প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায় কুমিল্লায় পাশের হার ৯৮.৫৫ % : জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩৫২২ জন

কমিল্লা প্রতিনিধি :

বরাবরের ন্যায় এবারও দেশের মধ্যে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায় কুমিল্লায় ব্যাপক সাফল্য অর্জন করেছে ক্ষুদে শিক্ষার্থীরা। জেলার ১৬টি উপজেলায় মোট ৯২ হাজার ৫শ ৩৬ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহন করে। এতে পাশের হার ৯৮.৫৫%। এতে জিপিএ-৫ অর্জন করে ৩ হাজার ৫শ ২২ জন। তন্মধ্যে জিপিএ-৫ এ সেরা ৩ উপজেলা হচ্ছে আদর্শ সদর উপজেলায় ১ হাজার ১শ ১৮ জন, বুড়িচং উপজেলায় ৩শ ৩৬ জন এবং দাউদকান্দি উপজেলায় ২শ ৫৭ জন শিক্ষার্থী। এছাড়াও সদর দক্ষিন উপজেলায় ১৯৭ জন শিক্ষার্থী জিপিএ ৫.০০ পেয়ে উপজেলার গুলোর মধ্যে ৪র্থ স্থানে রয়েছে। এছাড়াও শতভাগ পাশের কৃতিত্ব অর্জন করে বুড়িচং উপজেলা। এদিকে মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে ইবতেদায়ী পিএসসি পরীক্ষায় কুমিল্লার ১৬ টি উপজেলায় ১৫ হাজার ৯শ ৫৬ জন অংশগ্রহন করে। এদের মধ্যে ১শ ৬১ জন শিক্ষার্থী জিপিএ- ৫ অর্জন করে। এতে পাশের হার ৯৬.০৬% । মাদ্রাসা বোর্ডের অধীনে শতভাগ পাশের কৃতিত্ব অর্জন করেছে হোমনা উপজেলা এবং ৬০ টি জিপিএ-৫ পেয়ে নাঙ্গলকোট উপজেলা প্রথম স্থান লাভ করে।

উল্লেখ্য, কুমিল্লা মর্ডান প্রাথমিক বিদ্যালয়, চট্টগ্রাম বিভাগে ১ম স্থানসহ সারাদেশে ৭ম স্থান পেয়ে গৌরব অর্জন করে।

সারাদেশে ৭ম, চট্টগ্রাম বিভাগে প্রথম কুমিল্লা মর্ডান স্কুল

এবছর প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায় শতভাগ সাফল্য নিয়ে সারাদেশের মধ্যে ৭ম স্থানে কৃতিত্ব অর্জন করেছে কুমিল্লা মর্ডাণ স্কুল। এছাড়াও সফলতার দিক থেকে চট্টগ্রাম বিভাগেও বিদ্যালয়টি হয়েছে প্রথম। দেশবাসীর নিকট উজ্জল করেছে কুমিল্লার মুখ। সাফল্যের এ খবরে বিদ্যালয়ে ফলাফল জানতে আসা অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের মাঝে ছড়িয়ে পড়ে আনন্দের বন্যা। আনন্দে মেতে উঠে শিক্ষার্থীরা। খুশীতে আত্মহারা হয়ে পরীক্ষায় সফলতার আনন্দে জড়িয়ে ধরছিল শিক্ষক ও অভিভাবকদের। শিক্ষকদের অভিমত এ সফলতা শুধু শিক্ষার্থীদেরই নয়, এই সফলতা তাদেরও। এবারের প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় প্রকাশিত ফলাফলে সারাদেশে মেধা তালিকায় ৭ম স্থানে অবস্থান করছে কুমিল্লা মর্ডান স্কুল। এছাড়াও চট্টগ্রাম বিভাগে প্রথম হয়েছে কুমিল্লা মর্ডান স্কুল। এবারে এই স্কুলটিতে ৭৬১ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে শতভাগ পাশের কৃতিত্ব অর্জন করে। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩১৪ জন। এ মাইনাস গ্রেড পেয়েছে ৩৬ জন এবং এ গ্রেড পেয়েছে ৪১০ জন।

স্কুলের এ সাফল্যে আনন্দে অভিভূত হয়ে কুমিল্লা মর্ডান স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোঃ ছিদ্দিকুর রহমান বলেন, ‘বিদ্যালয়ের এ ফলাফলে আমি আনন্দিত। আমাদের অভিজ্ঞ শিক্ষকদের যতœ এবং আন্তরিকতার সাথে শিক্ষার্থীদের পাঠদান করানোয় এ সাফল্য অর্জিত হয়েছে। এদিকে জিপিএ-৫ পাওয়া তাপসী সিদ্দিকা তার ফলাফলে খুশি হয়ে বলেন, আমার এ সাফল্যের পিছনে বাবা মা ছাড়াও স্কুলের শিক্ষকদের অবদান অনেক। এছাড়াও অনেক শিক্ষার্থী স্কুলের এ ফলাফলে বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্যদ, সকল শিক্ষকদের পরিশ্রমের ফসল বলে জানান। প্রধান শিক্ষক আরো বলেন, ভবিষ্যতে বিদ্যালয়ের সাফল্যের এ ধারা অব্যাহত রাখতে আমরা আন্তরিক চেষ্টা চালিয়ে যাবে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply