নাঙ্গলকোটে অস্ত্রসহ গ্রেফতারকৃত ১০ ডাকাতের ৪দিনের রিমান্ড মঞ্জুর

স্টাফ রিপোর্টার::: নাঙ্গলকোটে চাঞ্চল্যকর ডাকাতির ঘটনায় গ্রেফতারকৃত শীর্ষ ডাকাত আবদুর রবকে পুলিশী জিজ্ঞাসাবাদে বেরিয়ে এসেছে অনেক লোমহর্ষক তথ্য। ডাকাত আবদুর রব নাঙ্গলকোট উপজেলার আজিয়া পাড়া গ্রামের মৃত আবদুল হাইয়ের পুত্র। প্রথম অবস্থায় রব গ্রামে ছোট – খাটো চুরি ছিনতাইয়ের ঘটনায় অভিযুক্ত হলেও বড় ধরনের চুরি ডাকাতির সাথে তার সম্পৃক্ততা ছিলনা। গ্রামে টিউবয়েল চুরি ও কৃষকদের শেলু টিউবওয়েলে ব্যবহৃত মটর চুরিতে সে বেশ সিদ্ধহস্ত। একটি মোটর চুরির ঘটনায় রব পুলিশের হাতে গ্রেফতার হওয়ার পর জেল হাজত যেতে হয় তাকে। সেখান থেকে মুক্তি পেয়ে ড্রাইভিং শিখে এবং আন্তঃ জেলা গাড়ী চুরিতে যোগ দেয়। প্রায় রাতের বেলায় গাড়ী নিয়ে বাড়ী ফিরত। গ্রামের লোকজন প্রয়োজনে- অপ্রয়োজনে রবের বাড়ীতে যেতে চাইলে সে সরাসরি না করত। রবের মা মানুষদের গালাগালি করে তার বাড়ীতে প্রবেশে বাধা দিত। রব চুরি ছিনতাই ছেড়ে ড্রাইভিং করার কারণে স্বস্তি ফেলে আসছিল গ্রামবাসী। সাধারণ মানুয়ের সাথে ভদ্র ব্যবহার করায় মানুষের মনে তার সর্ম্পকে ধারনাও পাল্টে যায়। কিন্তু ভিতরে-ভিতরে সে যে এত বড় শীর্ষ ডাকাত হয়ে গেছে,এলাকার মানুষের সে সম্পর্কে কোন ধারনাই ছিলনা। নাঙ্গলকোটে গত ০২ অক্টোবর ভয়ংকর ডাকাতির ঘটনায় সে আটক হলে, তার বাড়ী হতে পুলিশ বিপুল পরিমান মালামাল উদ্দার করে। উদ্ধারকৃত মালামালের মধ্যে শুধু শাড়ী ছিল ৯০টি, এছাড়া দামী গাড়ী বদলিয়ে বিলাসী চলাফেরা ছিল তার হবি। তার আয়ের উৎস সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করলে সে বলতো আল্লাহ মিলায়। সে রেলের পাত খুলে ট্রেন দুর্ঘটনা ঘটিয়ে যাত্রীদের সর্বস্ব কেড়ে নেয়ার ঘটনায় ১৯৯৮ সালে সে অভিযুক্ত হয়েছিল।
কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে গত ২ অক্টোবর নান্দেশ্বর গ্রামে সংঘটিত চাঞ্চল্যকর ডাকাতির সময় জনতা এবং পুলিশের হাতে আটককৃত ১০ ডাকাতের ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। এলাকাবাসী ডাকাতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করে আজ মানবন্ধনের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply