আমরা আবার ৭২ এর সংবিধানে ফিরে যেতে চাই -কুমিল্লায় সেক্টর কমান্ডার্স ফোরামে বক্তারা

কুমিল্লা সংবাদদাতা :

বীর মুক্তিযোদ্ধা সেক্টর কমান্ডার লে. কর্ণেল নুরুজ্জামান ও সেক্টর কমান্ডার মীর শওকত আলী স্মরণে ও যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ত্বরান্বিত করার দাবিতে শনিবার বিকেলে কুমিল্লা টাউন হলে সেক্টর কমান্ডার ফোরাম কুমিল্লা আয়োজিত আলোচনা সভায় সেক্টর কমান্ডার নেতৃবৃন্দ বলেছেন, মুক্তিযুদ্ধের পর ৭২ সালে যে সংবিধান রচিত হয়েছিল তার সাথে সাংঘর্ষিক কিছু রাখা যাবে না। রাষ্ট্র যেহেতু সকল ধর্মের বিশ্বাসীদের সেহেতু সংবিধানে ধর্ম নিরপেক্ষতা রাখতে হবে। আমরা সংবিধানের চার স্তম্ভের বাইরে যেতে চাইনা। আমরা চার স্তম্ভের অন্যতম ধর্ম নিরপেক্ষতাকে সামনে রেখে আমরা মুক্তিযুদ্ধ করেছিলাম। আমরা আবার ৭২ এর সংবিধানে ফিরে যেতে চাই। তারা আরো বলেন, ৭৫ এ বঙ্গবন্ধু নিহত হবার পর জিয়া এবং এরশাদ সংবিধানে সংশোধনী এনে একে বিকৃত করেছিল। সুপ্রিম কোর্টের সংবিধান সংক্রান্ত যুগান্তকারী একটি রায় ৭২ এর সংবিধানে ফিরে যেতে সুযোগ করে দিয়েছে, সে সুযোগ গ্রহণ না করে সংবিধানে সাংঘর্ষিক কিছু করা হলে তা মেনে নেয়া হবেনা।

এ নিয়ে মুক্তিযোদ্ধারা সংগ্রাম চালিয়ে যাবে। তারা বলেন এদেশের মাটিতেই যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হবে। বিচার শুরু হয়েছে বিচার শেষও হবে। সেক্টর কমান্ডার্স ফোরাম কুমিল্লার সভাপতি সফিউল আহমেদ বাবুলের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন সাবেক সেনাপ্রধান ও ফোরামের সিনিয়র সহ-সভাপতি জেনারেল কে.এম শফিউল্লাহ বীর উত্তম। প্রধান অতিথি বলেন, ৭২ সালের সংবিধানের সাথে সাংঘর্ষিক কিছু রাখা যাবে না। সংবিধানে ধর্ম নিরপেক্ষতা রাখতে হবে। আমরা সংবিধানের চার স্তম্ভের বাইরে যেতে চাইনা। আমরা আবার ৭২ এর সংবিধানে ফিরে যেতে চাই। যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের বিষয়ে বলেন, তাদের বিচার শুরু হয়েছে তা আবার শেষও হবে। এজন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।

প্রধান বক্তা সংসদ সদস্য আ.ক.ম বাহাউদ্দিন বাহার বলেন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়নি হত্যা করা হয়েছে একটি চেতনাকে। তিনি যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের বিষয়ে বলেন, সেক্টর কমান্ডার্স ফোরামকে ধন্যবাদ জানাই,কারণ তারা এবিষয়ে দেশবাসীকে সংগঠিত করেছেন। ফোরামের সাধারণ সম্পাদক সাবেক সেনা প্রধান লে. জেনারেল (অব.) হারুন-উর রশিদ বীর প্রতীক বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের কথা উঠলে মানবাধিকারের কথা উঠে,কিন্তু যারা লাখ লাখ মানুষ হত্যা করে মানবাধিকার লংঘন করেছে তাদের বিচার অবশ্যই হতে হবে। তিনি আরো বলেন, ৭২ সালের সংবিধানের অন্যতম মৌল বিষয় ধর্ম নিরপেক্ষতা। ধর্ম নিরপেক্ষ জনগণ রাষ্ট্র ধর্ম ইসলাম চায় না।

আরো বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান লে. কর্নেল (অব.) আবু ওসমান চৌধুরী, অর্থ সম্পাদক মেজর জেনারেল (অব.) জামিল ডি আহসান বীর প্রতীক,ফোরামের সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ম. হামিদ, ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক প্রফেসর আবুল কালাম আজাদ, চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুল আলম ও মুক্তিযোদ্ধা নাজমুল হাসান পাখী। উপস্থাপনা করেন সেক্টর কমান্ডার্স ফোরাম কুমিল্লা শাখার সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন খান।




Check Also

দেবিদ্বারে অগ্নিকান্ডে ১কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি

দেবিদ্বার প্রতিনিধিঃ– কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার ফতেহাবাদ ইউনিয়নের জগন্নাথপুর গ্রামে রান্না ঘরের গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরনে ১৫টি ...

Leave a Reply