গাজা অভিমুখী ত্রানবাহী জাহাজে আবারো ইসরাইলী হামলা

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক :

গাজা অভিমুখী ত্রাণবাহী নৌবহর ফ্রিডম ফ্লোটিলার জাহাজ এমভি সেওরেইজে ইসরাইল হামলা করে ইঞ্জিন নষ্ট করে দিয়েছে । ফ্রিডম ফ্লোটিলার সংগঠকরা সংবাদ সম্মেলনে এ খবর জানায়। জাহাজটি তখন তুরস্কের সমুদ্রসীমায় ছিল।গাজাগামী ত্রাণ বহরের জাহাজে ইসরাইলের দ্বিতীয় হামলা এটা। এর কয়েকদিন আগে দেশটি গ্রিস-সুইডেনের জাহাজ জুলিয়ানোতেও হামলা চালায়। জুলিয়ানো তখন গ্রিসের নৌবন্দর পেরিয়াসে ছিল।
ফ্লোটিলায় অংশ নেয়া একজন মানবাধিকার কর্মী জানায়, ইসরাইল জাহাজটির ইঞ্জিন এমনভাবে ক্ষতি করেছে, যেকোনো সময় সাগরে ডুবে যেতে পারতো সেটি। ত্রাণবাহী নৌবহর ফ্রিডম ফ্লোটিলার মুখপাত্র ড্রোর ফিলার তুরস্কের সামরিক রেডিও স্টেশনকে বলেন, ‘আমি জাহাজের ক্ষয়ক্ষতি নিজ চোখে দেখেছি। দেখে মনে হয়েছে, এ হামলা পরিকল্পিত।’ তিনি জানান, একমাত্র ইসরাইল সরকারই এ থেকে সুবিধা নিতে পারে।
গাজায় ফ্লোটিলা মুখপাত্র জানান, হামলার কথা মাথায় রেখেই প্রতিটা জাহাজে আমরা নিরাপত্তা প্রহরী রেখেছি। এমভি জুলিয়ানো মেরামত করতে এখন অন্য বন্দরে নেয়া হয়েছে।
সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, গ্রিক বন্দর কর্তৃপক্ষ হঠাত্ করে ফ্রিডম ফ্লোটিলার কানাডিয়ান জাহাজ তাহরির পর্যবেক্ষণ করতে আসে। অথচ অনেক আগেই আন্তর্জাতিক রণতরী পর্যবেক্ষণ দফতর জাহাটি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে গাজা অভিমুখে যাওয়ার অনুমতি দিয়েছে।
ফ্লোটিলা নৌবহরের সংগঠকরা আরও জানান, গত কয়েকদিনে দশটি ত্রাণবাহী জাহাজ গাজা অভিমুখে রওনা হয়েছে। তারা বলছেন, গাজা উপদ্বীপে যে পরিমাণ ত্রাণ দরকার তার তুলনায় এটা খুবই কম।
ইসরাইল ইউরোপিয়ান ইউনিয়নকে দায়ী করে বলছে, ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন এখনও পরিষ্কার করছে না, তারা হামাসের কাছ থেকে আসলে কী চায়। ফ্রিডম ফ্লোটিলার নৌবহর গাজায় পাঠিয়ে তারা ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্কের অবনতি ছাড়া কিছুই করছে না। এ হামলা সম্পর্কে ইসলামী সম্মেলন সংস্থার মহাসচিব একমেলুদ্দিন এহসানুগুল তুরস্কের দৈনিক হুররিয়াতকে বলেন, গত বছর এমভি মারমারায় হামলার মতো এবছরও একই কাজ করলে তার সমাধান অসম্ভব হবে। তিনি বলেন, ইসরাইলের গাজা অবরোধ যে কোনো মানবাধিকারই সমর্থন করবে না। তাই গাজায় ত্রাণবাহী যাহাজের গমনকে সহজভাবে নেয়া উচিত তাদের।



Your Ad Here

Check Also

রিয়াদে জ্যাবের ‘অমর একুশে’ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

ষ্টাফ রির্পোটার :– “অমর একুশের চেতনায় গন মানুষের মনে জেগে উঠুক উজ্জলতা উৎকৃষ্টতা” শীর্ষক আলোচনা ...

Leave a Reply