কুমিল্লায় মহানগর গৌধুলীর যাত্রাবিরতি শুরু ৯ সেপ্টেম্বর থেকে

কুমিল্লা সংবাদদাতা :
৯ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হতে যাচ্ছে মহানগর গৌধুলীর যাত্রাবিরতী৷ গত ৪ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ রেলওয়ে, চট্টগ্রামের অতিরিক্ত চীফ কমার্শিয়াল ম্যানেজার মিহির কান্তি গুহ স্বারিত এক আদেশে ওই প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়৷

জানা যায়, রেল যোগাযোগে কুমিল্লাবাসীকে নিরাপদ গন্তব্যে নিশ্চিত করতে সদর আসনের সাংসদ হাজী বাহারের কুমিল্লার সাধারণ যাত্রীদের জন্য ট্রেনের আসন বৃদ্ধি ও মহানগরী গোধুলী ট্রেনের স্টপেজ দাবী করে ইতিপুর্বে বাংলাদেশ রেলওয়ে’র মহাপরিচালক বরাবরে একটি ডিও লেটার প্রেরণ করেন৷ পরে গত ১১ আগষ্ট কুমিল্লা মহানগরীর একটি কমিউনিটি সেন্টারে স্বজন কল্যান সংঘের উদ্যেগে আয়োজিত এক ইফতার মাহফিলে এ বিষয়ে বিশেষ অতিথি বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক ইঞ্জিনিয়ার আবু তাহেরের দৃষ্টি আকর্ষন করেন ওই অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি সাংসদ হাজী বাহার৷ এতে ওই অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে রেলওয়ের মহাপরিচালক কুমিল্লার যাত্রীদের সুবিধার্থে অচিরেই গোধুলী ট্রেনের স্টপেজ ব্যবস্থা চালু করার আশ্বাস দেন৷ ওই দিনই তাতক্ষনিকভাবে স্থানীয় সাংসদ বাংলাদেশ রেলওয়ে মহাপরিচালকের বরাবরে পুনরায় একটি ডিওলেটার প্রদান করেন৷ এতে উল্লেখ করেন, কুমিল্লা বাংলাদেশের একটি অতি পুরনো ঐতিহ্যবাহী শহর৷ গত ১০ জুলাই কুমিল্লা পৌরসভাকে সিটি কর্পোরেশনে রূপান্তরিত করা হয়৷ বর্তমানে কুমিল্লা জেলার জনসংখ্যা প্রায় ৪৫ লক্ষ৷ দীর্ঘদিন যাবত আন্তঃনগর ট্রেনের বিভিন্ন শ্রেণীর আসন সংখ্যা স্বল্পতার কারণে ট্রেন ভ্রমনে অসুবিধা হচ্ছে৷ বিভিন্ন শ্রেণীর বরাদ্দকৃত আসন বৃদ্ধি ও মহানগর গৌধূলীর যাত্রাবিরতি বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বিশেষভাবে অনুরোধ করা হয়৷ এরই প্রেক্ষিতে গত ৪ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ রেলওয়ে, চট্টগ্রামের অতিরিক্ত চীফ কমার্শিয়াল ম্যানেজার মিহির কান্তি গুহ স্বারিত এক আদেশে বাংলাদেশ রেলওয়ের ২০০৯ সালের ২২ মার্চের সমন্বয়পত্র বাতিলপূর্বক মহানগর গৌধুলীর সংশোধিত আসন বন্টন তালিকাসহ ওই প্রজ্ঞাপন জারি করেন৷ সংশোধিত আসন বন্টন অনুযায়ী কুমিল্লার জন্যে শীতাতপ ৬, স্নিগ্ধা ১০ ও শোভন চেয়ার ৫০টি সীটের বরাদ্দ দেয়া হয়৷ চট্রগ্রাম থেকে কুমিল্লার ১৫৬ কিলোমিটার দুরত্বে জন্য ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে এসি সিট ২৩৬ টাকা, স্নিগ্ধা ১৮৪ টাকা, শোভন চেয়ার ৮০ টাকা৷ অপর দিকে কুমিল্লা থেকে ঢাকা ১৯২ কিলোমিটার এসি সিট ২৮৮ টাকা, স্নিগ্ধা ২১৯ টাকা ও শোভন চেয়ার ৯৫ টাকা ধার্য্য করা হয়৷ মহানগর গৌধূলীর কুমিল্লায় যাত্রাবিরতি প্রসঙ্গে কুমিল্লা রেলওয়ে স্টেশন উপদেষ্টামন্ডলীর সভাপতি এডভোকেট আমিনুল ইসলাম টুটুল বলেন বর্তমান প্রেক্ষাপটে রেলভ্রমণের প্রতি মানুষের আগ্রহ বাড়ছে৷ কিন্ত ট্রেনে কুমিল্লা ষ্টেশনের জন্য পর্যাপ্ত সীট বরাদ্দ না থাকায় কুমিল্লার যাত্রীদের দুর্ভোগ পোহাতে হত৷ কুমিল্লাবাসীর দাবী অনুযায়ী গৌধূলী ট্রেনের যাত্রাবিরতি ও ট্রেনের আসনবৃদ্ধির বিষয়ে সদর আসনের সংসদ সদস্যে হাজী বাহার যে অবদান রেখেছেন তার জন্য কুমিল্লাবাসী তাকে কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করবে৷

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply