দেবিদ্বারে দেশী প্রজাতির ছোট মাছ বিলুপ্তির পথে

মোঃ ফখরুল ইসলাম সাগর,দেবিদ্বার(কুমিল্লা)সংবাদদাতা :

দেবিদ্বারে উপজেলার নদ-নদী, খাল-বিল, হাওড়-জলাশয় থেকে দেশীও প্রজাতির মাছ প্রায় বিলুপ্তির পথে। দুই দশক আগেও দেবিদ্বারে নদী, বিভিন্ন গোমতী নদী খাল-বিল, হাওড়-বাওড় ও বিল-জলাশয়ে দেশীয় প্রজাতির মাছে ভরপুর ছিল। কালের বিবর্তনে নদ-নদী, খাল-বিল, বিল-জলাশয় ও হাওড়-বাওড়গুলো ভরাট হয়ে শুকনো মৌসুমে পানিশূন্য হয়ে যায়। প্রাকৃতিক ভাবে বংশ বিস্তার করতে না পারায় দেশি প্রজাতির মাছ বিলুপ্ত হয়ে যাচ্ছে। এছাড়া বর্ষা কালে প্রত্যাš গ্রাম অঞ্চলের খালে বেলের জাল দিয়ে রেণু পোনা ও ডিমওয়ালা মা মাছ ধরার কারণেও এ সর্বনাশ দেখা দিয়েছে। অর্থলোভী মাছ শিকারিরা কারেন্ট জাল দিয়ে আইন অমান্য করে অবাধে রেণু পোনা ও ডিমওয়ালা মাছ ধরছে। এতে বিভিন্ন প্রজাতির মাছের পরবর্তী বংশবিস্তার শূন্যের কোঠায় এসে ঠেকেছে। বিশেষ করে মাছ ডিম ছাড়ার সময়ে এবং বর্ষাকালে রেণু পোনা ধরা সম্পূর্ণ নিষেধ থাকলেও তা কেউই মানছে না। কিন্তু বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতার কারনে এসব মাছের অনেক প্রজাতি এখন আর চোখে পড়ে না। জানা গেছে, , বাজারি, টাকি, কই, চিংড়ি, টেংরা, চিতল, মাগুর, শিং, মলিয়া, খইয়া,চেদ্রি,পুটি,চান্দা,টেংরা,কালিবাউশ, বাইল্যা, সরপুটি, পাবদা, মহাশোল, খসলা ইত্যাদি মিঠা পানির মাছ স্বাদে অতুলনীয়। গ্রাম-গজ্ঞের মানুষ দেড়যুগ আগেও নদ-নদী, খাল-বিল, বিল-জলাশয় ও হাওড়-বাওড়গুলো থেকে পর্যাপ্ত পরিমাণ এসব মাছ আহরণ করত। অনেকে পারিবারিক চাহিদা মিটিয়ে বাজারে বিক্রি করে সংসারের খরচ চালাতো। কিন্তু এখনকার পরিস্থিতিও প্রেক্ষাপট সম্পূর্ণ ভিন্ন। কিছু কিছু প্রজাতির মাছ এখনও কোন রকমে টিকে আছে, তাও এতই র্দুলভ যেন মনি-মানিক্যের টুকরো। বাজারে গিয়ে এসব মাছের দাম শুনে মধ্যবিত্ত মানুষদের মাটিতে হুমড়ি খেয়ে পড়ার মতো অবস্থা হয়।

এ ব্যপারে দেবিদ্বার মৎস্য কর্মকর্তা জানান, গ্রাম অঞ্চলের খাল-বিলে কিছু অসাধু মাছ ব্যবসয়ীরা বেলের জাল দিয়ে ডিমওয়লা এবং রেনু পোনা ধরে ফেলার কারন ওপুকুর গুলোতে বিষ দিয়ে মাছ ধরার কারনে দেশিও প্রজাতির ছোট মাছ উৎপাদন কমে যাচ্ছে।তবে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের মৎস্য অভিযান ধীরগতির কারণে রেণু পোনা ধরা অব্যাহত থাকায় দেশিও প্রজাতির ছোট মাছ দিন দিন বিলুপ্তির পথে।

Check Also

নিউইয়র্কের চিকিৎসক ফেরদৌস খন্দকারে দেওয়া খাদ্য পাচ্ছে দেবিদ্বারের ১ হাজার পরিবার

দেবিদ্বার প্রতিনিধিঃ করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে লকডাউনের কারনে কর্ম হারিয়ে অসহায় হয়ে পড়েছে দেশের হাজার হাজার ...

Leave a Reply