কুমিল্লায় বিভাগীয় বনকর্মকর্তাসহ ৪জনের বিরুদ্ধে দুদকের পৃথক দু’টি চার্জশিট

কুমিল্লা সংবাদদাতা :
কুমিল্লায় দুর্নীতি দমন কমিশন অবৈধভাবে ৪০ লাখ টাকা মূল্যের গাছ কর্তন পূর্বক অপসারন ও আত্মসাতের অভিযোগে বিভাগীয় বন কর্মকর্তাসহ ৪জন বনকর্মীর বিরুদ্ধে দুইটি আদালতে চার্জশীট দাখিল করেছে।

গতকাল সোমবার দুদক কুমিলার সহকারী পরিচালক মোঃ ফজলুল হক চীফ জুডিশিয়াল আদালতে এ চার্জশিট দাখিল করেন। অভিযুক্তদের মধ্যে জেলার বুড়িচং উপজেলার বন বিভাগের বিট কর্মকর্তা খন্দকার অহিদুজ্জামান কুমিলা কেন্দ্রীয় কারাগারে আটক রয়েছেন।

চার্জশিটে অভিযুক্তরা হল কুমিলার সাবেক বিভাগীয় বন কর্মকর্তা বর্তমানে ঢাকা বন ভবনে কর্মরত কুষ্টিয়া সদরের কালিশংকরপুর গ্রামের মুকবল হোসেনের ছেলে আরিফুল হক বেলাল, জেলার বুড়িচং উপজেলার বন বিভাগের বিট কর্মকর্তা টাঙ্গাইলের নাগরপুর থানার জগতলা গ্রামের খন্দকার কেরামত আলীর ছেলে খন্দকার অহিদুজ্জামান, কুমিলা কোটবাড়ি বন বিভাগের রেঞ্জ অফিসার বর্তমানে রাঙ্গামাটি বন বিভাগে কর্মরত নোয়াখালীর কবিরহাট উপজেলার অমরপুর গ্রামের মৃত শরৎচন্দ্র হাওলাদারের ছেলে সুধাংশু হাওলাদার এবং একই রেঞ্জার চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার কাচারি পাড়া গ্রামের মৃত হায়দার ছেলে হারুন রশিদ।

জানা যায়,২০০৯ সালে জেলার বুড়িচং উপজেলার কালিকৃষ্ণ নগর সাববিটের আওতাধীন ৪৭,১০ ও ৩৩৩নং দাগের বাগান এবং ২০১০ সালে একই এলাকার বাগান হইতে বিভিন্ন দাগের ৩৯ লাখ ৫৩ হাজার ৬শত ৮৪ টাকা মূল্যের গাছ অবৈধভাবে কর্তন শেষে তা অপসারন করে আত্মসাত করেন। এ অভিযোগে বুড়িচং থানায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ২০১০ সালের ২ নভেম্বর দুইটি পৃথক মামলা দায়ের করা হয়েছিল। ওই দুটি মামলায় তদন্ত শেষে ৪ জন আসামীর বিরুদ্ধে অভিযোগে এনে দূর্নীতি দমন কমিশন কুমিলার সহকারী পরিচালক ফজলুর রহমান চিফজুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেটের আদালতে চার্জশিট নং-২১৬ ও ২১৭ গতকাল সোমবার দাখিল করেন।

দুদক কর্মকর্তা ফজলুল হক জানান, ব্যাপক তদন্ত শেষে আসামীদের বিরুদ্ধে এ চার্জশিট দুটি দাখিল করা হয়েছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply