নাঙ্গলকোটে মসজিদ ভেঙ্গে ফেললেন প্রতারক শাহজাহান বাবলু

জামাল উদ্দিন স্বপন :

নাঙ্গলকোটের সদ্য সমাপ্ত পেড়িয়া ইউপি নির্বাচনের চেয়ারম্যান প্রার্থী আবুল কাশেমের (কাপ পিরিজ) ভাই শাহজাহান বাবলু কর্র্তৃক নির্বাচনী প্রতিশ্রুতির অংশ হিসেবে যোগীপুকুরিয়া গ্রামের একটি পুরাতন মসজিদ পুনঃনির্মাণ করে দেয়ার কথা বলে মসজিদটি ভেঙ্গে ফেলার অভিযোগ উঠেছে। মসজিদটির নির্মাণ কাজে সহযোগিতা না করায় দীর্ঘদিন এলাকার ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা খোলা আকাশের নিচে নামাজ আদায় করেন।

জানা যায়, উপজেলার পেড়িয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নির্বাচনে শাহজাহান বাবলুর ভাই আবুল কাশেম (কাপ পিরিজ) নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দ্বীতায় অংশগ্রহণ করেন। আবুল কাশেমের ভাই শাহজাহান বাবলু ভাইয়ের নির্বাচনী গণসংযোগের সময় যোগীপুকুরিয়া গ্রামে যান। তিনি নির্বাচনী প্রতিশ্রুতির অংশ হিসেবে যোগিপুকুরিয়া গ্রামের দীর্ঘদিনের জরাজীর্ণ মসজিদটি পুনঃনির্মাণ করে দেয়ার কথা বলে এলাকাবাসীকে মসজিদটি ভাঙ্গার জন্য বলেন। তিনি মসজিদটি নির্মাণে ১০ লাখ টাকা দেয়ার প্রতিশ্র“তি প্রদান করেন বলে জানা যায়। মসজিদ কর্তৃপক্ষ মসজিদটি পুনঃনির্মাণের আশ্বাস পেয়ে জরাজীর্ণ মসজিদের অবকাঠামো ভেঙ্গে ফেলেন। এর মধ্যে শাহজাহান বাবলু ৩৫ হাজার টাকা মুল্যের ইটও প্রদান করেন। পরবর্তীতে, প্রতারক শাহজাহান বাবলু বিভিন্ন সময়ে মসজিদের উন্নয়নে টাকা প্রদান সহ প্রয়োজনীয় নির্মাণ সামগ্রী দেব-দিচ্ছি বলে নির্বাচনী সময় পার করার কৌশল নেন। ইতিমধ্যে মসজিদ কর্তৃপক্ষ মসজিদটির পুনঃনির্মাণে কাজ শুরু করতে না পারায় বিপাকে পড়ে যান। বর্তমানে মসজিদ কমিটি বিশাল অংকের টাকা ব্যয়ে মসজিদটি পুনঃনির্মাণ নিয়ে অনিশ্চতায় ভুগছেন।

নির্বাচন শেষ হয়ে গেলেও অদ্যাবধি শাহাজাহান বাবলু মসজিদের উন্ন্য়নে আর কোন সহযোগিতা করেন নাই। গত ১৫ জুন থেকে ২৩ জুন পর্যন্ত এলাকার ধর্মপ্রাণ মুসল্লাীরা খোলা আকাশের নিচে নামাজ আদায় করেন। গত ২৪ জুন মসজিদের পাশ্ববর্তী স্থানে ১টি এক চালা টিনের চাপড়া নির্মাণ করে বর্তমানে তারা নামাজ আদায় করছেন। প্রতারক শাহজাহান বাবলুর মোবাইল ফোন বন্ধ থাকায় এবং এলাকা থেকে চলে যাওয়ায় মসজিদ কর্তৃপক্ষ তাদের সাথে কোন যোগাযোগ করতে পারছেন না বলে জানা যায়।

মসজিদের মোতায়াল্লি মমতাজুর রহমান জানান, আমাদের মসজিদটি দীর্ঘদিন থেকে অত্যন্ত জরাজীর্ণ হয়ে পড়ে আছে। টিনে মরিচা পড়ে যায় এবং বৃষ্টির দিনে পানি পড়ে। আমরা শাহজাহান বাবলুর নিকট মসজিদটি পুনঃনির্মাণের জন্য সহযোগিতা চাই। তিনি আমাদেরকে আল্লাহর ওয়াস্তে সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন। তিনি আরো বলেন, আমরা সব প্রার্থী থেকে সহযোগিতা নিয়েছি। এছাড়া, বিভিন্ন প্রার্থী এবং এলাকাবাসী থেকে চাঁদার মাধ্যমে ইট, বালু, রড সহ নগদ প্রায় ২ লাখ টাকা সংগ্রহ করেছি। আমারা অল্প কিছুদিনের মধ্যে কাজ শুরু করবো। তিনি নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা দেয়ার প্রতিশ্র“তি কথা অস্বীকার করেন। মৌলভী শফিকুর রহমান বলেন, আমরা শাহজাহান বাবলুর নিকট জোর করে সহযোগিতা চেয়েছি। তিনি আল্লাহর ওয়াস্তে যা পারবো, তা দেবেন বলে জানান। তিনি নির্বাচনের আগে দেয়া সম্ভব নয় বলেও জানান। মজজিদের ইমাম মোহাম্মদ উল্লা জানান, আমরা শুনেছি, শাহজাহান বাবলু মৌকরা মাদ্রাসা সহ বিভিন্ন স্থানে সহযোগিতা করে আসছেন। আমরা মসজিদের জন্য সহযোগিতা চাইলে তিনি বলেন, নির্বাচনের পরে বললে, আমি সহযোগিতা করতাম। এখন নির্বাচনের সময় সম্ভব নয় বলে জানান। তারপরও উনার স্বামর্থ অনুযায়ী আল্লাহর ওয়াস্তে সহযোগিতা করার কথা বলেছেন।

পেড়িয়া ইউনিয়ন বি এন পি সাধারণ সম্পাদক গোলম ফারুক, শাহজাহান বাবলুকে প্রতারক, জালটাকার ব্যবসায়ী, বহু অপকর্মের হোতা হিসেবে আখ্যায়িত করে অবিলম্বে তাকে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করেন। নাঙ্গলকোট উপজেলা বি এন পি নেতা আবু সায়েম আজাদ জানান, শাহজাহান বাবলু জনগণের সাথে প্রতারণ করে নির্বাচনী বৈতরণী পার হবার চেষ্টা চালিয়েছেন।




Check Also

কুমিল্লায় তিন গৃহহীন নতুন ঘর পেল

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ– কুমিল্লা সদর উপজেলায় গ্রামীণ উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে ৪নং আমড়াতলী ইউনিয়নের গৃহহীন নুরজাহান বেগম, ...

Leave a Reply