ব্রাহ্মণবাড়িয়া শেখ মুজিব ডিগ্রি কলেজের শিক্ষা কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন- আইন প্রতিমন্ত্রী

লিটন চৌধুরী.ব্রাহ্মণবাড়িয়াঃ-
আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী অ্যাডঃ কামরম্নল ইসলাম এম.পি বলেছেন, জোট সরকারের আমলে যেখানে ছাত্র-ছাত্রীরা বছর শেষ হয়ে গেলেও বই পেত না সেখানে বর্তমান সরকার বছরের শুরম্নতেই প্রথম শ্রেণী থেকে নবম শ্রেণী পর্যন্ত বিনামূল্যে বই বিতরণ করছে এটাই দিন বদল।

তিনি বলেন, দিন বদলের জন্য বর্তমান সরকার শিক্ষার উন্নয়ন মেধা বিকাশ নিরড়্গরতা দূরীকরণ দারিদ্র বিমোচনে কাজ করছে। শিক্ষার মানন্নোয়নের জন্য কাজ করছে, প্রত্যন্ত অঞ্চলে শিক্ষা বিস্তারের কাজ করছে। প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আজ কম্পিউটার ল্যাব হচ্ছে। তিনি ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস তুলে ধরার জন্য শিক্ষারদের প্রতি আহবান জানান।

তিনি শনিবার চিনাইর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ডিগ্রি কলেজে একাডেমীক শিক্ষা কার্যক্রম উদ্বোধন ও হাকীম খুরশেদুল ইসলাম প্রশাসনিক ভবন উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত এক বিশাল সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন। তিনি চিনাইর এর শিক্ষা বিস্তারে হাকীম খুরশেদুল ইসলাম, খলিলুর রহমান চৌধুরী, ইদ্রিস, র.আ.ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী, প্রফেসর ফাহিমা খাতুনসহ তাদের অবদানের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তৃতায় চিনাইর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ডিগ্রি কলেজের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা র.আ.ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী বলেন, সত্যিকারের শিক্ষিত লোক ছাড়া জাতিকে এগিয়ে নেয়া যায় না। সেজন্য তিনি নতুন প্রজন্মকে সত্যিকারের শিক্ষায় শিক্ষিত হওয়ার আহবান জানান।

বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য্য ড. শহিদুল্লাহ বলেন, বর্তমান সরকার প্রতিটি উপজেলায় একটি করে অনার্স চালু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তিনি শিক্ষার উন্নয়নে শিক্ষক অভিভাবক এবং ছাত্র-ছাত্রীদের আন্তরিক ও মনোযোগী হওয়ার আহবান জানিয়েছেন। বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর ফাহিমা খাতুন বলেন, শিক্ষার ক্ষেত্রে চিনাইরকে আমরা একটি মডেল হিসেবে গড়ে তুলতে চাই। যারা পিছিয়ে আছে তাদের পাশে থাকতে চাই।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো বক্তব্য রাখেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক আব্দুল হালিম, জেলা প্রশাসক মোঃ আব্দুল মান্নান ও চিনাইর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ডিগ্রি কলেজের প্রিন্সিপাল অধ্যাপক মকবুল হোসেন।

অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন, অধ্যাপক মহিবুর রহিম। অনুষ্ঠানে আইন প্রতিমন্ত্রীর স্ত্রী তাইবা ইসলাম, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য্য ড. কাজী শহিদুলস্নাহ স্ত্রী বেগম শাম্মী, বিশিষ্ট চলচ্চিত্র নির্মাতা মোরশেদুল ইসলাম, পৌর মেয়র মোঃ হেলাল উদ্দিন, জেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অ্যাড. সৈয়দ এ.কে.এম এমদাদুল বারী, জেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মেজর অবঃ জহিরুল হক খান বীর প্রতীকসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। এর আগে প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথিবৃন্দ চিনাইর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব কলেজের হাকীম খুরশেদুল ইসলাম প্রশাসনিক ভবনের উদ্বোধন করেন। পরে অতিথিবৃন্দ বিভিন্ন স্টল পরিদর্শন করেন।





Check Also

আশুগঞ্জে সাজাপ্রাপ্ত আসামির মরদেহ উদ্ধার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :– ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে মো. হারুন মিয়া (৪৫) নামে দুই বছরের সাজাপ্রাপ্ত এক আসামির ...

Leave a Reply