তিতাসে গৃহবধূ ধর্ষণের প্রধান আসামী গ্রেফতার

নাজমুল করিম ফারুক, তিতাস :
তিতাস উপজেলার জগতপুর গ্রামে মিয়া কাজীর মেয়ে গৃহবধূ রিনা আক্তার (১৮) কে গণধর্ষণের ঘটনার প্রধান আসামী একই জেলার মুরাদনগর উপজেলার ছালিয়াকান্দি গ্রামের মৃত ইসমাইল হোসেনের পুত্র সুমন ওরফে ইদু (২৩) কে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

তিতাস থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) মোঃ নবীর হোসেন জানান, রিনা আক্তারের জবানবন্দির আলোকে ৩ জনকে আসামী করে ধর্ষণ মামলা গ্রহণ করা হয়েছে। সে আলোকে রবিবার রাতে উপজেলার জগতপুর গ্রামে অভিযান চালিয়ে স্থানীয় ব্যবসায়ী কুমিল্লা জেলার মুরাদনগর উপজেলার ছালিয়াকান্দি গ্রামের মৃত ইসমাইল হোসেনের পুত্র সুমন ওরফে ইদু (২৩) কে গ্রেফতার করা হয়। উক্ত মামলায় সুমন ওরফে ইদু প্রধান আসামী। তিনি আরো জানান, খোঁজ খবর নেওয়া হচ্ছে বাকি দুই জন আসামীকেও শীঘ্রই গ্রেফতার করা হবে।

উল্লেখ্য, গত ১ আগষ্ট রাতে নিজ বাড়ী থেকে রিনা নিখোঁজ হলে অনেক খোঁজাখুজির পর ৩ এপ্রিল পরিত্যাক্ত একটি চকের বাড়িতে অজ্ঞান অবস্থায় পাওয়া যায়। তখন তার শরীর দিয়ে রক্তপাত হচ্ছিল। তখন স্থানীয় লোকদের সহযোগিতায় তাকে তিতাস উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। ৬ আগষ্ট শনিবার সন্ধ্যায় বিষয়টি স্থানীয়দের মাঝে জানাজানি হলে একটি চক্র ৭ আগষ্ট রবিবার সকালে কৌশলে রিনাকে হাসপাতাল থেকে নিয়ে যায়।

বিষয়টি গোটা তিতাস উপজেলায় ছড়িয়ে পড়লে প্রশাসনের টনক নড়ে। বর্তমানে রিনার রক্তপাত হওয়ায় তাকে গত রবিবার বিকাল সাড়ে ৩টায় পূর্ণরায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আমিনুল ইসলাম, তিতাস থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) মোঃ নবীর হোসেন ও উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মুন্সি মুজিবুর রহমান রিনার সাথে কথা বললে রিনা গণধর্ষণের কথা স্বীকার করেন এবং অভিযোগ দাখিল করেন।


Check Also

কুমিল্লায় তিন গৃহহীন নতুন ঘর পেল

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ– কুমিল্লা সদর উপজেলায় গ্রামীণ উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে ৪নং আমড়াতলী ইউনিয়নের গৃহহীন নুরজাহান বেগম, ...

Leave a Reply