মুরাদনগরে আওয়ামীলিগের নয়া কমিটি ঘোষনার ৩মিনিট পরই প্রত্যাখান : সভাপতি সাধারন সম্পাদককে অবাঞ্চিত ঘোষনা

মোঃ শরিফুল আলম চৌধুরী, মুরাদনগর (কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার দারোরা ইউনিয়ন আওয়ামীলিগের ঘোষিত নয়া কমিটির সভাপতি সঞ্জিত কুমার দাস গুপ্ত বলাই ও সাধারন সম্পাদক শাহজাহান কে ঘোষনায় প্রত্যাখান করে অবাঞ্চিত ঘোষণা করে দারোরা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, শ্রমিক লীগ, কৃষক লীগ, স্বেচ্চাসেবক লীগ, ও মুরাদনগর উপজেলা আমরা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমিটির সদস্যরা।

লোক দেখানো অবৈধ কাউন্সিলের মাধ্যমে রাতের অন্ধকারে মাত্র ১০মিনিটের মধ্যে সঞ্জিত কুমার দাস গুপ্ত কে সভাপতি ও জনবিচ্ছিন্ন বিতর্কিত আলোচিত ব্যাক্তি শাহজাহান কে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করায় গত শুক্রবার রাত ৯টায় তারা দারোরা মুরাদনগর সড়কে ঘন্টাব্যাপী অবরোধ, তীব্র নিন্দা, মিছিল করে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। এ অবস্থায় পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

পরে দারোরা খেলার মাঠে তারা প্রতিবাদ সমাবেশ করেন। এতে বক্তব্য রাখেন মুরাদনগর উপজেলা আমরা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমিটির সভাপতি সাংবাধিক শরিফুল আলম চৌধুরী দারোরা ইউপি আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জহিরুল হক আওয়ামীলীগ নেতা জহিরুল ইসলাম মেম্বার ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আলমগীর আলম সরকার ইউপি যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক কুদ্দুছ সরকার আওয়ামীলীগ নেতা ঠিকাদার আবু তাহের যুবলীগ নেতা জামাল হোসেন ছাত্রলীগ নেতা রুহুল আমিন সরকার আনিছুর রহমান চৌধুরী দুলাল হোসেন আওয়ামীলীগ নেতা ও ইউপি সদস্য নায়েব আলী হাবিবুর রহমান যুবলীগ নেতা আক্তার হোসেন ও রুহুল আমিন প্রমুখ। মুরাদনগর উপজেলা আমরা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমিটির সভাপতি শরিফুল আলম চৌধুরী নয়া ঘোষিত দারোরা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ কমিটির সাধারণ সম্পাদক শাহজাহানের বিরুদ্ধে ক্ষোভ ও দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, বিগত ৪মাস পূর্বে উপজেলা আওয়ামীলীগ অফিসে সাংবাদিক সম্মেলনে এ বিতর্কিত শাহজাহান কে আওয়ামীলীগ নেতা বলে পত্রিকায় তার নাম আসে। এ সাধারণ সম্পাদক আলোচিত শাহজাহান সেদিন সাংবাদিক কে মোবাইল ফোনে ও প্রকাশ্যে হুমকি দিয়ে ভবিষ্যতে শাহজাহান কে যেন আওয়ামীলীগ নেতা হিসেবে চিহ্নিত না করে তার জন্য নির্দেশ দেন। তিনি আরও বলেন, শাহজাহান মুরাদনগরের এমপি কায়কোবাদের কাছে আওয়ামীলীগ নেতা হিসেবে প্রকাশ না করার শর্তে পত্রিকায় লেখালেখি করার বাধা দেন। ১০মিনিটের মধ্যে তৈরী করা কমিটিকে মাত্র ৩মিনিট পরই অনাস্থা জ্ঞাপন করে তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করার কথা সত্যতা স্বীকার করে কুমিল্লা উঃ জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম সরকার বলেন, আমি বিষয়টি নিয়ে উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি হারুন আল রশিদ ও সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ কে গুরুত্ব সহকারে দেখার জন্য নির্দেশ দিয়েছি। আমার তৃণমূল নেতাকর্মীদের দাবী উপক্ষো করে যাতে এ আপত্তিজনক কমিটি শিগগিরই অনুমোদন না দেয় তার জন্যও বলেছি।

মুরাদনগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি হারুন আল রশিদ বলেন, কুমিল্লা উঃ জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম সরকারের সাথে আমি কথা বলে এই কমিটির ব্যাপারে পরবর্তী কি করণীয় তার যথাযথ পদক্ষেপ নেব। তবে তিনি আরও বলেন, এ কমিটি এখনও অনুমোদন হয়নি।

ওই বিক্ষোভ সমাবেশে তৃণমূল নেতাকর্মী ও বক্তারা ক্ষোভের সহিত বলেন, মুরাদনগর উপজেলা আওয়ামীলীগ কমিটির শূন্য পদে সঞ্জিত কুমার দাশ গুপ্ত কে মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক করে দেওয়ায় সঞ্জিত কুমার দাশ গুপ্ত সে সুযোগে তার উপর দায়িত্ব পরে মুরাদনগর দারোরো ইউনিয়ন কমিটি করে দেওয়ার। সুযোগ হাতছাড়া করেন নি বাবু সঞ্জিত কুমার দাশ গুপ্ত। সেই লক্ষ্যে উপজেলা আওয়ামীলীগের এই নেতা বিতর্কিত ওই শাহজাহান কে নিয়ে আতাত করে নিজেদের মধ্যে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হওয়ার জন্য অবৈধভাবে তাদের পছন্দ মতো লোক দিয়ে প্রতি ওয়ার্ডে কাউন্সিলার তৈরী করে। বক্তারা হুশিয়ার করে আরও বলেন, অবিলম্বে দারোরা ইউপি আওয়ামীলীগের কমিটি তথা সমস্ত ওয়ার্ড কমিটি ভেঙ্গে যাচাই বাছাই সাপেক্ষে দলের ত্যাগী নেতাকর্মীদের দিয়ে নতুন কমিটি করার দাবি জানান নইলে তারা কঠোর আন্দোলনের ঘোষনা দিয়েছেন। তারা আরও বলেন নেতারা রাতের আধারে এই কমিটি করার জন্য কাউন্সিলরদের কে দিয়ে ভোটাভোটির ব্যবস্থা করার কথা বলেন। বক্তারা বলেন ভোটাভোটির মাধ্যমে গেলে এখন যারা উপজেলার নেতা রয়েছেন তারা তাদের গ্রামের নেতাও হতে পারবেন না।

Check Also

করিমপুর মাদরাসায় বোখারী শরীফের খতম ও দোয়া

মো. হাবিবুর রহমান :– কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার করিমপুর জামিয়া দারুল উলূম মুহিউস্ সুন্নাহ মাদরাসায় ১৪৪০ ...

Leave a Reply