সরাইলে দুই মাসেও অপহৃত স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ

আরিফুল ইসলাম সুমন, সরাইল (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) ॥
অপহরনের দুইমাস পেরিয়ে গেলেও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার পাকশিমুল ইউনিয়নের ফতেপুর গ্রামের অষ্টম শ্রেনীর স্কুল ছাত্রী সালমা-(১৪)কে উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। বিষয়টি কেন্দ্র করে জনমনে সৃষ্টি হয়েছে নানা সংশয় সন্দেহ। অপহৃতার পরিবারের অভিযোগ, রহস্যজনক কারণে পুলিশ আসামিদের গ্রেফতার করছে না। উল্টো প্রভাবশালী আসামীরা বাদীকে মামলা তুলে নিতে হুমকি দিচ্ছে।

নিরুপায় হয়ে স্কুলছাত্রীর অসহায় পিতা মো. শিরু মিয়া মেয়েকে উদ্ধারের জন্য গত মঙ্গলবার পুলিশ সুপারের কাছে লিখিত আবেদন করেন। মামলাসূত্রে জানা যায়, ফতেপুর গ্রামের শিরু মিয়ার কন্যা ও পাকশিমুল হাজী শিশু মিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেনীর ছাত্রী সালমা-(১৪) কে স্কুলে আসা যাওয়ার পথে প্রায়ই উত্যক্ত করত একই গ্রামের মৃত ছায়েদ মিয়ার পুত্র বাবুল-(২৪)। এ কারণে সালমার স্কুলে যাওয়া বন্ধ হয়ে পড়ে। কিন্তু বখাটে বাবুল সালমাকে নানাভাবে উত্যক্ত করে আসে। এসব বিষয়ে বাবুলের অভিভাবকদের কাছে নালিশ করেও কোন সুফল পাওয়া যায়নি।

গত ২৪ আগষ্ট রাতে (রমজান মাসে) সেহরী খাওয়ার পর সালমা থালা-বাসন নিয়ে বাড়ির পাশে টিউবওয়েলে যায়। পূর্ব থেকে উৎপেতে থাকা বাবুল তার সহযোগীদের নিয়ে সালমাকে অপহরন করে।

এ ঘটনায় সালমার পিতা শিরু মিয়া বাদী হয়ে গত ২৭ আগষ্ট অপহরনকারী বাবুল ও তার সহযোগী আবু অলি-(৩৩), আব্দুল হাই-(২২), সবল মিয়া-(৩৬), শিরু মিয়া-(৪৩) ও আক্তার মিয়া-(১৬) কে আসামী করে সরাইল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন।

সালমার পিতা শিরু মিয়া বলেন, পুলিশ সালমাকে উদ্ধারের জন্য কোন পদক্ষেপ গ্রহন না করে আসামীদের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করে চলেছেন।

এ ব্যাপারে সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ গিয়াস উদ্দিন বলেন, আমরা এই মামলার এক আসামীকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠিয়েছি। অন্যান্য আসামীদের গ্রেফতারসহ ভিকটিমকে উদ্ধারের জন্য চেষ্টা অব্যাহত আছে।

Check Also

আশুগঞ্জে সাজাপ্রাপ্ত আসামির মরদেহ উদ্ধার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :– ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে মো. হারুন মিয়া (৪৫) নামে দুই বছরের সাজাপ্রাপ্ত এক আসামির ...

Leave a Reply