মতলব উত্তর চরউমেদের ৪০পরিবারের গুচ্ছগ্রামে থাকেন মাত্র ৮ পরিবার

শামসুজ্জামান ডলার, মতলব উত্তর (চাঁদপুর) :স্থান নির্ধারনের ভুলে সরকারের মূল উদ্দেশ্য ভেস্তে যাচ্ছে

চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার জহিরাবাদ ইউনিয়নের চরউমেদে ৪০পরিবারের জন্য নির্মিত গুচ্ছগ্রামে থাকেন মাত্র ৮ পরিবার। সরেজমিনে ঘুরে ও স্থানীয়দের সাথে কথাবলে জানাগেলো, কেবলমাত্র স্থন নির্ধারনের ভুলে সরকারের কোটি টাকা খরচ করেও তা তেমন কোন কাজেই আসছেনা। ফলে সরকারের মূল উদ্দেশ্য ভেস্তে যাচ্ছে। ভুমিহীন, দুস্থ্য ও অসহায় ৪০ পরিবারের থাকার জন্য ২০১০ সালে পৃথক পৃথক ৪০টি টিনের ঘড় নির্মান করা হয়। প্রত্যেক পরিবারের জন্য স্বাস্থ্য সম্মত পায়খানা, গুচ্ছগ্রামের বাসিন্দাদের বিশুদ্ধ খাবার পানির জন্য ২ টি আর্সেনিকমুক্ত চাপকল এবং বসতিদের জন্য ১ টি কমিউনিটি সেন্টার নির্মিত হয়।

সরেজমিনে ঘুরে দেখাগেলো, ৪০টি পরিবার থাকার জন্য নির্মিত ৪০ ঘড়ের মধ্যে মাত্র ৮ টি ঘড়ে ৮ টি পরিবার থাকলেও বাকী ঘড়গুলো খালি পরে আছে। আর লোকজন না থাকার কারনে বাকীসব ঘড়গুলোও নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। অন্যদিকে, বর্তমানে টয়লেটের জন্য নির্মিত ছোট ছোট সেই ঘড়গুলোর অস্বিত্বই আর নাই। গুচ্ছগ্রামের বিভিন্ন স্থানে শুধু চাক ও স্লাপ টয়লেট স্থাপনের অবশিষ্টাংশ হিসাবে খোলা আকাশের নীচে পড়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে। ফলে, টয়লেটগুলো আর ব্যাবহার করা যাচ্ছে না। তাছাড়া এই গুচ্ছগ্রামে দু’টি চাপকল স্থাপন করা হলেও বর্তমানে তা অকেজো অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়।

স্থানীয় চরের দরিদ্র, ভুমিহীন ও অসহায়দেরকে সরকার বিনামূল্যে টিনের ঘড়সহ অন্যান্য সুবিধাদি দেয়া সত্বেও এগুলোতে লোকজন না থাকার কারন জানতে স্থানী বেশ ক’জনের সাথে কথা বলে জানা গেলো, প্রথমত এটি একটি চরাঞ্চল যা মূল ভু-খন্ড থেকে অনেক দূরে। আর এই চরে এমনিতেই অনেক জমি অনাবাদি অবস্থায় পড়ে আছে। অন্যদিকে, গুচ্ছগ্রামে বিভিন্ন গোষ্টি ও জাত মিলে থাকতে হয়। সর্বোপরি, এখানে নির্মিত গুচ্ছগ্রামে থাকার মতো ভুমিহীন লোক বিশাল এই চরাঞ্চলে তেমন একটা নেই বল্লেই চলে।

চরউমেদের গুচ্ছগ্রামের বাসিন্দা পরি বানু (৫৫) এর সাথে কথা হলে তিনি বলেন, বাবারে এহানে অনেক কষ্টে আছি। খাওনের পানি নাই, পায়খানা-পেশাব করনেরও অনেক সমস্যা। রাইতে বারে-ঘোড়ে (পায়খানায়) যাইতে ঝোপ ঝাড়িতে গেলেও দিনে খুবই অসুবিধা অয়।

এই গুচ্ছগ্রামের ব্যাপারে মতলব উত্তর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা আবু আলী মোঃ সাজ্জাদ হোসেন বলেন, যারা বরাদ্ধ পাওয়া ঘড় ফেলে অন্যত্র চলেগেছে তাদেরকে নোটিশ করা হয়েছে নিজ নিজ ঘড়ে ফিরে আসার জন্য, অন্যথায় তাদের নামের বরাদ্ধ বাতিল করা হবে।

Check Also

যে কোনো আন্দোলন-সংগ্রামের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে : বিএনপি

চাঁদপুর প্রতিনিধি :– চাঁদপুর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সাধারণ সভায় বক্তারা বলেছেন, বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম ...

Leave a Reply