বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম আব্দুল হাই মঞ্জুর স্মরণ সভা ও দোয়া অনুষ্ঠান

কুমিল্লা, ০৯ নভেম্বর ২০১১ (কুমিল্লাওয়েব ডট কম) :

বাংলাদেশ জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পরিষদের কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি ও কুমিল্লা জেলা সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম আব্দুল হাই মঞ্জুর স্মরণ সভা ও দোয়ার অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর নির্বাহী কমিটির সদস্য মাওলানা আবু তাহের মোহাম্মদ মাছুম বলেন- ইসলামে আনুষ্ঠানিকতা বর্জিত অন্তরে প্রতি নিয়ত মরহুম মঞ্জুর জন্য আমাদের কে দোয়া করতে হবে। স্মরণ সভার চেয়ে দোয়ার অনুষ্ঠানই শ্রেয়। আব্দুল হাই মঞ্জু- তার জীবদ্দশায় প্রমান করে গেছেন দেশের অকুতভয় বীর মুক্তিযোদ্ধারা ইসলামের বিরুদ্ধে ছিলেন না। একটি মহল মুক্তিযোদ্ধাদের কে ইসলামের প্রতিপক্ষ হিসেবে দাঁড় করাতে চায়। একজন মুক্তিযোদ্ধা হয়ে তিনি আমৃত্যু দ্বীনি কাজে তার পুরো সময় টুকু ব্যয় করেছেন। তিনি দ্বীন বুঝেছেন এবং তদনুযায়ী কাজ করে গেছেন। তিনি বলেন- এ মানসিকতা নিয়ে আমাদের কে জীবন অতিবাহিত করতে হবে। গত মঙ্গলবার কুমিল্লা সদর দক্ষিন উপজেলা আয়োজিত ভারপ্রাপ্ত আমীর এইচ এম নুরুল্লাহর সভাপতিত্বে লাকসাম ফয়েজগঞ্জ সিনিয়র মাদ্রাসা ময়দানে ইসলামী আন্দোলনের নিবেদিত প্রান বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাই মঞ্জুর স্মরণ সভায় প্রধান অতিথি এ কথা বলেন। অন্যান্যদের মধ্যে আলোচনা করেন, কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আমীর বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সাত্তার, জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পরিষদের কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি ফজলুল হক, কুমিল্লা জেলা সহ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা সাংবাদিক আমিনুল হক, ঢাকা মহানগরী শূরা সদস্য এটি এম সিরাজুল হক, মুফতি এ কে এম ফারুক সিদ্দিকি, লাকসাম উপজেলার সাবেক আমীর মাষ্টার হাবীব উল্লাহ, কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার আলীগের প্রচার সেক্রেটারী আব্দুর রহমান নেভী, বিএনপির উপজেলা জয়েন্ট সেক্রেটারী হোসাইন মো: ইকবাল মজুমদার দুলাল, বিএনপি নেতা মো: আবু তাহের, দক্ষিণ জেলা জামায়াতের জয়েন্ট সেক্রেটারী সাবেক চেয়ারম্যান আবু বাশার সহ উপজেলার সকল ইউনিয়ন সভাপতিগন বক্তব্য রাখেন। প্রধান অতিথি আরোও বলেন- আল্লার নেক বান্দাদের সম্পর্কে যত বেশী আলোচনা হবে আল্লাহর রহমত ততবেশী বর্ষিত হবে। মৃত ব্যক্তির চেয়ে জীবিতদের বেশী নেক কাজে মশগুল হওয়া প্রয়োজন। যারা চলে গেছেন তাদের নেক কাজ করার সুযোগ নেই। আমাদের যতটুকু সময় পাবো ততটুকু নেক কাজে ব্যয় করতে হবে। বিশেষ অতিথি আব্দুস সাত্তার বলেন- মরহুম আব্দুল হাই মঞ্জু দ্বীনি আন্দোলনের একজন সিপাইসালার, সমাজ সেবক, সমাজ সংস্কারক, বহু প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা তার ছিল ভূমিকা, অপরদিকে সাংবাদিকতা, লিখক হিসেবেও তার খ্যাতি ছিল। অমায়িক সুন্দর চরিত্রের অধিকারী মঞ্জুর আদর্শের প্রতি মানুষের অনুরাগের বহি: প্রকাশ আমাদের উপস্থিতি। একজন আল্লাহর গোলাম নবী (স:) আদর্শের প্রতি অগাধ বিশ্বাসের ভিত্তি নিজের নির্মোহ জীবন গড়ে গেছেন। তার জীবনে তিনি উচ্চাবিলাশী ছিলেন। সম্পদ অর্জনের ছিল নির্লিপ্ত। তিনি সহজ সরল ভাবে জীবন যাপন করেছেন। সমাজ পরিবর্তনের দ্বীনি কাজের প্রসারের যে কাজ করে গেছেন আমরাও তার চিন্তা চেতনা মাপিক কাজ করে পারলেই আমাদের আলোচনা সভা স্বার্থক হবে। তিনি তার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামণা করেন ও তার পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পরিষদের কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি ফজলুল হক বলেন- আব্দুল হাই মঞ্জু জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পরিষদের অর্পিত দায়িত্ব তথা চট্রগ্রাম বিভাগের দায়িত্ব আমৃত্যু পালন করে গেছেন। তিনি যে আল্লার প্রিয়বান্দা ছিলেন তা আজকের বক্তাদের বক্তব্য শুনে আমি অবিভূত হয়েছি। আমি তার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করি। সভাপতি মাওলানা নুরুল্লাহ তার বক্তব্য তার ফেলে যাওয়া কাজ এগিয়ে নেয়ার আহবান জানান। এলাকায় মরহুমের নামে একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ইসলামী পাঠাগার ও কমপ্লেক্স করার জন্য মরহুমের পরিবারের প্রতি অনুরোধ করেন। সভা শেষে মরহুম আব্দুল হাই মঞ্জু বিদেহী আত্মার দোয়া অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন কেন্দ্রীয় নেতা মাওলানা এটি এ মাছুম।

Check Also

দেবিদ্বারে অগ্নিকান্ডে ১কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি

দেবিদ্বার প্রতিনিধিঃ– কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার ফতেহাবাদ ইউনিয়নের জগন্নাথপুর গ্রামে রান্না ঘরের গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরনে ১৫টি ...

Leave a Reply