কচুয়ায় জমি খারিজে গড়িমসির অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক :
কচুয়া উপজেলার ভারপ্রাপ্ত সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বিরুদ্ধে জমি খারিজে গড়িমসির অভিযোগ উঠেছে। পৌরসভাধীন চাড়লখিল গ্রামের অধিবাসী মোঃ আলী আশ্রাফের পক্ষ থেকে এসব অভিযোগ উঠেছে।

অভিযোগ মর্মে জানা গেছে, আলী আশ্রাফ তার খরিদকৃত সম্পত্তি খারিজ করার জন্য গত মাস তিনেক পূর্বে উপজেলা সহকারী কমিশনার বরাবর আবেদন দাখিল করেন। কিন্তু সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ তার জমি খরিজে নানা রকম অজুহাত তুলে তা খারিজে কালক্ষেপন করে আসছে। অভিযোগে আরো উল্লেখ আলী আশ্রাফের পৃথক দুটি দাগে খরিদ সূত্রে মালিকিয় এসব সম্পত্তি ভূয়া ও কাল্পনিক দাবী তুলে একটি মহল ভোগ দখলের অপচেষ্টা চালিয়ে আসছে।

প্রকাশ আলী আশ্রাফ পূর্ব সহদেবপুর ইউনিয়নের ভূঁইয়ারা মৌজার এসএ নং- ১২৪ তিনি ৩৩০ নং খতিয়ান ভূক্ত সাবেক ১৬১ দাগে মোট ২৭ শতাংশ সম্পত্তি ভূঁইয়ারা গ্রামের জিয়াউর রহমান গংদের নিকট থেকে খরিদ করে ভোগ দখল করে আসছে। এছাড়া একই ইউপির দোয়াটি মৌজার মনির হোসেনের মালিকানাধীন ১৫ শতাংশ সম্পত্তি খরিদ করে ভোগ দখল করে আসছে। পৃথক দাগে খরিদকৃত এসব সম্পত্তির খারিজ করার জন্য যথাযথ শর্ত বা নিয়ম মেনে আবেদন করলেও সংশ্লিষ্ট বিভাগের লোকজনরা এ নিয়ে তালবাহানা করায় আলী আশ্রাফের জমি খারিজ অনেকটা অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। এ ঘটনায় আলী আশ্রাফ ক্ষুব্দ হয়ে পড়েছেন। তিনি বলেন এক মাসের মধ্যে জমি খারিজ সম্পাদন করার কথা থাকলে ও সংশ্লিষ্ট বিভাগ তা না করে তাকে হয়রানী করে আসছে। তিনি আরো বলেন, উপজেলা সদর ভূমি অফিসের নাজির মফিজুল ইসলাম ও পিয়ন বিল্লাল হোসেন বিশেষ সুবিদার বিনীময়ে একটি কুচক্রীমহলের সাথে আতাঁত করে তাদের সিনিয়রদের দিয়ে এ খারিজ কাজ বন্ধ করে রেখেছে। তিনি এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

Check Also

যে কোনো আন্দোলন-সংগ্রামের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে : বিএনপি

চাঁদপুর প্রতিনিধি :– চাঁদপুর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সাধারণ সভায় বক্তারা বলেছেন, বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম ...

Leave a Reply