নাঙ্গলকোটের পেড়িয়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সাংবাদিক সহিদ উলাহ মিয়াজীর অভিষেক অনুষ্ঠিত

জামাল উদ্দিন স্বপন:

নাঙ্গলকোটের পেড়িয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, মেম্বারদের অভিষেক অনুষ্ঠান গত বৃহষ্পতিবার ইউনিয়ন পরিষদ কমপেক্স মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। জামায়াত নেতা জিয়াউল হক জিয়ার পরিচালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন, নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান সহিদ উলাহ মিয়াজী।

এ সময় অন্যন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, ফুলগাঁও মাদ্রাসার সাবেক ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মাওলানা আবদুল গফুর,পেড়িয়া ইউনিয়ন বি এন পি সহ সভাপতি সাবেক মেম্বার মফিজুর রহমান, প্রভাষক মোঃ শাহজাহান, মাওলানা রফিকুল ইসলাম, নির্বাচিত মেম্বার আবুল কালাম, আবদুল হক, সহিদ উলাহ প্রমুখ।

সহিদ উলাহ মিয়াজী তার স্বাগত বক্তব্যের প্রথমে, ৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধে নিহত বীর শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন। তিনি বলেন, গত ১৯ জুন ইউপি নির্বাচন সুষ্ঠ, সুন্দর এবং ঐতিহাসিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

নির্বাচনের পূর্বে চেয়ারম্যান এবং মেম্বার প্রার্থীদের মধ্যে একে অপরের বিরুদ্ধে কোন অশালীন শব্দ ব্যবহার করে নাই। নির্বাচনের একদিন পূর্বে চেয়ারম্যান প্রার্থী চলে যায়। জিডিতে তারা কারো বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ করে নাই। তারা শুধুমাত্র নির্বাচনী ফায়দা লুটার জন্য এ নাটক সাজিয়েছে। পরবর্তীতে আমি সহ আমার নির্বাচনী ৭ কর্মীর বিরুদ্ধে সন্দেহজনকভাবে আসামী করে থানায় মামলা করেন।

গত ১৩ জুলাই সব চেয়ারম্যান, মেম্বারদের শপথ গ্রহণ হলেও আমাদের শপথ গ্রহণ নিয়ে এলাকাবাসীকে দুঃচিন্তা এবং হতাশাগ্রস্ত হতে হয়েছে। আমাদেরকে অনেক প্রতিকুল পরিস্থিতির মোকাবেলা করতে হয়েছে। অবশেষে গত ১ আগষ্ট সোমবার আমাদের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। আমি শান্তিপূর্ণ অবস্থান এবং সকলের সহযোগিতা, সহমর্মিতা চাই।

তিনি বলেন, আমরা নির্বাচিত ১৩ জন সদস্য এলাকায় শান্তি আনতে পারবো না। আপনাদের সকলের সহযোগিতা থাকতে হবে। এলাকায় বিশৃঙ্খলাকারীদের সামাজিকভাবে বয়কট করতে হবে। আমাদের দেশ গণতান্তিক দেশ। যারা গণতন্ত্র মানে না,তারা কালো টাকা, শক্তি দিয়ে ক্ষমতা দখল করতে চায়। কালো টাকার মালিকদের চিহিৃত করতে হবে। তারা যাতে ক্ষমতায় না আসতে পারে তাদেরকে প্রতিহত করতে হবে।

আমরা বিভিন্ন রাজনৈতিক মতাদর্শ থেকে নির্বাচিত হয়ে এসেছি। এখানে রাজনীতির উর্ধ্বে উঠে আমাদেরকে কাজ করতে হবে। মেম্বারদেরকে তাদের এলাকাবাসীর পক্ষে থাকতে হবে। আমরা একটা পরিবার হিসেবে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করবো।

নির্বাচনে কে আমাদেরকে ভোট দিয়েছে কে দেয় নাই। আমাদেরকে এসব চিন্তা না করে সবার জন্য কাজ করতে হবে। প্রয়োজন হলে যারা ভোট দেয় নাই তাদের কাজ আগে করে দিতে হবে। তিনি ইউনিয়ন সচিব সহ ইউনিয়নের অন্যান্য কর্মচারীদের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন।

পরে মুনাজাত পরিচালনা করেন, মাওলানা আবদুল গফুর। অভিষেক অনুষ্ঠান শেষে চেয়ারম্যান সহিদ উলাহ মিয়াজী ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে দিনব্যাপী ব্যস্ত সময় কাটান।




Check Also

কুমিল্লায় তিন গৃহহীন নতুন ঘর পেল

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ– কুমিল্লা সদর উপজেলায় গ্রামীণ উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে ৪নং আমড়াতলী ইউনিয়নের গৃহহীন নুরজাহান বেগম, ...

Leave a Reply