নাঙ্গলকোটে অস্ত্রসহ ১০ আন্তঃজেলা ডাকাত গ্রেফতার; মহিলাসহ আহত-১০

জামাল উদ্দিন স্বপন:

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে এক প্রবাসীর বাড়ীতে দুর ডাকাতি সংঘটিত হয়েছে। ডাকাতদের হামলায় মহিলা সহ অন্তত ১০ জন আহত হয়। উপজেলার মৌকরা ইউপির নান্দেশ্বর গ্রামের দক্ষিণ আফ্রিকা প্রবাসী মীর মাহবুবুল হোসাইনের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। ডাকাত দল নগদ টাকা স্বর্ণালংকার সহ প্রায় ১৫ লক্ষাধিক টাকার মালামাল নিয়ে যায়।

এদিকে গৃহকর্তীর বুদ্ধিমত্তা ও এলাকাবাসীর সহযোগিতায় আন্তঃজেলা ডাকাতদলের ১০ ডাকাতকে আটক করেছে পুলিশ। এ সময় পুলিশ ডাকাতদের ব্যবহৃত ২টি বন্দুক ১টি এয়ারগান, ১৪ রাউন্ড গুলি, ১টি ছোরা, ১টি খুর, তালা ভাঙ্গার ৩টি সাবল, ডাকাতদের ৩টি মোবাইল ফোনসহ তাদের কাছ থেকে লুন্ঠিত ১টি ল্যাপটপ ও ২টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করেন।

স্থানীয় এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ওইদিন গভীর রাতে ১০/১৫ জনের সশস্ত্র ডাকাত দল দরজা ভেঙ্গে ওই প্রবাসীর ঘরে ঢুকে বাড়ির লোকজন বেঁধে মারধর করে ঘরের ৫টি রুমের আলমারী ভেঙ্গে নগদ প্রায় ৩ লাধিক টাকা, ১৫ ভরি স্বর্ণালংকার, ১টি ল্যাপটপ, ৩টি মোবাইল সেট সহ আনুমানিক ১৫ লাধিক টাকার মালামাল নিয়ে পালিয়ে যায়।

এ সময় ডাকাতের হামলায় গৃহকর্তা মনির হোসেইন (২৫), তার মা ধনু বিবি (৭৫), বোন রেনু বেগম (৩৫) এবং ভাবী হোসনেয়ারা বেগম (২২) , আলমগীর (২৮), রুবেল(২৫), ছালেহ আহম্মদ মেম্বার (৩০) সহ ১০ জন আহত হন।

এদিকে ডাকাতির সময় বাড়ির গৃহকর্তী কৌশলে তার ভাই নাঙ্গলকোট পৌরসভা কাউন্সিলর আবু জাফরকে ফোন করলে সে থানা পূলিশকে অবহিত করে এবং মসজিদের মাইকে ঘোষণা দিয়ে লোকজন নিয়ে ডাকাতদের ধাওয়া করেন। পরে পুলিশ এবং এলাকাবাসী ঘটনাস্থল থেকে প্রায় ৩ কিলোমিটার দুরবর্তী জোড্ডা ইউপির শ্রীহাস্য তালতলা নামক স্থানে ঘেরাও করে অস্ত্র সহ ১০ ডাকাতকে আটক করে।

আটককৃত ডাকাতরা হলেন-লীপুর জেলার রামগঞ্জের করপাড়া গ্রামের আবু তাহেরের দুই ছেলে কামাল (২৫) ও মনির হোসেন (২৭), একই গ্রামের মৃত আমির হোসেনের ছেলে আবদুল মন্নান (৩২), গাজিপুর গ্রামের জালাল উদ্দিনের ছেলে মহসিন (৪২), রামচর গ্রামের হোয়াচ মিয়ার ছেলে রশিদ (৩০), কালুপুর গ্রামের মৃত রহিম ব্যাপারীর ছেলে হোসেন (৩২), মুন্সিগঞ্জ জেলার শ্রীনগর থানার মৃত নাছির উদ্দিনের ছেলে সাদ্দাম হোসেন (৩২), বরিশাল জেলার মেহেদীগঞ্জের কুটের হাট গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে মনির হোসেন (২৪), চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জের দওরা গ্রামের আবদুল হালিমের ছেলে আনোয়ার (৩৫) এবং কুমিল্লার জেলার সদর িেদণর চন্ডিপুর গ্রামের সৈয়দ আলীর ছেলে শাহআলম (৩৭)।

এ দিকে কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাজিদ হোসেন ঘটনাস্থল থানা পরিদর্শন করেন।

Check Also

কুমিল্লায় তিন গৃহহীন নতুন ঘর পেল

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ– কুমিল্লা সদর উপজেলায় গ্রামীণ উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে ৪নং আমড়াতলী ইউনিয়নের গৃহহীন নুরজাহান বেগম, ...

Leave a Reply