সেপ্টেম্বর মাসে পূর্ণাঙ্গ বিদ্যুৎ উৎপাদনে যাচ্ছে তিতাস ৫০ মেগাওয়াট পিকিং পাওয়ার প্লান্ট

নাজমুল করিম ফারুক তিতাস থেকে :

তিতাস ৫০ মেগাওয়াট পিকিং পাওয়ার প্লান্ট
বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (পিডিবি)’র আওতাধীন কুমিল্লা তিতাস সাবেক দাউদকান্দি উপজেলায় “তিতাস ৫০ মেগাওয়াট পিকিং পাওয়ার প্লান্ট” আগামী সেপ্টেম্বর মাসে পূর্ণাঙ্গ বিদ্যুৎ উৎপাদনে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন চীনের এফইপিইসি-সিসিসি-এর্টান জয়েন্ট বেঞ্চার পিআর অর্থ্যাৎ ফুজিয়ান ইলেক্ট্রিক পাওয়ার কোম্পানীর কর্তৃপক্ষ।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ৫শত ৭৪ কোটি ৮৩ লক্ষ ২৬ হাজার ৫শ ২০ টাকা ব্যয়ে “তিতাস ৫০ মেগাওয়াট পিকিং পাওয়ার প্লান্ট প্রজেক্ট” এর কাজ নির্দিষ্ট সময়ের পূর্বেই শেষ করার লক্ষ্যে রাত-দিন কাজ করে যাচ্ছেন কর্তৃপক্ষ।

চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে পরীক্ষামূলক বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু করেছে কেন্দ্রটি এবং বর্তমানে উক্ত কেন্দ্র থেকে ১ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রীডে সংযুক্ত হচ্ছে। হ্যাভি ফুয়েল ওয়েল দিয়ে এই প্লান্টে বিদ্যুৎ উৎপাদন হবে বিধায় কার্গো জাহাজে তেল সরবরাহ করার সুবিধার্থে দাউদকান্দি সদরের পশ্চিম পাশ থেকে বিদ্যুৎ প্লান্ট পর্যন্ত প্রায় ৭-৮ কিলোমিটার গোমতী নদী খননের কাজ ইতিমধ্যে শেষ পর্যায়ে রয়েছে।

বর্তমানে লালপুর গ্রাম সংলগ্ন নির্মিত ব্রিজটি নিচু এবং বর্ষা মৌসুম হওয়ায় পানির উচ্চতা বেড়ে যাওয়ায় ছোট ছোট জাহাজে করে তেল বিদ্যুৎ কেন্দ্রে মজুদ করা হচ্ছে। কর্তৃপক্ষের সাথে আলাপকালে জানা যায়, সরকারের সাথে চুক্তিবদ্ধ হওয়া সময়ের (সেপ্টেম্বর-২০১১) মধ্যে বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে সক্ষম হবে।

উল্লেখ্য, গত বছর ১৩ মে ঢাকাস্থ বিদ্যুৎ ভবনের সম্মেলন কক্ষে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড ও চীনের এফইপিইসি-সিসিসি-এর্টান জয়েন্ট বেঞ্চার পিআর অর্থ্যাৎ ফুজিয়ান ইলেক্ট্রিক পাওয়ার কোম্পানীর সাথে “তিতাস ৫০ মেগাওয়াট পিকিং পাওয়ার প্লান্ট” এর চুক্তি সম্পূন্ন হয়।

চুক্তিস্বাক্ষর অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎ ও জ্বালানী উপদেষ্ঠা ড. তৌফিক-ই-এলাহী চৌধুরী বীরবিক্রম, বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী বিগ্রেডিয়ার জেনারেল (অবঃ) মোহাম্মদ এনামুল হক, বিদ্যুৎ সচিব আবুল কালাম আজাদ, বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান এএসএম আলমগীর কবির, বাংলাদেশে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড ও চীনের এফইপিইসি-সিসিসি-এর্টান জয়েন্ট বেঞ্চার পিআর কোম্পানীর সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারাসহ তিতাস উপজেলা চেয়ারম্যান পারভেজ হোসেন সরকার উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড গত বছরের ১৩ সেপ্টেম্বর ১০টি পিকিং পাওয়ার প্লান্ট প্রজেক্ট স্থাপনের জন্য আন্তর্জাতিক দরপত্র আহ্বান করেন। এ বছর ২ ফেব্র“য়ারি চীনের এফইপিইসি-সিসিসি-এর্টান জয়েন্ট বেঞ্চার পিআর কোম্পানীর দরপত্র দাখিল করেন এবং ১৬ মার্চ বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড দরপত্র গ্রহণ করেন। যার মধ্যে ৫শত ৭৪ কোটি ৮৩ লক্ষ ২৬ হাজার ৫শ ২০ টাকা ব্যয়ে “তিতাস ৫০ মেগাওয়াট পিকিং পাওয়ার প্লান্ট প্রজেক্ট” স্থাপন হচ্ছে। যা গত বছর ৭ ডিসেম্বার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিকভাবে ভিত্তিপ্রস্তার স্থাপন করেন।

এবছর ২৪ এপ্রিল বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী বিগ্রেডিয়ার জেনারেল (অবঃ) মোহাম্মদ এনামুল হক, বিদ্যুৎ সচিব আবুল কালাম আজাদ, বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান এএসএম আলমগীর কবির, আরইবি’র চেয়ারম্যান ভূইয়া শফিকুল ইসলাম তিতাসে বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের জায়গা পরিদর্শনকালে বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী ঘোষণা দেন ৫০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের পাশাপাশি এখানে আরো ১০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। যা জাতীয় গ্রেডে সংযুক্ত হবে।

এদিকে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পারভেজ হোসেন সরকার জানান, কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ আলাদা ৩৩ কেভি ফিডার স্থাপন করে তাদের চাহিদা অনুযায়ী বিদ্যুৎ সরবরাহ করতে পারবে।

এবছর ২৮ এপ্রিল পিবিএস-১ মাসিক বোর্ড সভায় তিতাসে ৩৩ কেভি ফিডার স্থাপনের উদ্যোগ নেন যার কাজ বর্তমানে চলছে। তিনি আরো জানান, পিবিএস-১ এর আওতায় আলাদা ফিডার স্থাপন করে এর আওতাধীন চান্দিনা, দাউদকান্দি, তিতাস, হোমনা, মেঘনা, মুরাদনগর, দেবিদ্ধার ও বুড়িচং উপজেলায় “তিতাস ৫০ মেগাওয়াট পিকিং পাওয়ার প্লান্ট” থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহ করার ব্যবস্থা করলে ২০১১ সালের মধ্যেই কুমিল্লা একাংশ লোডশেডিংমুক্ত হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে।





Check Also

তিতাসে মেহনাজ হোসেন মীম আদর্শ কলেজের নবীনবরণ অনুষ্ঠিত

নাজমুল করিম ফারুক :— কুমিল্লার তিতাসে মেহনাজ হোসেন মীম আদর্শ কলেজের নবীনবরণ অনুষ্ঠান গত শনিবার ...

Leave a Reply