ক্যান্টনমেন্টের বাড়ি থেকে বেগম জিয়াকে উচ্ছেদের বর্ষ পূর্তী : মালয়েশিয়া বিএনপির প্রতিবাদ সভা

এম.আমজাদ চৌধুরী রুনু মালয়েশিয়া প্রতিনিধিঃ

গত ১৩ই নভেম্বর ক্যান্টনমেন্টের বাড়ি থেকে উচ্ছেদ করা হল বেগম খালেদা জিয়াকে,১৩ই নবেম্বর মালয়েশিয়া হোটেল মাতাই সন্ধা ৭টায় বিএনপি নেতা ফরিদুর রহমান ফরিদের পরিচালনায় বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী সেচ্ছা সেবক দলের সিনিয়র সহসভাপতি ও মালয়েশিয়া বিএনপি আহবায়ক মাহবুব আলম শাহ অনুষ্ঠানের সভাপতি করেন।

প্রধান অতিথি হিসেবে টেলিকনফ্যারেন্সে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল স্থায়ী কমিটির সন্মানিত সদস্য ডঃ মঈন খান। তিনি বলেন বেগম খালেদা জিয়াকে ঢাকা সেনানিবাসের বাসভবন থেকে জোর করে নামিয়ে দেয়া হয়েছে (বাংলাদেশ সময় শনিবার সকাল ৭টা থেকে শুরু হয় এই অভিযান ) শতাধিক র‌্যাব পুলিশ দিয়ে ঘেরাও করে গোয়েন্দা সংস্থা ও এম ইওর লোকজন বাড়ির মধ্যে জোর করে ঢুকে তাদের ইচ্ছা মত টানা হেচরা করে মালপত্র বিনষ্ট করেছে। বেগম খালেদা জিয়াকে গাড়িতে করে নিয়ে গেছে, শেখ হাসিনার গনতন্ত্রের প্রথম শিকার পিলখানার আর্মি অফিসার এবারে পেলেন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া।

১৯৮১ সালে শহীদ জিয়াউর রহমান মুলত শেখ হাসনাকে দেশে ফিরিয়ে এনে, আওয়ামীলীগের রাজনীতির পূর্নসুচনা করেছিলেন। কেননা শেখ মজিব বাকশাল গঠন করে আওয়ামীলীগ সহ-দেশের সকল রাজনৈতিক দল নিষিদ্ধ করে,একনায়ক তন্ত্র কায়েম করেছিলেন। অথচ শেখ হাসিনা দেশে ফেরার ১৩ দিন পরে আওয়ামীলীগের ষড়যন্ত্রে রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানকে হত্যা করা হয়। এরপরে শহীদ জিয়ার পরিবারকে ৬ শহীদ মইনুল রোডের বাড়ি ৯৯ বছরের জন্য লীজ দিয়েছিলো তৎকালীন সরকার। আর ২৯ বছর পরে ওই বাসা থেকে খালেদা জিয়াকে উচ্ছেদ করে। আওয়মীলীগ সরকারের পরিকল্পনায় পিলখানার নিহত অফিসারের পরিবারকে পূর্নবাসনের কথা বলা হয়েছে। সেলুকাস,কি বিচিএ দেশ এটি! কিভাবে কাটা দিয়ে কাটা তোলা যায়-তা দেখিয়ে দিলো বর্তমান এই তাবেদার সরকার।

আরও বক্তব্য রাখেন মালয়েশিয়া সদস্য সচিব মোশারফ হোসেন,সাংগঠনিক সম্পাদক হাবিবুর রহমান রতন, বিএনপি নেতা মোঃ জাফর,সিনিয়র নেতা মজনু মুনশী, মালয়েশিয়া বিএনপি নেতা এস এম বশির আলম, কাজী সালাউদ্দিন, মোঃ শাওন, জলিল মৃধা, সালাউদ্দিন খান, ডাঃ শামিম,শাহজাহান হাওলাদার, আমিনুল ইসলাম রতন, মাজুযায়া শাখা সভাপতি আক্তারুজ্জামান, তারেক রহমান সংগ্রাম পারশোধের আহবায়ক ওয়ালীউল্লাহ জাহিদ, যুগ্ন আহবায়ক সিরাজুল মাহমুদ, মালয়েশিয়া যুবদল মহানগর কমিটির সভাপতি সিরাজুল ইসলাম সুজন, সঃ সম্পাদক খানমহাম্মদ মনির, এনায়েত হোসেন,দৈনিক দিনকাল মালয়েশিয়া প্রতিনিধি মোহাম্মদ আলী রেজা।

এই তাবেদার সরকার প্রচার করছে-এই বাড়িটি ভেঙ্গে খুব শীঘ্রই পিলখানার নিহত সেনা কর্মকর্তাদের পরিবারের জন্য ফাট তুলে বরাদ্দ দিবে। সেনাবাহিনীকে আজ অস্র হিসেবে ব্যবহার করে দেশবাসীর কাছে মুলত তাদের ভাবমুর্তি নষ্ট করলেন। অনেকেই বলেছেন এই ধরনের অমানবিক কার্যক্রমের কারনে সরকার পতনের আন্দোলন বেগমান হবে এবং হাসিনা সরকার পদত্যাগে বাধ্য হবে। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সুস্থতা কামনা, শহীদ জিয়ার বেহেস্ত বাসী হউক, তারেক রহমান ও কোকোর নির্যাতিত জিবন হেফাজত করেন আল্লাহ দেশবাসীর শান্তি কামনা করে দোয়ার মাধ্যমে প্রতিবাদ সভা শেষ হয়।

Check Also

রিয়াদে জ্যাবের ‘অমর একুশে’ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

ষ্টাফ রির্পোটার :– “অমর একুশের চেতনায় গন মানুষের মনে জেগে উঠুক উজ্জলতা উৎকৃষ্টতা” শীর্ষক আলোচনা ...

Leave a Reply