ট্রানজিট বাস্তবায়ন প্রক্রিয়ায় শুল্কমুক্ত ভাবে আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে মাল যাচ্ছে ভারতে

লিটন চৌধুরী.ব্রাহ্মণবাড়িয়া :
ট্রানজিট বাসত্মবায়ন প্রক্রিয়ায় শুল্কমুক্ত ভাবে বুধবার থেকে মাল যাচ্ছে ত্রিপুরারাজ্যে। ট্রানজিটের আওতায় চলতি বছর আরও প্রায় হাজার ২৫ হাজার টন গেলভানাইজ্‌ড পেইন স্টিল সিআই সিট যাবে ভারতে। এদিকে ট্রানজিট প্রক্রিয়ায় মাল পরিবহন নিয়ে এলাকার জনমনে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।

আখাউড়া স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষ জানায়, আশুগঞ্জনদী বন্দর কর্তৃপক্ষের ছাড়পত্রের ভিত্তিতে ওডিসি পণ্যের মতো মঙ্গলবার রাত ১০টায় গেলভানাইজ্‌ড পেইন স্টিল সিআইসিটের ২৮টি প্যাকেট নিয়ে চারটি গাড়ি (ট্রাক) আখাউড়া স্থলবন্দরে এসেছে। ওডিসি পণ্যের ন্যায় আজ ভারতের ত্রিপুরায় যাবে এসব মালামাল। ট্রানজিট বাসত্মবায়নে পরীক্ষামূলক ভাবে এই পণ্য আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে ভারতের ত্রিপুরায় যাচ্ছে বলে বন্দর কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন।

এ ব্যপারে এই মাল পরিবহনের এজেন্ট গালফ ওরিয়েন্ট সিওয়েজের এক্সিকিউটিভ মোঃ নুরুজ্জামান জানান, তাদের প্রতিষ্ঠান এই মালের সিএন্ডএফ এজেন্ট। হুমিবাহ্‌বাহ ও গালফ ফোর নামে দুইটি জাহাজের ১১৭২টন মাল খালাস হচ্ছে আশুগঞ্জ নদী বন্দরে। আগামী মাসে ৫ হাজার টন ও wW‡m¤^i মাসে ১৬ হাজার টন মাল আশুগঞ্জ নদী বন্দরে আসছে। ভারতীয় এ সমসত্ম মালের এজেন্ট থাকবে এই প্রতিষ্ঠান। হুমি বাহবাহ নামের জাহাজের চার গাড়ি মাল ইতোমধ্যে ত্রিপুরার যেতে ক্রেন নিয়ে আখাউড়া স্থলবন্দরে অপেক্ষা করছে।

এ ব্যপারে আখাউড়া স্থলবন্দর কাস্টমস কর্মকর্তা সুভাস চন্দ্র কুন্ডু জানান, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের আদেশে শুল্কমুক্ত ভাবে এই মাল যাবে ত্রিপুরায়। অন্যান্য আনুষাঙ্গিক কাজ শেষে ওডিসি পণ্যের ন্যায় এই মালের ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে।

আখাউড়া স্থলবন্দর কর্মকর্তা হামিদুল হক জানান, ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে আমাদের পার্কিংজোনে মাল রাখা হয়েছে কিন্তু কোন নির্দেশনা না থাকায় কোন শুল্ক বা ট্যাক্স আদায় হবে না। ভারতীয় গাড়ি আসলে বিকেলে মাল চলে যাবে ভারতে।

এদিকে ট্রানজিট বাসত্মবায়ন প্রক্রিয়ায় এলাকার ব্যবসায়ী ও রাজনৈতিক মহলে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। আখাউড়া পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এন এম হাসান খান জানান, সরকার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে তিসত্মা চুক্তি না হওয়ায় ভারতের সাথে ট্রানজিট চুক্তি হয়নি। কিন্তু আমরা দেখছি ট্রানজিটের আওতায় আজ বুধবার থেকে মাল পরিবহন শুরু হয়েছে। সরকার মানুষকে বোকা বাণীয়ে ট্রানজিটের নামে ভারতকে আখাউড়া দিয়ে করিডোর দিয়েছে। এ থেকে জনগণ কিছুই পেলনা। পেলনা তিসত্মার পানি।

এ ব্যপারে আখাউড়া স্থলবন্দরের আমদানি রফতানী এসোসিয়েশন সভাপতি সফিকুল ইসলাম জানান, ট্রানজিট বাসত্মবায়ন প্রক্রিয়ায় ব্যবসা-বাণিজ্য ক্ষতিগ্রসত্ম হবে। আখাউড়া স্থলবন্দর একটি রফতানী নির্ভর স্থলবন্দর। ট্রানজিট চালূ হলে ভারতীয় ব্যবসায়ীরা এ দেশ থেকে মাল আমদানি করতে চাইবে না। তাদের অন্যান্য প্রদেশ থেকে মাল নিয়ে আসবে এখানকার ত্রিপুরারাজ্যসহ উত্তর-পূর্বাঞ্চলের সেভেন সিস্টার রাজ্যগুলোতে।

বুধবার আখাউড়া স্থলবন্দর নোম্যান্সল্যান্ডে ভারতীয় ব্যবসায়ীরা জানায়, এই স্টিলের পেইন সিট দিয়ে টিন তৈরি হবে সেভেন সিস্টার রাজ্যগুলোতে।

এ রির্পোট লেখা পর্যনত্ম দুপুর ২টায় ঢাকা মেট্রো ট-১৬-১৪২১, ঢাকা মেট্রো-ট-১৬-১৩৬৯, ঢাকা-মেট্রো-ট ১৬-১৩৯৩, ঢাকা মেট্রো-ট-১৬-৩৬৬১ এবং ক্রেন চট্টমেট্রো-শ-১১-০৩১২নং গাড়ি ৫টি স্থলবন্দর পার্কিং জোনে মাল খালাস করে ত্রিপুরায় যাওয়ার অপেক্ষমাণ রয়েছে।

Check Also

আশুগঞ্জে সাজাপ্রাপ্ত আসামির মরদেহ উদ্ধার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :– ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে মো. হারুন মিয়া (৪৫) নামে দুই বছরের সাজাপ্রাপ্ত এক আসামির ...

Leave a Reply