মেঘনা নদীতে অস্ত্রের মহড়া :বাঞ্ছারামপুরের বালুবাহী ২ বলগেট ছিনতাই

লিটন চৌধুরী.ব্রাহ্মণবাড়িয়াঃ-
বালু মহালের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুর ও নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়নের কদমিরচরের ডিগচর মেঘনা নদীতে বৃহস্পতিবার অস্ত্রের মহড়া দেখিয়েছে মাহবুবুর রহমান ও নূর হোসেনের লোকজন। এ নিয়ে দুই পক্ষই একে অপরের বিরুদ্ধে পালল্টাপাল্টি অভিযোগ করেছেন। এদিকে বুধবার আটককৃত ৪টি ড্রেজারের মালিক খোঁজে না পাওয়ায় সেগুলো বাঞ্ছারামপুর থানার হেফাজতে রয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও অন্যান্য সূত্র জানায়, বাঞ্ছারামপুরের বাহেরচরের প্রভাবশালী বালি সিন্ডিকেটের অন্যতম মাহাবুবুর রহমানের নেতৃত্বে একদল সশস্ত্র লোক বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টায় সীমান্তবর্তী নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার কদমিরচর এলাকায় হামলা চালাতে গেলে তাদের বহনকারী বালুবাহী ২টি বলগেট(বালু বহনকারী জাহাজ) আড়াইহাজারের লোকজন ছিনিয়ে নেয়। পরে উভয়পক্ষ অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে মেঘনা নদীতে একে অন্যকে ধাওয়া করে। এসময় নদীর তীরবর্তী মানুষ ভীতসন্ত্রস্থ হয়ে পড়েন। এলাকায় আতংক বিরাজ ছড়িয়ে পড়ে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুর উপজেলার বাহেরচর-কানাইনগর বালুমহালের ইজারাদার মাহাবুবুর রহমান ও আব্দুল করিমের নেতৃত্বে প্রথমে এই মহড়া চলে। পরবর্তীতে আড়াইহাজারের নূর হোসেনের নেতৃত্বে এলাকাবাসী পাল্টা ধাওয়া করলে নৌকা ও স্পিড বোট যোগে মাহাবুব গ্রুপ পালিয়ে আসে। দুটি বলগেট দু্রত চালাইতে গেলে স্টার্ট না নেওয়ায় বলগেট রেখে স্পিড বোট যোগে বাহেরচরের হামলাকারীরা পালিয়ে আসে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ব্যাপারে বাঞ্ছারামপুরের বাহেরচরের মাহাবুব গ্রুপের প্রধান মাহাবুবুর রহমান বলেন, আমার লোকজন কোন হামলা কিংবা অস্ত্রের মহড়া দেই নাই। তিনি পাল্টা অভিযোগ করে বলেন, আড়াইহাজারের লোকজনই হামলা দিয়ে আমাদের বালুমহাল থেকে দুইটি বলগেট নিয়ে গেছে।

আড়াইহাজারের কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম স্বপন বলেন, বাঞ্ছারামপুরের মাহাবুব গ্রুপের লোকজন বুধবার বাঞ্ছারামপুর প্রশাসনের সহযোগিতায় ডিগচর থেকে ৪টি ড্রেজার নিয়ে গেছে। গতকালও মাহাবুবের লোকজন স্পিড বোট ও ট্রলারে করে এসে হামলা চালিয়েছে।

এবিষয়ে জানতে চাইলে বাঞ্ছারামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট মো.রাহেদ হোসেন বলেন, মেঘনা নদী থেকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের কারণে বুধবার আড়াইহাজারের ৪টি ড্রেজার জব্দ করা হয়েছে। সেগুলো পুলিশের হেফাজতে রয়েছে।

আড়াইহাজারের ডিগচর বালু মহালের ইজারাদার মো.নূর হোসেন বলেন, বাঞ্ছারামপুরের বাহেরচরের মাহাবুব ও করিম সন্ত্রাসী নিয়া আজকেও হামলা করেেছ। তারা ফাঁকা গুলি করে এলাকার মানুষের ম্যধ্য আতংক সৃষ্টি করছে। ভয়ে লোকজন নদীতে যাচ্ছে না।

এ ব্যাপারে বাঞ্ছারামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো.আলাউদ্দিন বলেন, বাঞ্ছারামপুরের বাহেরচর এলাকা থেকে আটক ৪টি ড্রেজার আমাদের থানার হেফাজতে রয়েছে। তবে বৃহস্পতিবার মেঘনা নদীতে অস্ত্রের মহড়া হয়েছে কিনা সে বিষয়টি আমার জানা নেই।

উল্লেখ্য গত বুধবার দুপুরে এই মেঘনা নদীতে অবৈধ বালু উত্তোলনকে কেন্দ্র করে প্রতিদ্বন্ধি দুই পক্ষের মধ্যে বন্দুক যুদ্ধের অন্তত ২৮ রাউন্ড গুলির ঘটনা ঘটেছে।




Check Also

কুমিল্লায় তিন গৃহহীন নতুন ঘর পেল

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ– কুমিল্লা সদর উপজেলায় গ্রামীণ উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে ৪নং আমড়াতলী ইউনিয়নের গৃহহীন নুরজাহান বেগম, ...

Leave a Reply