সরাইলে স্কুলছাত্রীকে লাঞ্ছিতের ঘটনায় বখাটের গলায় জুতার মালা

আরিফুল ইসলাম সুমন, সরাইল (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) ॥
সরাইল পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে বিদ্যালয়ের আসার পথে লাঞ্ছিত করার অপরাধে বখাটে মহসিনের গলায় জুতার মালা পড়িয়ে জুতা পেটা করেছে তার পরিবার ও সমাজের লোকজন। বিদ্যালয়ের সহস্্রাধিক ছাত্রীর উপস্থিতিতে জুতার মালা গলায় পড়ে পুরো মাঠ ঘুরেছে মহসিন। গতকাল বুধবার দুপুর ১টায় বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে এ বিচার কাজ সম্পন্ন হয়।

বিদ্যালয় সূত্র জানায়, গত সোমবার সকালে বিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে ওই ছাত্রীকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে বখাটে মহসিন। মহসিন উপজেলা সদর ইউনিয়নের বেপারীপাড়া গ্রামের মো. নান্নু বেপারীর পুত্র। লাঞ্ছিত ছাত্রী উপজেলার কালীকচ্ছ ইউনিয়নের নাথপাড়া গ্রামের হিন্দু সম্প্রদায়ের জনৈক ব্যক্তির কন্যা। লাঞ্ছিতের ঘটনায় ওই দিনই স্কুলছাত্রীর পিতা সরাইল থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। কিন্তু দুই দিন পেরিয়ে গেলেও পুলিশ ব্যবস্থা নেয়নি। এতে অসহায় ছাত্রীর পরিবার হতাশ হয়ে পড়েন। বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ দু’দফা সভা করেন। তারা আইনি ব্যবস্থার দিকে অগ্রসর হচ্ছিল। এদিকে বখাটে মহসিনের পরিবার ও স্বজনরা ছেলের দোষ স্বীকার করেন। তারা সামাজিকভাবে বিচার দিতে প্রস্তুত।

গতকাল সকালে মহসিনকে নিয়ে বিদ্যালয়ে হাজির হন স্বজনরা। উপস্থিত ছিলেন বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা পর্ষদের সভাপতি ও সরাইল উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রফিক উদ্দিন ঠাকুর সহ সকল সদস্য। বিচারের দায়িত্ব দেয়া হয় অভিযুক্ত মহসিনের অভিভাবক মুরাদ বেপারী, শাহআলম মেম্বার ও জাহাঙ্গীর সহ ৫/৬ জনকে। তারা সিদ্ধান্ত দেন- কৃত অপরাধের জন্য বখাটে মহসিন গলায় জুতার মালা পড়ে বিদ্যালয়ের মাঠ ঘুরবে আর ছাত্রীদের উদ্দেশ্যে বলবে আমার বখাটেপনার কারণে এমন বিচার হয়েছে। আর কখনো এমন অন্যায় কাজ করবো না। এই রায় দ্রুত বাস্তবায়ন করেছে বখাটে মহসিন। এই বিচারে সন্তুুষ্টি প্রকাশ করেছেন বিদ্যালয়ের ছাত্রী, শিক্ষক-শিক্ষিকা ও অভিভাবকরা। বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী রহিমা, লুবাইয়া আক্তার ও ৬ষ্ট শ্রেণীর ছাত্রী তৃষ্ণা জানায়, এমন বিচার কখনও দেখিনি। এখন বখাটেদের উৎপাত কমে আসবে। লাঞ্ছিত ছাত্রীর পিতা-মাতা জানান, এই বিচারে আমরা সন্তুষ্ট। তবে পরবর্তীতে আমাদের ওপর কোন ধরনের আক্রমন হয় কি না ? শঙ্কায় আছি। বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো. আনোয়ার হোসেন মাষ্টার বলেন, মহসিনের পরিবারের লোকজন জনসমূখে বিচার করে নজির স্থাপন করলেন। স্কুলের ছাত্রীরা তাদেরকে সাধুবাদ জানিয়েছেন।

Check Also

আশুগঞ্জে সাজাপ্রাপ্ত আসামির মরদেহ উদ্ধার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :– ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে মো. হারুন মিয়া (৪৫) নামে দুই বছরের সাজাপ্রাপ্ত এক আসামির ...

Leave a Reply