পুজা সামনে রেখে সড়ক ডাকাতদল এখন বেপরোয়া

আরিফুল ইসলাম সুমন, সরাইল :

শারদীয় দূর্গা উৎসবকে সামনে রেখে সড়কে সংঘবদ্ধ ডাকাতদল এখন বেপরোয়া। তারা সংঘটিত হয়ে একের পর এক ডাকাতির ঘটনা ঘটিয়ে চলেছে। ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলের ইসলামাবাদ নামকস্থানে গত শনিবার রাত ৮টার দিকে ডাকাতদল যানবাহনে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে অস্ত্রসহ তিন ডাকাতকে গ্রেফতার করেছে সরাইল থানা পুলিশ। এছাড়া সরাইল-নাসিরনগর-লাখাই মহাসড়কে যানবাহনে প্রায়ই ডাকাতির ঘটনা ঘটছে। অতিসম্প্রতি ওই সড়কে ডাকাতির পাশাপাশি সিএনজি অটোরিকশা ছিনতাইয়ের ঘটনাও ঘটে। থানায় চিহ্নিত ডাকাতের বিরুদ্ধে মামলা দিলেও রহস্যজনক কারণে পুলিশ গ্রেফতার করছে না। এলাকার চিহ্নিত ডাকাতদের বিরুদ্ধে সরাইল উপজেলার কালীকচ্ছ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। কিন্তু অজানা কারণে পুলিশ এসব ডাকাতের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নিচ্ছেন না। বিষয়টি নিয়ে এলাকায় নানা গুঞ্জন রয়েছে। অনেকে অভিযোগ করে বলেন, এসব ডাকাতদের সঙ্গে থানাপুলিশের সখ্যতা রয়েছে। বর্তমানে চিহ্নিত ডাকাতরা এলাকায় প্রকাশ্যে ঘুরছে। পূজামন্ডবে আগত নারী-পুরুষরা রয়েছেন আতঙ্কে। শনিবার সরাইল থানার এস আই সহিদ মহাসড়ক থেকে মো. আনোয়ার হোসেন, মো. সজল মিয়া ও মো. ইমরান হোসেন শাকিব নামে তিন ডাকাতকে অস্ত্রসহ গ্রেফতার করেছেন। তাদের বাড়ি কিশোরগঞ্জ জেলার কুলিয়ারচর এলাকায়। সরাইল সিএনজি অটোরিকশা ষ্ট্যান্ডের চালক কামাল মিয়া জানান, উপজেলার কালীকচ্ছ গ্রামের চিহ্নিত ডাকাত বাবুর নেতৃত্বে সড়ক ডাকাতরা আমার সিএনজিঅটোরিকশাটি নিয়ে যায়। আমি থানায় করি। ডাকাত বাবু এলাকায় প্রকাশ্যে ঘুরলেও পুলিশ গ্রেফতার করছে না। ছিনতাই হওয়া সিএনজি অটোরিকশসা এখনও উদ্ধার হয়নি। কালীকচ্ছ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. তকদীর হোসেন জানান, এলাকার চিহ্নিত ছয় ডাকাতের নামে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছি। কোন অগ্রগতি নেই। ডাকাতের সাথে পুলিশের সম্পর্ক রয়েছে বলে মনে হচ্ছে। এ প্রসঙ্গে সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. গিয়াস উদ্দিন বলেন, মহাসড়কে নিয়মিত পুলিশি টহল চলছে। কালীকচ্ছ ইউনিয়নের জনগণের লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। প্রাথমিকভাবে সত্য মনে হচ্ছে। দ্রুত ব্যবস্থা নিব।

Check Also

আশুগঞ্জে সাজাপ্রাপ্ত আসামির মরদেহ উদ্ধার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :– ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে মো. হারুন মিয়া (৪৫) নামে দুই বছরের সাজাপ্রাপ্ত এক আসামির ...

Leave a Reply