কুসিক নির্বাচনে মনোনয়ন পত্র সংগ্রহের প্রথম দিনে ফরম সংগ্রহের হিড়িক

কুমিল্লা, ২৪ নভেম্বর ২০১১ (কুমিল্লাওয়েব ডট কম) :

কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর বুধবার ছিল মনোনয়নপত্র সংগ্রহের প্রথম দিন । এদিন নির্বাচনে অংশ গ্রহনে ইচ্ছুক প্রার্থীদের মধ্যে ফরম সংগ্রহের হিরিক পড়েছে। মনোনয়নপত্র বিলির প্রথম দিনেই কাউন্সিলর পদে মনোনয়নপত্র বিলি হয়েছে ৭৮টি। তবে মেয়র পদে কেউ মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেনি।

সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থীরা কবে মনোনয়ন সংগ্রহ করবেন তা নিয়ে নানা গুঞ্জন রয়েছে । কে প্রার্থী হবে, কে হবেনা, এ নিয়ে রয়েছে ভিন্ন মত । দলের সমর্থন কে পাবে, এর উপর নির্ভর করছে চূড়ান্ত মনোনয়ন।

বিএনপির নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়, বিএনপির মহাসচিব মীর্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের বিএনপির সম্ভাব্য দুই প্রার্থী সদ্য বিদায়ী মেয়র মনিরুল হক সাক্কু ও জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হাজী আমিন উর রশিদ ইয়াছিনকে বুধবার রাত ৯টায় বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার গুলশান কার্যালয়ে ডেকেছেন। এজন্য দুজনই ঢাকায় অবস্থান করছেন।

আমিন-উর-রশিদ ইয়াছিন জানান, বিএনপি নির্বাচনে যাবে কি যাবে না তা আজ জানিয়ে দেয়া হবে। আমার আশঙ্কা বিএনপি নির্বাচনে যাবে না।

মনিরুল হক সাক্কু জানান, কেন্দ্রীয় বিএনপি কি সিদ্ধান্ত দেবে তা জানি না। যাওয়ার পর বোঝা যাবে। দল নির্বাচনে না গেলেও মনিরুল হক সাক্কু নির্বাচনে অংশ নিতে পারেন বলে গুঞ্জন রয়েছে।

এদিকে আওয়ামীলীগের সমর্থিত প্রার্থী বিষয়ে দলের সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সবুজ সঙ্কেত দিয়ে জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক অধ্যক্ষ আফজল খানকে নির্বাচন করতে বললেও দলে অভ্যন্তরিন কোন্দল বেশ চাঙ্গা। আবার এই প্রার্থীর সবুজ সংকেতের ব্যপারে দলের মধ্যে রয়েছে ভিন্ন মত। একটি জাতীয় দৈনিকে এ সম্পর্কিত সংবাদ প্রকাশ করা হলেও, দলটির নির্ভরযোগ্য কোন সূত্র থেকে এর সত্যতা প্রমান করা য়ায়নি। কেন্দ্র থেকে কোন প্রার্থীকে মনোনয়ন দিয়েছে বলেও নিশ্চিত করা যায়নি ।

স্থানীয় পর্যায়ে দ্বন্দ্ব থাকার কথা স্বীকার করে অধ্যক্ষ আফজল খান জানান, নেত্রী যখন বলেছেন, আমি সিগন্যাল পেয়েছি। কেন্দ্রের দায়িত্ব এখন সবাইকে ঠিক করা। তিনি বলেন, আমি নিজে থেকে দলের মধ্যে সমঝোতায় গেলে দাবি দাওয়া উঠতে পারে।

এদিকে নির্বাচন কমিশন গত দুইদিন ধরে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন এলাকায় মাইকিং করে বিলবোর্ড ব্যানার ফেস্টুন নামিয়ে ফেলার নির্দেশ দিয়েছে। ইতিমধ্যে অনেক সম্ভাব্য প্রার্থীকে নির্বাচনী ফেস্টুন ও ব্যানার নামিয়ে ফেলতে দেখা গেছে।

আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা আবদুল বাতেন জানান, নির্বাচনের জন্য ৭৮জন কাউন্সিলর প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। বিনামূল্যে এ মনোনয়নপত্র দেয়া হচ্ছে। তিনি জানান, নির্বাচন সুষ্ঠূ করার জন্য সম্ভাব্য সব ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply