,ম গিয়াস উদ্দিন, কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামীলীগের স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডাঃ মহিউদ্দিন, কুমিল্লা উঃ জেলা কৃষকলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক বাবু পার্থ সারথী দত্ত, জেলা যুবলীগের আহবায়ক মাশুকুল ইসলাম মাশুক, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সদস্য আবুল কালাম আজাদ, কুমিল্লা উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুল ইসলাম সোহাগ, সহ-সভাপতি ও মুরাদনগর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সৈয়দ রাজিব আহাম্মেদ, মুরাদনগর উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি হারুন আল রশিদ, সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সানোয়ারা বেগম লুনা, মুরাদনগরের নবীপুর (পঃ) ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ নেতা কামাল উদ্দিন, সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সৈয়দ আহম্মেদ হুসেন আউয়াল, বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলার স্বাক্ষী যোদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা কর্পোরাল অবসর প্রাপ্ত আবদুল মতিন চৌধুরী, মুরাদনগর উপজেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন, ছাত্রলীগ নেতা আনিসুর রহমান চৌধুরী, রুহুল আমিন সরকার, দুলাল হোসেন ও আওয়ামীলীগ নেতা জহিরুল হক প্রমুখ সহ স্থানীয় নেতারা।

বৈঠকে তাদের আলোচনার মূল বিষয় ছিল মুরাদনগর উপজেলা আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান কমিটির সদস্য ও কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামীলীগ নেতারা দলের সমর্থিত প্রার্থী আফজাল খানকে জয়ী করার জন্য দলের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহবান জানিয়েছেন। একই সঙ্গে স্থানীয় আওয়ামীলীগের বিভক্তি নিরসনে আওয়ামীলীগ ঐক্যবদ্ধ থাকলে জয় নিশ্চিত বলে আমরা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমিটি ও কুমিল্লা উত্তর জেলার আওয়ামীলীগের নেতারা মনে করেন। বৈঠকে বর্তমান সরকারের নানাহ সফলতা, শিক্ষা, যোগাযোগ, আইন-শৃংখলা নতুন বিদ্যুৎ স্থাপন ও অবাধ নিরপেক্ষ নির্বাচন ইস্যু বেশী করে প্রচার ও দলের শৃঙ্খলা ভঙ্গ করে নির্বাচনে অংশগ্রহণ এবং সাক্কুর প্রাইভেট বাহিনী। বাহীনীর ব্যপারে বেশী করে প্রচারনা চালানোর জন্য স্থানীয় নেতাকর্মীদের পরামর্শ দেওয়া হয়। নির্বাচনী কৌশল হিসাবে কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামীলীগ ও আমরা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমিটির নেতারা বলেছেন, এই নির্বাচন আগামী রাজনীতি বড় ইস্যু। আওয়ামীলীগ প্রার্থী জয়ী হলে সরকারের জনপ্রিয়তার ধারা অক্ষুন্য রয়েছে বলে সর্বমহলে প্রমানিত হবে তারা সেই সঙ্গে স্থানীয় আওয়ামীলীগ কোন্দল নিরসনে পৃথকভাবে কথা বলেছেন সাবেক ছাত্রলীগ নেতা নূর উর রহমান মাহমুদ তানিম ও এ্যাডভোটেক আনিসুর রহমান মিঠুর সাথে। এর আগে গত সপ্তাহে কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম সরকারের সভাপতিত্বে ও মুরাদনগর উপজেলা আমরা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমিটির সভাপতি সাংবাদিক শরিফুল আলম চৌধুরীর পরিচালনায় ৪টি বৈঠক করে নেতারা কুমিল্লা যেয়ে তাদের সমর্থিত প্রার্থী আফজাল খানের পক্ষে প্রচারনা চালান।

এদিকে আফজাল খানের পক্ষে কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামীলীগ ও মুরাদনগর উপজেলা আমরা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমিটির নেতৃবৃন্দের আগমন কে কেন্দ্র করে স্থানীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে দেখা দিয়েছে ব্যপক উৎসাহ উদ্দীপনা। বি,এন,পি’র নাটকীয় নির্বাচন বর্জন ও সাক্কু কে বহিস্কৃত করার বিভেদ কে কাজে লাগিয়ে তারা জয়ের ব্যাপারে অনেকটাই আশাবাদি। এ ব্যাপারে অধ্যক্ষ এ্যাডভোকেট আফজাল খান এ প্রতিনিধি কে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র নির্দেশেই কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামীলীগ মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমিটির নেতারা তার পক্ষে প্রচারনা চালাতে কুমিল্লায় এসেছেন। আমরা এক্যবদ্ধ আছি। মানুষ মুক্তিযোদ্ধের পক্ষের সরকারের পক্ষে নিজেদের রায় দেয়ার জন্য পুরোপুরি উম্মুখ হয়ে আছেন। গনজোয়ার এখন আমাদের পক্ষে। গতকাল দুপুরে কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামীলীগ ও মুরাদনগর উপজেলা আমরা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমিটির নেতারা মহানগরের বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে এ্যাডভোটেক আফজাল খানের পক্ষে প্রচারনা চালান। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত প্রচারনা অব্যাহত রয়েছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply