ইউএনও’র সরাইলপ্রেম

সরাইল (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি ॥
সারাদেশে ইউএনও’র সরকারি বাসভবনের সামনে সাধারণত ’নির্বাহী কর্মকর্তার বাসভবন’ লেখা থাকে। এ ক্ষেত্রে ব্যতিক্রম ঘটিয়েছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আবু সাফায়াৎ মুহম্মদ শাহে দুল ইসলাম। বাসভবনের সামনে তিনি লিখিয়েছেন ’সরাইল হাউজ’। বাসভবনের ভেতরে তিনি তৈরি করেছেন অনিন্দ্য সুন্দর বাগান। যেখানে শোভা পাচ্ছে নানা বৈচিত্রের ফুলসহ অনেক প্রজাতির গাছ।

ইউএনও যোগদানের পর ব্যাপক ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনাসহ বিভিন্ন কারনে আলোচনায় চলে আসেন। অনেকে তাঁর এ কাজের প্রশংসা করলেও কেউ কেউ এর বিরোধিতা করছেন। বলছেন, এটা ইউএনও’র বাড়াবাড়ি।

ইউএনও জানিয়েছেন, সরাইলের প্রতি প্রেম থেকেই তিনি এসব কাজ করে আছেন। সরাইলের মানুষের প্রতিটি ভালোকাজের সঙ্গেই তিনি আছেন। সরাইলের প্রতি টান থেকে তার সকল ভালো কর্মকান্ড অব্যাহত রাখবেন।

জানা গেছে, চলতি বছরের গত ১২ সেপ্টেম্বর ইউএনও পদে সরাইলে যোগদান করেন। যোগদানের পর থেকেই তিনি সৃজনশীল কাজের প্রতি মনযোগী হন। এর মধ্যে বাসভবনে সরাইল হাউজ লিখে আলোচিত হন। তিনি বিভিন্ন স্থানে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিল, মিষ্টির দোকান ও বেকারিতে জরিমানা। ওইসব দোকান থেকে বিভিন্ন ক্যামিকেল উদ্ধার করেন।

ইউএনও বলেন, মিষ্টির দোকান ও বেকারিতে যে ক্যামিকেলগুলো ব্যবহার হচ্ছিল তা মানবদেহের জন্য খুবই ক্ষতিকর। অভিযান চালাতে গিয়ে আমি নিজেও বিস্মিত হই। আমার এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এদিকে রাজনৈতিক দলের কয়েক নেতা এসব বিষয় নিয়ে ইউএনও’র প্রতি অনেক বিরক্ত। তবে সুশীল সমাজের লোকজন বলছেন, ইউএনও’র এ প্রচেষ্টা প্রশংসার দাবিদার। কেউ কেউ হয়ত নিজেদের স্বার্থ হাসিলে অপকথা বলছেন।

Check Also

আশুগঞ্জে সাজাপ্রাপ্ত আসামির মরদেহ উদ্ধার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :– ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে মো. হারুন মিয়া (৪৫) নামে দুই বছরের সাজাপ্রাপ্ত এক আসামির ...

Leave a Reply